ছুটিহোমপেজ স্লাইড ছবি

জল জঙ্গলের কাব্য

মৃন্ময়ী মোহনা: শহরে বড় বড় অট্টালিকার ভীড়ে এখন আকাশটাও ঠিকঠাক দেখা যায়না। রাস্তাঘাটে যানবাহনের বিচিত্র হর্ন আর শব্দে কানের আর স্বস্তি নেই৷ সকাল দুপুর রাতের ধরাবাঁধা খাবারেও মাঝে মাঝে অরুচি লাগে।
নাগরিক জীবনের এমন নানাবিধ সমস্যা আঁচ করতে পেরেই বোধহয় একজন অবসরপ্রাপ্ত পাইলটের মাথায় আসে জল ও জঙ্গলের কাব্য তৈরির অভিনব আইডিয়া, এলাকায় যাকে সবাই পাইলট বাড়ি নামে চেনে।
বলছিলাম ঢাকার অদূরে গাজীপুরের পূবাইলে একদম গ্রামীন পরিবেশে গড়ে তোলা রিসোর্ট ‘জল ও জঙ্গলের কাব্য’-র কথা। পূবাইল কলেজ গেট থেকে ২০/২৫ টাকা রিক্সা ভাড়ার দূরত্বে এর অবস্থান।
যদিও ফেসবুক ইউটিউবের কল্যাণে অনেক প্রচার হয়েছে এ জায়গার, তবু এখনো যারা জানেননা, তাদের জন্যই এ লেখা।

প্রায় ৯০ বিঘা জমির ওপর গড়ে তোলা এই রিসোর্টে আছে প্রচুর গাছপালা, বাঁশ আর ছন দিয়ে বানানো ছোট ছোট ঘর; নামগুলোও খুব সুন্দর – কদমতলা, বকুলতলা…আছে বিশাল পুকুর, পুকুর ভরা মাছ,শাকসবজির বাগান।
গাছতলায় বসে গানের আসর, আছে দোলনা, নাগরদোলা, বিশাল মাঠ।

সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পাঁচ বেলা পরিবেশন করা খাবারের সংখ্যা, মান আর স্বাদ অতুলনীয়। মাটির চুলোয় করা রান্নাগুলো হয়ও নিজস্ব ক্ষেতে জন্মানো শাকসবজি আর পুকুরের মাছ দিয়ে।
আপনি শুধু শুয়ে বসে হেঁটে অনুভব করবেন চারপাশের সৌন্দর্য, প্রকৃতির নীরবতায় হারিয়ে যাবেন অন্য এক জগতে, আর ক্ষুধা পেয়ে গেলে বসে যাবেন খেতে।

এ রিসোর্টে খরচও সাধ্যের মধ্যেই।সকালের নাস্তা থেকে রাত্রিযাপন পর্যন্ত প্রতিজন ৩৫০০/- টাকা এবং সকাল থেকে বিকেল অবস্থানে প্রতিজন ১৫০০/- টাকা করে।
কাজের লোক ও ড্রাইভারদের জন্য খরচ প্রতিজন ৭৫০/-

এ রিসোর্টে যাওয়ার জন্য অবশ্যই আগে থেকে বুকিং দিয়ে যেতে হবে। প্রায় প্রতিদিনই পিকনিক করতে চলে আসে ছোট বড় নানা গ্রুপ। এইতো ক’দিন আগে আস্ত এক বিয়ের অনুষ্ঠানই হয়ে গেল সেখানে।
শহুরে জীবনের একঘেয়েমি থেকে অন্তত একদিনের জন্যও মুক্তি পেতে চাইলে ঘুরে আসতে পারেন একদম ‘খাঁটি’ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর জল ও জঙ্গলের কাব্যতে। বিশ্বাস করুন, নিরাশ হবেননা!
আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য ঢুঁ মারতে পারেন তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে :www.jolojongol.com

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker