বই Talkসাহিত্যহোমপেজ স্লাইড ছবি

এক কিসসা কথকের গল্প

মাহমুদুর রহমান: নতুন নতুন বই, লেখক খোঁজা আমার নেশা। সুযোগ পেলেই অনলাইনে নানা সাইট ঘেঁটে বই দেখি। এরকম দেখতে দেখতে অনেক নতুন লেখক, চমৎকার বইয়ের সন্ধান পেয়েছি। এর মধ্যে ‘মেটিয়াবুরুজে কিসসা’ একটি। মেটিয়াবুরুজ জায়গাটা নিয়ে আগ্রহ ছিল। লেখকের নাম দেখলাম আফসার আমেদ। বইটা কেমন হবে সন্দেহে ছিলাম। তাই আগে তাঁর আরেকটা বই পড়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। সেটির নাম ‘অন্তঃপুর’। প্রথম বই পড়েই মনে হল এই লেখকের বই পড়া প্রয়োজন। এবং পরবর্তীতে ‘মেটিয়াবুরুজে কিসসা’ এতোটা মুগ্ধ করেছে যে লেখকের যা বই পাওয়া যায় তাই পড়ছি।

আফসার আমেদ কলকাতার একজন লেখক। দীর্ঘ সময় লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত মানুষটি ২৮ টির মতো উপন্যাস লিখলেও পাঠকের কাছে তিনি ততোটা পরিচিত নন। কলকাতার মূল ধারার সাহিত্য থেকে আফসার আমেদের লেখা কিছুটা ব্যতিক্রম। আমরা সুনীল, সমরেশ থেকে আজকের দেবারতি পর্যন্ত যে ধরনের গল্প পড়ি, আফসার আমেদ সে ধরনের গল্প নিয়ে লেখেননি। আফসার আমেদের লেখার বিষয় পশ্চিমবঙ্গের মুসলমান সমাজ এবং সে সমাজের মানুষ।

আফসার আমেদের লেখায় ম্যাজিক রিয়ালিজমের ছোঁয়া আছে। তবে তিনি দীর্ঘ বাক্য লেখেন না। তিনি এমন সব দৃশ্যকল্প তৈরি করেন যা আমাদের নিয়ে যায় অন্য দুনিয়ায়। এবং সে আবেশি লেখার মধ্য দিয়ে তিনি প্রকাশ করেন জীবন বাস্তবতা। আফসারের লেখার বিষয় ধর্মান্ধতা, নারী পুরুষের সম্পর্ক, ধর্ম নিয়ে ব্যবসা, প্রেম, কামনা ইত্যাদি। অর্থাৎ জীবনের সব পর্যায়কেই ছুঁয়ে যায় তাঁর লেখা। যেমন ‘এক আশ্চর্য বশীকরণ কিসসা’-র মালু খাঁ আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখায় ধর্মকে উপজীব্য করে ব্যবসার রূপ। আবার ‘মেটিয়াবুরুজে কিসসা’-র শফী ধর্মের জ্ঞান আহরণ করে এতো সন্মানিত যে নিজের ইচ্ছা মতো একাধিক নারীর জীবন নিয়ে সে খেলতে পারে।

পশ্চিমবঙ্গের মূলধারার সাহিত্যে মুসলিম এবং ইসলাম এলেও তার স্বরূপ প্রকাশিত হয় না। আফসারের লেখায় সেই মুসলিম সমাজের চিত্র ফুটে ওঠে। কখনও তাদের জীবন যাপনের ছবি তুলে ধরেন ‘অন্তঃপুর’ উপন্যাসে, কখনও দাম্পত্য, প্রেম ইত্যাদি নিয়ে লেখেন ‘সঙ্গ নিঃসঙ্গ’, ‘দ্বিতীয় বিবি’-র মতো সহজ কিন্তু অসামান্য উপন্যাস। এসবই মুসলিম সমাজের গল্প। তাদের জীবনাচরণ থেকে শুরু করে অন্দরমহলের গল্প বলেছেন আফসার আমেদ। সৃষ্টি করেছেন অসাধারণ সব চরিত্র। বিশেষত তাঁর নারী চরিত্রগুলো বিচিত্র এবং অদ্ভুত। যেমন ‘দ্বিতীয় বিবি’-র কিসমত, ‘হীরে ভিখারিনী’-র রিজি রহস্যময় এবং একই সাথে নারী স্বাধীনতার প্রতীক। কখনও কখনও আফসার আমেদ সময়ের পরিবর্তনের গল্প বলেন চমৎকার করে। ‘অশ্রুমঙ্গল’ সে কথাই বলে।

আফসার আমেদের লেখা অন্যদের চেয়ে আলাদা দুটি কারণে। প্রথমত তাঁর নিজস্ব স্টাইলে আবেশ সৃষ্টি করার ক্ষমতা। দ্বিতীয়ত তাঁর ‘কিসসা’। ইতিহাস, প্রচলিত গল্প ইত্যাদি যা কিসসা নামে পরিচিত, সে গল্প মূল গল্পের সাথে জুড়ে আখ্যান সৃষ্টি করে আফসার আমেদ। ‘অলৌকিক দিনরাত’, ‘হীরে ভিখারিনী’, ‘মেটিয়াবুরুজে কিসসা’, সবখানেই কিসসার ছোঁয়া আছে।

১৯৫৯ সালে হাওড়ায় জন্ম এই লেখকের। অল্প বয়স থেকেই লেখালেখির প্রতি আগ্রহ অনুভব করেন। লিখতে থাকেন। কিন্তু দারিদ্র এবং অন্যান্য নানা কারণে বাধাপ্রাপ্ত হন। তবুও লেখালেখি চালিয়ে যান। ‘বঙ্কিম সাহিত্য পুরস্কার’, ‘সাহিত্য আকাদেমি’ পুরস্কার পেয়েও অনেকটা আড়ালেই রয়ে গেছেন তিনি। গত বছর আগস্টে মারা যান এই কথাকার।

 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker