ছুটিহোমপেজ স্লাইড ছবি

কাশ্মীরের ছোঁয়া পেতে ঘুরে আসুন নীলাদ্রি

মৃন্ময়ী মোহনা: নীলাদ্রি-নামের মধ্যেই রয়েছে এক মোহনীয়তা। কোনো জলাশয়ের এমন মোহনীয় নাম – অবাক লাগার বিষয় বৈকি। এটি অবস্থিত সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের টেকেরঘাট গ্রামে। মূলত এটি চুনাপাথরের পরিত্যাক্ত খনির লাইমস্টোন লেক। স্থানীয় লোকজন একে নীলাদ্রি লেক বলেই জানে। এর প্রকৃত নাম শহীদ সিরাজ লেক। লেকের পানির গভীরতা অনেক। একেবারে সীমান্ত ঘেঁষে অবস্থিত এই লেকের পানির রং হৃদয়গ্রাহী।   দেখলে চোখ আর মন জুড়িয়ে যায়। এর সাথে যোগ হয়েছে চারপাশের সবুজ পাহাড়ের সৌন্দর্য। সবমিলিয়ে নিলাদ্রী লেককে একটুকরো ‘কাশ্মীর’ -ও বলে থাকে মানুষজন।
 
কীভাবে যাবেন:
ঢাকা থেকে এনা,শ্যামলী,মামুন  প্রভৃতি বাস আছে সুনামগঞ্জের।  ভাড়া ৫০০-৬০০ টাকা। এরপর মোটরসাইকেলের ভ্রমণ।সুনামগঞ্জের নতুন ব্রিজ থেকে যা নিয়ে যাবে সরাসরি টেকেরঘাট। রিজার্ভ মোটরসাইকেল ভাড়া ৬০০-৮০০/- টাকা পর্যন্ত হতে পারে। রিজার্ভ করার আগে দামাদামি করে নেওয়া অবশ্য কর্তব্য।
 
কী কী দেখবেন:
যাদুকাটা নদী, শিমুল বাগান, বারিক্কা  টিলা এবং টাঙ্গুয়ার হাওর- এসবই নিলাদ্রী লেকের কাছাকাছি অবস্থিত। তবে বছরের এই সময় একদিনের ভ্রমণের জন্য নীলাদ্রী লেক, যাদুকাটা নদী, শিমুল বাগান এবং বারিক্কা টিলা – জায়গাগুলোই সুবিধাজনক। সেক্ষেত্রে সুনামগঞ্জ থেকে ১৫০০-২০০০/- টাকার বিনিময়ে মোটরসাইকেল রিজার্ভ করতে হবে। একটি মোটরসাইকেলে দুইজন চড়া যায়। সারা দিনব্যাপী এই জায়গাগুলোতে ঘুরে সুনামগঞ্জে ফিরে আসা সম্ভব। চাইলে নিলাদ্রী লেকের আশেপাশেও কোনো হোটেলে থাকা যায়। ভাড়া ২০০-৪০০/- টাকার মতো পড়বে। এছাড়া লেকের কাছে 
চুনাপাথরের পুরনো কারখানার রেস্ট হাউজ আছে। সেখানেও রাত কাটানো যায়। 
 
নীল-সবুজের সৌন্দর্য উপভোগ করতে যেকোনো দিন বেরিয়ে পড়ুন বাংলার কাশ্মীর নীলাদ্রির উদ্দেশ্যে। 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker