দৈনিক ভালো খবর

দরিদ্র শিক্ষার্থীদের কল্যাণে আর্থিক সহায়তা দিলো সালমা আদিল ফাউন্ডেশন

দেশের দরিদ্র ও অসহায় মানুষের কল্যাণ এবং শিক্ষার প্রসারে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে যাচ্ছে সালমা আদিল ফাউন্ডেশন (এসএএফ)। এরই ধারাবাহিকতায় এবার চুনতির শিক্ষার্থীদের মেধাবিকাশের পথ সুগম করতে আর্থিক সহায়তা প্রদান করলো প্রতিষ্ঠানটি। ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মো. ফরিদ হোসেন রেজা সম্প্রতি স্বনামধন্য সংগঠন ‘চুনতি সমিতি, ঢাকা’-এর সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ খান, ফাইন্যান্স সেক্রেটারি গোফরানুল ওয়াদুদ জুনায়েদ এবং অ্যাসিসটেন্ট ফাইন্যান্স সেক্রেটারি নূর হোসনের কাছে এই অর্থ সহায়তার চেক হস্তান্তর করেন।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আর্ত-মানবতার সেবায় নানান কর্মতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে সালমা আদিল ফাউন্ডেশন। করোনা মহামারীর প্রথম থেকেই দেশের হতদরিদ্র ও ছিন্নমূল হাজারো পরিবারের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার পাশাপাশি নগদ অর্থ সহায়তাও প্রদান করে আসছে ফাউন্ডেশনটি। এছাড়া চিকিৎসক, সাংবাদিক, পুলিশ সহ সম্মুখসারির পেশাজীবীদের সুরক্ষায় পিপিই, মাস্ক সহ অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ, বিনামূল্যে করোনা শনাক্তকরণ এবং করোনা আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিদের দাফনের ব্যবস্থা করে আসছে এই ফাউন্ডেশন। এতোসবের মাঝেও থেমে নেই ফাউন্ডেশনের শিক্ষা সহায়তা কার্যক্রম।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হবার জন্য সম্প্রতি চন্দনাইশের পূর্ব সাতবাড়িয়ার দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে আর্থিক সহায়তা করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় চুনতির দরিদ্র শিক্ষার্থীদের কল্যাণে এবার ‘চুনতি সমিতি, ঢাকা’-কে অর্থ সহায়তা প্রদান করেছে সালমা আদিল ফাউন্ডেশন।

এ প্রসঙ্গে সালমা আদিল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সালমা আদিল বলেন, “প্রতিষ্ঠার পর থেকেই দেশের অসহায় ও দরিদ্র মানুষের কল্যাণে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য ও শিক্ষার বিষয়টিকে আমরা বরাবরই অধিক গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে থাকি। সেই ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবেই এবার চুনতির দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে সালমা আদিল ফাউন্ডেশন।

‘চুনতি সমিতি, ঢাকা’-এর সভাপতি আসাদ খান বলেন, “গত ছয় বছরের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবার সপ্তম-বারের মতো আমরা দরিদ্র মেধাবীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করতে যাচ্ছি। আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাকে সাফল্যমণ্ডিত করতে সালমা আদিল ফাউন্ডেশন যেভাবে আন্তরিকতার সাথে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে, সেটি সত্যিই অতুলনীয়। তাদের এই উদার মানসিকতা সমাজের অন্যদেরকেও উদ্বুদ্ধ করবে বলে আশা রাখি।”

১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত ‘চুনতি সমিতি, ঢাকা’ ২০১৪ সাল থেকে নিয়মিতভাবে মেধাবী শিক্ষার্থীদেরকে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবছর প্রায় ১৫০ জন দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী এই শিক্ষাবৃত্তি পেতে যাচ্ছে। মূলত: চুনতি ইউনিয়নের যেসব শিক্ষার্থী বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করছে, তারা এখানে আবেদন করতে পারবে। এছাড়া অন্যান্য এলাকার যারা চুনতির ৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করছে, তারাও আবেদনের সুযোগ পাবে। তবে বৃত্তিটি পেতে হলে তাদেরকে অবশ্যই নবম শ্রেণী এবং তারও উপরের শ্রেণীর শিক্ষার্থী হতে হবে।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker