ছুটিট্রেন্ডিং খবর

জল ও সবুজের অপূর্ব এক সম্মলেন আড়িয়াল বিল!

বর্ষায় পানি আর পানি , শীতে শুকিয়ে দিগন্ত জুড়ে শস্যক্ষেত। যেদিকে চোখ যায় শুধু জল অবারিত সুবুজের প্রান্তর । আর এই সৌন্দর্য উপভোগ করতে যেতে হবে মুন্সীগঞ্জ এর “আড়িয়াল বিল” এ। আড়িয়াল বিল ঢাকার দক্ষিণে পদ্মা ও ধলেশ্বরী নদীর মাঝখানে অবস্থিত প্রায় ১৩৬ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের একটি অবভূমি। ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ এবং মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর ও সিরাজদিখান উপজেলা জুড়ে এ জলাভূমির অবস্থান। তবে অধিকাংশই পড়েছে মুন্সীগঞ্জে। সুনীল আকাশ, টলটলে বিলের জল। কখনোবা বিলের মাঝে একখণ্ড দ্বীপ। মরিচবাড়ি ডাঙ্গা নামের দ্বীপের মতো জায়গায় নেমে সবুজে একরাশ মুগ্ধতা। ফের নৌকায় চড়ে মাছ ধরা, শাপলা তোলা দেখে কেটে যায় বেলা। এরকম একটি দিন কাটাতে চাইলে একবার হলেও ঘুরে আসুন আড়িয়াল বিল থেকে।
কিভাবে যাবেন ঢাকার গুলিস্তান থেকে মাওয়া গামী যেকোন বাসে, মিরপুর থেকে স্বাধীন, আব্দুল্লাহপুর থেকে প্রচেষ্টায় করে ছনবাড়ি (শ্রীনগর নামব বললে এখানেই নামাবে) নেমে রাস্তা ক্রস করে ইজি বাইকে জনপ্রতি ৫ টাকা কিংবা রিক্সায় ১০ টাকা দুইজন করে শ্রীনগর বাজার। বাজারে নৌকা ঘাট আছে, হাতে টানা কিংবা ইঞ্জিনচালিত দুই রকম নৌকাই পাবেন। চাইলে গদিঘাট গিয়েও নৌকা ভাড়া করতে পারেন, ইঞ্জিনচালিত নৌকা ৮০০-১০০০ এ সারা দিনের জন্য ভাড়া করতে পারবেন। অথবা ঢাকার গুলিস্থান থেকে মাওয়াগামী বাসে ৬০ টাকার টিকেট কেটে উঠে পড়বেন। সেখান থেকে শ্রীনগর বাসস্ট্যান্ডে নেমে পড়বেন। ১০ টাকা ভাড়া দিয়ে গাঁদিরঘাটগামী অটোস্ট্যান্ডে চলে যান। অটোটে গাঁদিঘাট অর্থাৎ আড়িয়াল বিলের কাছে নামিয়ে দেবে। এরপর ইঞ্জিন চালিত নৌকা ভাড়া করে ঘুরুন। দুই থেকে ৫ জন মিলে গেলে ভালো হয়। নৌকায় ঘণ্টা ২০০ থেকে ২৫০ টাকা নেবে। তাহলে নৌকা খরচ প্রতিজন ৫০-৭০ পড়বে।
কোথায় থাকবেন ঢাকা থেকে দিনে দিনে মুন্সিগঞ্জ ভ্রমণ শেষ করে ফিরে আসা সম্ভব। তাছাড়া জেলা শহরে থাকার সাধারণ মানের কিছু হোটেল আছে। শহরের দু-একটি হোটেল হলো হোটেল থ্রি স্টার (০১৭১৫৬৬৫৮২৯, ০১৭১৫১৭৭৭১৬) এবং হোটেল কমফোর্ট। এসব হোটেল ১৫০-৬০০ টাকায় থাকার ব্যবস্থা আছে। ভ্রমণে গেলে মুন্সিগঞ্জের জায়গাগুলো দেখে সবশেষে পদ্মা রিজর্টে (০১৭১৩০৩৩০৪৯) এসে থাকলে ভালো লাগবে।
কি খাবেন চিত্তর দই, আনন্দর মিষ্টি, খুদের বৌউয়া বা খুদের খিচুড়ি, ভাগ্যকুলের মিষ্টি সকালে নাস্তা করতে চাইলে মাঝখানে বাজার আছে করে নিবেন। গাদিঘাটে সেরকম কিছু নাই। শ্রীনগরের পর বিলের কোথাও দোকান পাট নেই। গাদিঘাট এ কিছু গ্রাম্য দোকান পাবেন। সঙ্গে অবশ্যই পর্যাপ্ত খাবার পানি ও শুকনা খাবার নিতে ভুলবেন না।

 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker