বিনোদনহোমপেজ স্লাইড ছবি

সুরের পাখি কনকচাঁপা!

হৃদয় সাহা: স্বপ্ন ছিল বড় গায়িকা হবেন,আর সেই স্বপ্নই তাকে শক্তি দিয়েছে গানের ভুবনে জয় করার৷ সেই শুরুর দিকে নতুন কুঁড়ির বিজয়ী শিল্পী, কিংবদন্তি গায়ক বশির আহমেদের কাছে শিখেছিলেন সব ধরনের গান। তবে এর মাঝেই ষোড়শী পার না হতেই বিয়ের কন্যা হয়ে গেলেন, স্বামী অবশ্য গানের ই মানুষ এবং তার শিক্ষক। তাই বিয়ের পর গানের চর্চায় বাধা আসেনি, তবুও সংসার, সন্তান সামলিয়ে সেই বয়সে নিজের লক্ষ্য, পরিশ্রমে দেশের জনপ্রিয় গায়িকাদের সেরাদের একজন হওয়ার গল্প অবশ্যই একজন সফল নারীর,অনুপ্রানিত হবার মতন।

ফুলের নামে নাম যার, ফুলের মত ই গানের জগতে সুবাস ছড়ানো প্রিয় গায়িকা ‘কনকচাঁপা’। কত মানুষ ভবের মাজারে, লক্ষ কোটি হাজারে হাজারে… ‘লাভ স্টোরি’ সিনেমার গান, এক মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়ের ভালোবাসার গল্প বলতে গানে গানে এই কথাগুলো বলা হয়েছিল। আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের কথা ও সুরে গানটি গেয়েছিলেন কনকচাঁপা, প্লেব্যাকে তখন সবে নিয়মিত হওয়া শুরু করেছেন, দুয়েকটি গান জনপ্রিয় হয়েছে। এরমধ্যেই এমন হৃদয়গ্রাহী গান যেন মন ছুঁয়ে গেল, তখন জাতীয় পুরস্কার মানেই সাবিনা ইয়াসমিন বা রুনা লায়লা, তবে সবাইকে চমকে দিয়ে জুরি বোর্ডের রায়ে সেরা গায়িকা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়ে যান তিনি। এটা দিয়ে শুরু হয় প্রথম জাতীয় পুরস্কার,পরে আরো দুইবার পেয়েছিলেন।

বাজারে যাচাই করে দেখে নিতো দাম, সোনা কিনিলাম নাকি রুপা কিনিলাম….. নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূরের লিপে কনকচাঁপার কন্ঠ যেন হয়ে উঠে মানিকজোড়। সেই সুবাদে এই নায়িকা- গায়িকা জুটি হয়ে উঠে অপ্রতিদ্বন্দ্বী, এই দুইজনের রসায়ন ছিল দর্শকপ্রিয়। সেটা ভালো আছি ভালো থেকোর নির্মল প্রেমের গান ই হউক কিংবা কিছু কিছু মানুষের জীবনের মত বক্তব্যধর্মী গান। এই জুটির হিট গান প্রচুর,তালিকায় আরো যায় তোমায় দেখলে মনে হয়,আমার হৃদয় একটা আয়না,এই বুকে বইছে যমুনা, সাগরের মত ই গভীর, সাথী তুমি আমার জীবনে, থাকতো যদি প্রেমের আদালত সহ প্রচুর গান। ‘তুমি আমার এমনই একজন…… ‘আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল’,কনকচাঁপার সেরা হওয়ার পেছনে যার অবদান অনেকখানি। উনার গাওয়া বেশিরভাগ সিনেমার গানই বুলবুল সাহেবের কথা ও সুরে।

প্লেব্যাকে সুরকার- গায়িকা জুটি এমন অদ্বিতীয়। কনকচাঁপা তিনটি জাতীয় পুরস্কার পেলেও ‘আনন্দ অশ্রু’ সিনেমার এই গানের জন্য না পাওয়াটা হতাশ হবার মতই। এই জুটির আরেকটি শ্রেষ্ঠ গান ‘যে প্রেম স্বর্গ থেকে এসে অমর হয়ে রয়’, জীবন ফুরিয়ে যাবের মত সুপারহিট গান তো রয়েছেই। তোমাকে চাই শুধু তোমাকে চাই….. প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোরের সঙ্গে নব্বইয়ে গড়ে উঠেছিল দারুণ এক জনপ্রিয় জুটি। তখন এই জুটির গান মানেই জনপ্রিয় সব গান,সেটা অনেক বছর পর এসেও এক বিন্দু ভালোবাসা দাও,কি যাদু করেছো বলোনার মত সুপারহিট গানেও বজায় থাকে। খালিদ হাসান মিলুর সঙ্গেও জুটি টাও বিশেষ হয়ে আছে, অনেক সাধনার পরে হচ্ছে অনন্য উদাহরণ। আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম প্লেব্যাক তো কনকচাঁপার সঙ্গেই, অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকের মত সুপারহিট গান দিয়ে,এর বাইরে আছে আরেক জনপ্রিয় গান ‘আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকে’।

এন্ড্রু,মিলু,আইয়ুব বাচ্চু এরা আর কেউই পৃথিবীতে বেঁচে নেই,নেই আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল সাহেব। মনির খানের সঙ্গেও হয়ে উঠেছিল আরেক জনপ্রিয় জুটি। আজ আমি তার ই নাম লিখিলাম….. বাংলাদেশের সিনেমার সঙ্গীত জগতে সাবিনা ইয়াসমিন, রুনা লায়লার পরেই কনকচাঁপার অবস্থান। শুধু সিনেমার গান নয়,আধুনিক গান ও গেয়েছেন। ব্যক্তিগত ভাবে খুব প্রিয় জুলফিকার রাসেলের কথায় বাপ্পা মজুমদারের সুরে ‘চোখের ভিতর স্বপ্ন থাকে’গানটি। পুরনো অনেক বিখ্যাত গান ই নিজের কন্ঠে গেয়েছেন,প্রতিমা মুখোপাধ্যায়ের ‘তাল পাতার বাঁশি’তো বেশ আলোচিত হয়েছিল,পুরস্কার ও পেয়েছিলেন। এছাড়া বহু লোকগীতি গেয়েছেন। সব মাধ্যমেই হয়েছেন সফল।

ব্যক্তিজীবনে যে মানুষটি ছিলেন ছায়াসঙ্গীর মত,তিনি উনার স্বামী সুরকার মাঈনুল ইসলাম খান। লেখক হিসেবেও আছে সুপরিচিতি। সব কিছুর ই শুরু আছে,শেষ ও হয়ে যায়……! বাংলা সিনেমার সেই সুদিন নেই,গানের জগতেও খরা। গানের নতুন প্রযুক্তিতে কনকচাঁপারা পেরে উঠতে পারেন নি বা সেই সুযোগ দেয়া উঠেনি। তাই ধীরে ধীরে সরে আসেন নিজে গ্রহণযোগ্যতা থাকাকালীন ই। তাই শুরুটা যেমন ছিল সফলতায়,তেমনি শেষটাও। গানের বাইরে রাজনীতি সচেতন মানুষ, যদিও এরজন্য মিশ্র অনুভূতির অভিজ্ঞতা আছে। সেটা আজ উহ্য থাকুক আজ জন্মদিনে,অনেক শুভকামনা রইলো। সবশেষে উনার গাওয়া সেই মমতায় ভরা দেশের গান ‘যে দেশেতে শহীদ মিনার,ফেব্রুয়ারি আছে,সে দেশেতে জন্ম আমার বলছি সবার কাছে….. শুভ জন্মদিন……. কনকচাঁপা!

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker