বাক্যহোমপেজ স্লাইড ছবি

ফ্রিদা-ট্রটস্কির ক্ষণস্থায়ী প্রেম

মিরাজুল ইসলাম: ১৯৩৭ সালের ৯ জানুয়ারী মেক্সিকান সেলিব্রেটি শিল্পী ফ্রিদা কাহলো রাশিয়া থেকে সদ্য বিতাড়িত বুড়ো কমরেড নেতা লিয়ন ট্রটস্কি’কে প্রথম চাক্ষুষ করলেন। স্ট্যালিন ছিলেন ট্রটস্কির রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী। ফ্রিদা’র স্বামী বিখ্যাত শিল্পী দিয়াগো রিভেরা ছিলেন নিবেদিতপ্রাণ সমাজতন্ত্রী। তিনি মেক্সিকো সরকারকে রাজী করিয়েছিলেন ট্রটস্কি’কে রাজনৈতিক আশ্রয় দিতে।

ট্রটস্কি যখন নরওয়েজিয়ান জাহাজে চেপে তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী নাতালিয়াকে নিয়ে মেক্সিকো’র টাম্পিকো বন্দরে নামলেন দিয়াগো তখন অসুস্থতার জন্য অভ্যর্থনা জানাতে যেতে পারলেন না। পাঠালেন তাঁর স্ত্রী স্যুরিয়ালিস্ট ফ্রিদা’কে। এর মাত্র কিছু দিন আগে ফ্রিদা হাতেনাতে দিয়াগো’কে তাঁর ছোট বোন ক্রিস্টিনা’র সাথে ফস্টিনস্টি করা অবস্থায় পাকড়াও করেছিলেন। তখন থেকে ভেতর ভেতর প্রচণ্ড ক্ষোভ ও প্রতিশোধের আগুন জ্বলছিলো। আটান্ন বছরের ট্রটস্কি প্রথম দেখাতেই যেন ফ্রিদার মনের কথা শুনতে পেয়েছিলেন।

দিয়াগো’র বিখ্যাত ‘নীল বাড়ী’তে কড়া নিরাপত্তায় যে দুই বছর ট্রটস্কি ছিলেন প্রায় পুরোটা সময় কাটিয়েছেন ফ্রিদা’র প্রেমের ছায়ায়। দুজনের অসম প্রেম গোপন ছিল না। ট্রটস্কিকে ফ্রিদা সম্বোধন করতেন ‘দ্যা ওল্ড ম্যান’ নামে। এর মধ্যে ১৯৩৭ সালে নভেম্বরের ৭ তারিখ ট্রটস্কির জন্মদিন উপলক্ষ্যে ফ্রিদা ‘বিটউইন দ্যা কার্টেইনস’ নামে এক আত্মপ্রতিকৃতি এঁকে প্রেমিককে উপহার দেন। পরষ্পরকে বই উপহার দেবার ছলে পাতার ফাঁকে তাঁদের মধ্যে প্রচুর চিঠি চালাচালি হতো। অতিথিদের সামনে তাঁরা ইংরেজীতে কথাবার্তা বলতেন, যেন কেউ খুব একটা কিছু বুঝতে না পারে। এই প্রেম দীর্ঘস্থায়ী হয় নি। ট্রটস্কি শেষের দিকে ফ্রিদাকে অনুরোধ করেছিলেন তাঁদের লেখা চিঠিগুলো পুড়িয়ে ফেলতে।

১৯৪০ সালে স্ট্যালিনের পাঠানো আততায়ী স্প্যানিশ এজেন্ট র্যােমন মার্কেদার বরফ ভাঙ্গার হাতুড়ী দিয়ে ট্রটস্কি’র মাথায় আঘাত করে হত্যা করেছিলো। এবং রহস্যজনক ব্যাপার হচ্ছে, ট্রটস্কি খুন হবার পর সন্দেহভাজনের তালিকাতে প্রেমিকা ফ্রিদা’র নামও ছিল। এই কারণে ফ্রিদাকে পুলিশ স্টেশনে দুই দিন জেরা করা হয়। পরে অবশ্য প্রেমিককে হত্যার অভিযোগ থেকে ফ্রিদা মুক্তি পান। কিন্তু তাদের ক্ষণস্থায়ী প্রেম কাহিনী ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে যায় নি।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker