ছুটিহোমপেজ স্লাইড ছবি

মায়াময় মালদ্বীপ ভ্রমণের আদ্যোপান্ত

মনিকা আনজুম: সবাই বলে মালদ্বীপ নাকি টাকার খেলা! কথাটা একবারে মিথ্যা না। তবে আপনি যদি ওয়াটার ভিলা না থেকে শুধুমাত্র হুলহুমালে অথবা লোকাল কোন আইল্যান্ড ঘুরে আসেন সেই ক্ষেত্রে খুবই কম খরচে ঘুরে আসা সম্ভব। মালদ্বীপ একটা আর্কিপেলাগো অর্থাৎ অনেকগুলো দ্বীপের সমন্বয়ে একটা দেশ। সুতরাং সেখানে যাওয়া আসার একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে স্পিডবোট অথবা ফেরি। প্রথমেই বলে নিচ্ছি যেখানেই দেখবেন যানবাহনের মাধ্যম কেবল স্পিডবোট বা পানিবাহিত যানবাহন- সেখানেই বুঝে নিবেন অবশ্যই প্রাইভেট স্পিডবোট ভাড়া অনেক বেশি হবে আর যদি আপনি পাবলিক স্পিডবোট এ যেতে পারেন সেক্ষেত্রে ভাড়া আপনাকে তুলনামূলক কম দিতে হবে।

এয়ারপোর্ট থেকে নামার পর দেখবেন অসম্ভব সুন্দর নীল পানিতে দাঁড়িয়ে আছে এয়ারপোর্ট। এখন যদি আপনি কোন রিসোর্ট বুকিং করে থাকেন, সেই রিসোর্টের বোট ছাড়া অন্য কোন পাবলিক বোট রিসোর্টে ঢুকতে দেয়া হয় না। অনেকে এয়ারপোর্টে নামার পরে সরাসরি তাদের রিসোর্টে চলে যান রিসোর্টের প্রাইভেট বোট। এছাড়া এয়ারপোর্টের কাছে আছে দুইটা জায়গা- হুলহুমালে এবং মালে। মালে হচ্ছে মালদ্বীপের রাজধানী,তবে বিচ এর ভালো ভিউ দেখা যাবে হুলহুমালে তে। সরাসরি রিসোর্টে না গিয়ে যেটা করতে পারেন হুলহুমালে তে এক রাত থাকতে পারেন এই ক্ষেত্রে আপনার মালদ্বীপের শহরের পরিবেশ গুলো কি রকম, মানুষ গুলো কি রকম তা দেখা হবে আর বিকালের জন্য হুলহুমালে বিচ তো আছেই, সেখানে বিকাল থেকেই স্ট্রীট ফুড বিক্রি শুরু হয়। যারা আমাদের মত সি ফুড অনেক বেশি পছন্দ করেন তারা এই জায়গার মজা নিতে পারবেন। হুলহুমালে তে বিচের পাশে হোটেল পেয়ে যাবেন অনেক সস্তায়।‌

রিসোর্ট: এবার আসি রিসোর্টের কথায়। জেনে অবাক হয়েছিলাম আমিও যে শুধুমাত্র পাঁচ মিনিটের পথ পাড়ি দেবার জন্য প্রাইভেট রিসোর্ট গুলো তাদের নিজেদের প্রাইভেট বোট ভাড়া নেয় ২৪০ থেকে ৩০০ ডলার পর্যন্ত। ওয়াটার ভিলা রিসোর্টে দিন প্রতি খরচ হতে পারে ৪৫০০ – ৮০০০ টাকা পর্যন্ত।

রিসোর্ট বুকিংয়ের ক্ষেত্রে একটা কৌশল বলে দেই অবশ্যই খেয়াল রাখবেন, এটি যেন হুলহুমালে থেকে খুব কাছে হয় তা না হলে আপনার ট্রান্সফার কস্ট বেড়ে ৪০০ থেকে ৫০০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে। অনেকেই এটা ভুল করেন, অফারে অনেক কম দামে রিসোর্ট বুক করে ফেলেন। তাই খুব ভালোভাবে ম্যাপ দেখে স্টাডি করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে এবং সিলেক্ট করতে হবে। মালদ্বীপের রিসোর্টগুলো খুবই সুন্দর করে বানানো আর এত সুন্দর নীল পানি দেখে যে কারো ইচ্ছা করবে সেখানে চলে যেতে। হ্যাঁ এটা সত্যি আসলেই রিসোর্ট গুলো খুব সুন্দর এবং মালদ্বীপ ঘুরাঘুরির একটা অংশ। এখানে আপনি রাতে বিভিন্ন শো দেখতে পারবেন ,ডিজে নাইট থেকে শুরু করে, বীচ ডেট সব সুবিধা রয়েছে এখানে।

খাবার: রিসোর্ট বুকিং এর সময় খাবারগুলো সাথে ইনক্লুড করে নিবেন তা না হলে কয়েক গুণ টাকা গুনতে হবে। রিসোর্টে সকালের ব্যুফে এবং রাতের ব্যুফে যথেষ্ট, দুপুরে আলাদা করে আমরা কোন খাবার নেই নি। রিসোর্ট এ যাওয়ার আগে সুপার মার্কেট থেকে পানির বোতল এবং কিছু শুকনো খাবার নিয়ে যেতে পারেন।

অনেকে মনে করে মালদ্বীপের সৌন্দর্য একমাত্র রিসোর্ট নির্ভর। কিন্তু কথাটি একেবারেই সত্যি না। বরং আমরা আমাদের মালদ্বীপ ভ্রমণের সব থেকে ভালো সময় উপভোগ করেছি লোকাল আইল্যান্ড গুলোতে। সুন্দর নীল পানি এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ পরিবেশ লোকাল আইল্যান্ড গুলো। প্রতি রাতের জন্য ১০০০০ – ১৫০০০খরচে ভালো হোটেল পাওয়া যায়।

আরেকটা জিনিস বলে রাখি, মালদ্বীপ এর প্রতিটা হোটেলেই এনভায়রনমেন্ট ট্যাক্স দিতে হয় তাদের সরকারকে সেটা রিসোর্ট গুলোতে ছয় ডলার এবং সাধারণ হোটেল গুলোতে তিন ডলারের মত থাকে। বুকিং খরচ থেকে এটি আলাদা।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: মালদ্বীপের পানিতে ময়লা ফেলা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। যেখানেই থাকবেন, আপনার আশেপাশের এলাকা সুন্দর রাখা আপনার দায়িত্ব।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker