দৈনিক ভালো খবর

পাঁচ তরুণ গবেষকের বাংলায় কথা বলা রোবট আবিষ্কার

পাঁচজন তরুণ গবেষক দেশের প্রথম পায়ে হাঁটা রোবট ‘লি’ রোবট আবিষ্কার করেছেন। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন এ রোবট বাংলা কথা বলতে পারে। সঙ্গে মানুষের মতো চলাচলও করতে পারে। এমনকি হাত ও পা নাড়ানো এবং অঙ্গভঙ্গিও করতে পারে তরুণদের আবিষ্কৃত এ রোবট।

নকশাকারের দায়িত্বে ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মেহেদী হাসান, ইলেক্ট্রনিপের দায়িত্বে ছিলেন ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিপ ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র সাইফুল ইসলাম, মেকানিক্যালের দায়িত্বে ছিলেন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মোহাম্মদ সামিউল হাসান এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার দায়িত্বে ছিলেন একই বিভাগ ও বর্ষের শিক্ষার্থী জিনিয়া সুলতানা জ্যোতি।

এ রোবট তৈরির নেতৃত্বে ছিলেন ‘ফ্রাইডে ল্যাবের’ টিম লিডার ও শাবির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০০৯-১০ সেশনের শিক্ষার্থী নওশাদ সজীব।

তিনি বলেন, ‘লি’ দেশের প্রথম পায়ে হাঁটা রোবট। এ রোবট তৈরিতে সময় লেগেছে প্রায় তিন বছর। অর্থায়ন করেছে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ডিভিশন

রোবট লি এর অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ওপেন সোর্স উবুন্টু অপারেটিং সিস্টেম ভার্সন ১৮.৪। এতে মিডলওয়্যার হিসেবে রয়েছে জনপ্রিয় রোবট অপারেটিং সিস্টেম রস (জঙঝ) জাভা এবং পাইথন প্রোগ্রামিং ভাষায় রোবটের কন্ট্রোল মোশনসহ যাবতীয় সফটওয়ার তৈরি করা হয়েছে।

রোবটটি তৈরিতে ৮জিবি র‌্যামের কোর আই ফাইভ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এতে ৩টি মোটর কন্ট্রোলার এবং একটি মাইক্রো-কন্ট্রোলার রয়েছে। একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল রয়েছে এতে। রোবটটি মোট ডিগ্রি অফ ফ্রিডম ৩৬ এবং ৩৬টি মোটর রয়েছে এতে। লি এর চেহারাসহ বেশ কিছু যন্ত্রাংশ থ্রিডি প্রিন্টারে তৈরি করেছে শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া টিমের অন্যা সদস্যরা হলেন- স্থাপত্য বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান রুপক, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একই বর্ষের সাইফুল ইসলাম, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মোহাম্মদ সামিউল ইসলাম ও জিনিয়া সুলতানা জ্যোতি।

 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker