খেলাট্রেন্ডিং খবরহোমপেজ স্লাইড ছবি

ক্লাব ফুটবলের হালচাল

মঞ্জুর দেওয়ান: গতমাসে ইউরোপীয়ান সুপার লিগ ইস্যুতে টালমাটাল ছিলো ফুটবল বিশ্ব। চ্যাম্পিয়নস লিগের বিকল্প তৈরিতে নাম লিখিয়েছিলো ইউরোপের বড় ১২টি ক্লাব। যার নেপথ্যে ছিলো রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। নতুন টুর্নামেন্টটির চেয়ারম্যান হয়েছিলেন তিনি। যার সমর্থন ছিলো রিয়ালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার। ইতালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্টাস, এসি মিলান, ইন্টার মিলানও ছিলো সেই কাতারে। তবে সমর্থকদের তোপের মুখে ইংল্যান্ডের ছয় ক্লাব ইএসএল থেকে সরে দাড়ালে শঙ্কায় পড়ে টুর্নামেন্টটি। ইংলিশদের দেখানো পথে একে একে নাম প্রত্যাহার করে নেয় আতলেতিকো মাদ্রিদ, এসি মিলান। আনুষ্ঠানিকভাবে টুর্নামেন্টটি এখনো বাতিল হয়নি। এখনো রিয়াল-বার্সার নামে নিভু নিভু করে জ্বলছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগের আলো।

চ্যাম্পিয়নস লিগঃ ইউরোপিয়ান সুপার লিগে নাম লিখিয়ে শঙ্কায় পড়েছিলো রিয়ালের চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা নিয়ে। তবে সব পেছনে ফেলে শেষ চারের প্রথম লেগ খেলে ফেলেছে গ্যালাক্টিকোস। ঘরের মাঠে চেলসির কাছে ১-১ গোলের ড্রয়ে কিছুটা ব্যাকফুটে জিনেদিন জিদানের দল। ফিরতি লেগে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে লস ব্লাঙ্কোদের সামনে। বুধবার মুখোমুখি হবে দুই দল। আরেক ম্যাচে পিএসজির মাঠ থেকে ২-১ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছে ম্যানচেস্টার সিটি। ইতিহাদে অপরাজেয় সিটিকে হারাতে কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে নেইমার-এমবাপেদের। যদিও দ্বিতীয় লেগে এমবাপের খেলা নিশ্চিত নয়। সেক্ষেত্রে বাড়তি চাপ থাকবে নেইমারের উপর। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় লড়বে সিটি-পিএসজি।

স্প্যানিশ লিগঃ জমে উঠেছে লা লিগা। ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে আতলেতিকো মাদ্রিদ টেবিলের শীর্ষে। তবে এখনো লিগ জয়ে সম্ভাবনা আছে তিন দলেরই। রিয়াল-বার্সাও শিরোপার দৌড়ে আছে। ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে রিয়াল মাদ্রিদ। সমান পয়েন্ট হলেও মুখোমুখি লড়াইয়ে রিয়ালের চেয়ে পিছিয়ে থেকে তিনে বার্সা। তিন দলেরই বাকি চারটি করে ম্যাচ।

ইতালিয়ান সেরি-আঃ শেষ হয়েছে জুভেন্টাসের একচ্ছত্র আধিপত্য। ইতালির নতুন চ্যাম্পিয়ন এখন ইন্টার মিলান। ১১ বছর পর সেরি-আর শিরোপা জিতলো নেরাজ্জুরিরা। অন্যদিকে, টানা নয় মৌসুম শিরোপা জয়ের পর ব্যর্থতার বৃত্তে জুভেন্টাস। লিগ টেবিলের সেরা চারে থাকা নিয়েই কাঠখড় পোড়াতে হচ্ছে তুরিনের ওল্ড লেডিদের। রোনালদোর জোড়া গোলে উদীনেজকে হারানোর পর সেই শঙ্কা কিছুটা কেটেছে। নাহলে চ্যাম্পিয়নস লিগে কোয়ালিফাই না করার লজ্জা পেতে হতো পিরলোর দলের।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker