ট্রেন্ডিং খবরহোমপেজ স্লাইড ছবি

টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে যত কথা

আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়মিত হন তাহলে একটা ব্যাপার অবশ্যই লক্ষ্য করেছেন তা হলো টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ!
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ বেশ কয়েক দিন ধরে ভাইরাল। জানুয়ারির মাঝামাঝি থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ’ শেয়ার করতে দেখা যাচ্ছে অনেককেই।

কিভাবে শুরু টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ?

পুরোপুরি নিশ্চিত না হলেও ধারণা করা হচ্ছে ‘টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ’ এর শুরু করেছিলেন ডেমন লেন। তিনি ওকলাহোমার একটি জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেলের প্রধান আবহাওয়াবিদ। জানুয়ারির ১১ তারিখ শেয়ার করা তার এই পোস্টটি ‘ট্রেন্ড’ হিসেবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে এবং এরপর মাইলি সাইরাস, ডিপলো, লিয়াম হেমসওয়ার্থসহ বহু সেলেব্রিটি এই চ্যালেঞ্জে অংশ নেন। ফলে বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায়। এই চ্যালেঞ্জের মূল উদ্দেশ্য হলো নিজেকে ভালোবাসা। নিজের অতীতকে গর্বের সঙ্গে বর্তমানে তুলে ধরাই এই চ্যালেঞ্জের মূল লক্ষ্য।

এই চ্যালেঞ্জে যে কেউ অংশ নিতে পারে। চ্যালেঞ্জে অংশ নেয়ার জন্য ২০০৯ এর একটি ছবি এবং ২০১৯ এর একটি ছবি কোলাজ করতে হবে। কোনো ধরণের ফিল্টার ব্যবহার করা যাবে না।

নিছক মজার ছলে শুরু হওয়া এই ‘টেন ইয়ার চ্যালেঞ্জ’ এর মোড় ঘুরছে নানা দিকে। প্রচুর ট্রল তৈরি করা হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তবে নিরীহ এ ছবি পোস্টের সঙ্গে অন্যের অসৎ উদ্দেশ্য থাকতে পারে বলে সতর্ক করছেন বিশ্লেষকেরা। গতকাল বুধবার ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ওই ট্রেন্ডের সঙ্গে নিজেদের সংশ্লিষ্টতা না থাকার ঘোষণা দিয়েছে। ওই মিম ফেসবুকে দেওয়ার হিড়িক পড়ে যাওয়ার পর থেকে বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করেন বিশ্লেষকেরা।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, এর পেছনে ফেসবুকের গোপন উদ্দেশ্য থাকতে পারে। ফেসবুক তাদের নিজস্ব ফেশিয়াল রিকগনিশন অ্যালগরিদম উন্নত করার জন্য এ ধরনের ট্রেন্ড সামনে এনেছে। গোপনে তারা এসব ছবি থেকে তথ্য সংগ্রহ করছে। ফেসবুক অবশ্য বিষয়টি অস্বীকার করেছে।

তারা আরো বলছেন, কয়েক দিন বাদে হলেও নতুন ট্রেন্ড নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে, এটা ভালো দিক। প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর হাতের পুতুল হওয়ার আগে একটু চিন্তা করার প্রয়োজন আছে বৈকি!

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker