ব্যবসা ও বাণিজ্যহোমপেজ স্লাইড ছবি

মার্কেটিং : টুল টু রুল দ্য ওয়ার্ল্ড

আমরা মার্কেটিংয়ের যুগে বাস করছি। মার্কেটিংকে ঘিরেই এখন পুরো পৃথিবী অবর্তিত হয়। তথ্য আর প্রযুক্তি পুরোটাই ব্যবহার হচ্ছে মার্কেটিং প্লান বাস্তবায়নে। আর মার্কেটিং এর হালে পুরো পানি দিচ্ছে হিউম্যান সাইকোলজি। ব্যক্তি জীবন থেকে অর্থনৈতিক, সামাজিক থেকে রাস্ট্রীয় সব জায়গাতেই মার্কেটিং এর সক্রিয় বিচরণ। আমাদের অধিকাংশ ডিসিশন এখন মার্কেটিং নিয়ন্ত্রণ করে। পহেলা বৈশাখে লাল শাড়ি আর সাদা পাঞ্জাবী কেন কিনি? মা দিবস, বাবা দিবস, ভ্যালেন্টাইন ডে, ঘটা করে জন্মদিন পালন কিংবা বইমেলা থেকে নির্দিষ্ট লেখকের বই কেনা। সব কিছুরই মূল কারণ মার্কেটিং।

পকেটে iphone11 থাকতে iphone12 না কিনলে ঘুম হয়না উসখুস লাগে। কারণ মার্কেটিং। গত এক বছরে বেস্টার সেলার বই হয়েছে কোনগুলো? সোজা উত্তর যেগুলোর মার্কেটিং ভাল হয়েছে (দু একটা ব্যতিক্রম বাদে)। আর বেস্ট সেলিং অথার কারা? যারা নিজেদের ভাল মার্কেটিং করতে পারছে তারা। আচ্ছা কখনো চিন্তা করে দেখেছেন কি বইয়ের মূল ব্যাপারতো লেখা আই মিন রাইটিং। তাহলে বেস্ট রিটেন বুক কিংবা বেস্ট রাইটিং অথার বলা হয় না কেন?সিম্পল রিজন মার্কেটিং। সেলিং শব্দটা মার্কেটিং টার্ম।সেলিংকেই এখানে রাইটিং এর উপর প্রায়োরিটি দেয়া হয়েছে। এজন্যই বেস্ট রাইটিং বুক/অথার বলা হয় না। গুহার ভেতর থেকে পৃথিবীর সেরা বই লিখে ফেললেন কিন্তু ফ্যানবেজ নাই, পিপলস কানেকশন নাই, বইয়ের মার্কেটিং নাই তারমানে সেল হবে না।

প্রকাশক পরের বছর আপনার বই ছাপাবে না।দেশ বিদেশের সমস্ত পপুলার ইসলামিক বক্তারা ফেসবুকে এড রান করেন। যারা করেন না তাদের পপুলারিটি অনেক কম। বক্তব্য যত ভালই হোক। এড লাইব্রেরিতে ইসলামিক বক্তাদের পেজ দেখুন তাহলে ক্লিয়ারলি দেখতে পাবেন। এখানেও খেলা সেই মার্কেটিং এর হাতে! জন্ম মৃত্যু বিয়ের সমস্ত আপডেট ফেসবুকে না দিয়ে থাকতে পারি না কেন? কারণ মার্কেটিং। ফেসবুকে একবার ঢুকলে ২ ঘন্টায়ও বের হতে পারি না কেন? কারণ এখানে কাজে লাগানো হচ্ছে মার্কেটিং এবং হিউম্যান সাইকোলজির দারুণ ব্লেন্ডিং। আপনার আমার মগজের মালিকানা নেয়ার এর সব ধরণের টুলই মার্কেটিং এক্সপার্টদের হাতে রয়েছে। আমরা জীবনে যা কিছু করি প্রায় সবক্ষেত্রেই কোন না কোনভাবে মার্কেটিং এর প্রভাব আছে।

সোজা কথায় বললে আমাদের সিদ্ধান্ত এখন আর আমরা নেইনা, মার্কেটিং নেয়!!!মার্কেটিং দিন দিন এমন একটা উচ্চতায় চলে যাচ্ছে; চাইলেও পকেটে টাকা রাখা সম্ভব হবে না। আগেতো তাও ক্যাশ টাকা খরচ করে জিনিস কিনতে হতো।এখন ঘরে বসে ব্যাংক খালি করে অ্যামাজন, আলিবাবা, ফুডপান্ডা, ইভ্যালি,চালডাল থেকে কেনাকাটা করি। ঘরে বসে বিশ্বের যেকোন প্রান্তে টাকা খরচ করা যায়। তা আপনি গরীব আর বিলিয়ন ডলারের মালিক যেটাই হোন। টাকা জমিয়ে রাখা অনেক কঠিন এটাই সত্যি। সব লেভেলের জন্যই আলাদা মার্কেটিং ফানেল সেট করা আছে। এখানে মার্কেটিংয়ের মূল অস্ত্র চয়েজ সাইকোলজি আর ডাটা সায়েন্স।

আপনার কথা আপনার বউয়ের চেয়েও এখন গুগল ফেসবুক বেশী জানে। তারা জানে আপনাকে কি টোপ গেলানো যাবে। গত ১ বছরের আপনার পারচেজ কিংবা এক্সপেন্স হিস্ট্রি দেখুন। কত জিনিস যে কিনছেন, কত খরচ যে অপ্রয়োজনীয় করেছেন। তারপরও ভেতরে স্বস্তি নাই। আরো কত কিছু কেনার নেশায় বিভোর হয়ে আছেন। যুদ্ধ করে এখন আর দেশ দখল করা লাগে না। মার্কেট যার দখলে সে বিশ্বকে লিড দিচ্ছে। আমেরিকা বিশ্ব নেতৃত্ব দিচ্ছে কারণ বিশ্বের প্রভাবশালী ব্র‍্যান্ডগুলোর বেশীরভাগই তাদের দখলে।

পেপসি, কোকাকোলা, কেফসি, পিজা হাট, ম্যাকডোনালস, অ্যাপল, আইবিম, মাইক্রোসফট, ফেসবুক, ওয়াটস অ্যাপ, গুগল, অ্যামাজন, ওয়ালমার্ট, ডেল, হার্ভার্ড, মেটলাইফ, উবার, অ্যামাজন এরকম অসংখ্য। প্রযুক্তি দুনিয়ার প্রায় বেশীরভাগ বড় সফটওয়্যারই আমেরিকানদের গড়া। অদৃশ্য এসব পণ্য দিয়ে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার এর বিজনেস করছে। স্টার্টাপ এর জন্য প্রসিদ্ধ বিশ্বের ১০ টি শহরের প্রথম ৩ টি আমেরিকার ১। সিলিকন ভ্যালি ২। নিউ ইয়র্ক ৩। লাস ভেগাস, ৭ নম্বরে আছে শিকাগো। চাইনিজ কোন সিটির নাম টপ টেনে নেই।

চাইনিজরা অনেক দৃশ্যমান পণ্য বানাচ্ছে কিন্তু প্রযুক্তির জায়গায় আমেরিকানরা অনেক এগিয়ে।’Marketing is a war,where your enemy is competator,your customer is ground to win ‘হ্যাঁ মার্কেটিংয়ে এখন যুদ্ধের মতোই প্রস্তুতি নেয়া লাগে। যার কারণে Art of war, Marketing war fare, On war, The Marketing of War in the Age of Neo-Militarism এই বইগুলো মার্কেটিং ডিশিসন মেকারদের জন্য অবশ্য পাঠ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যুদ্ধ মানে এখানে মারামারি কাটাকাটি নয়, এখানে আর্ট আছে, সায়েন্স আছে, সাইকোলজি, এনথ্রোপলজি, ফিলোসপির ব্লেন্ডিং আছে। সফল মার্কেটিং এখন চূড়ান্ত লেভেলের ক্রিয়েটিভ ওয়ার্ক।

আমরা ঢুকে গেছি Integrated Marketing Era তে। মার্কেটিং এখন আর পণ্য বেঁচাতে সীমাবদ্ধ নেই। ব্যবসায় নামতে গেলে মার্কেটিং না বুঝলে আপনি জিরো। শুধু জিরো না রীতিমতো আহাম্মক। বিজনেস গেমে মার্কেটিং বল বানিয়ে দেয়, সেলস ডিপার্টমেন্ট স্ট্রাইকার এর ভূমিকায় গোল করে। মার্কেটিং ঠিক থাকলে মানি মেকিং প্রসেস সচল থাকে।’Marketing is creating demand and retaining ‘তবে বেশীরভাগক্ষেত্রে সেলসকে আমরা মার্কেটিং এর সাথে গুলিয়ে ফেলি। মার্কেটিং হচ্ছে প্রসেস। সেলস হচ্ছে চূড়ান্ত রেজাল্ট। মাছকে খাবার দিয়ে বা অন্য কোন উপায়ে কাছে আনা হচ্ছে মার্কেটিং। আর জাল দিয়ে মাছ ধরা হচ্ছে সেলস।

মার্কেটিং ভাল হলে সেলস ভালো আসবে (সেলস ডিপার্টমেন্ট এর অনেক কার্যক্রম আছে সেটা ভিন্ন আলোচনা) বিখ্যাত ফিনাসিয়াল এডভাইজর এন্ড অথার Howard Ruff এর একটা উক্তি দিয়ে আজকের লেখার ইতি টানছি।’If I could teach my children one thing.It would be the Skill of Marketing. For with that skill they could be successful at anything they choose.’নিঃসন্দেহে বলা যায় মার্কেটিং এখনকার দুনিয়ায় বেস্ট লার্নেবল স্কিল।

  • ইলিয়াস কাঞ্চন, উদোক্তা, লেখক ও বিজনেস ট্রেইনার

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker