শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০১৭
webmail
কাল নামের বৃক্ষ থেকে খসে পড়ল আর একটি পাতা। বছরের শেষ সূর্যাস্তের মধ্য দিয়ে ঘোষিত হলো নতুন দিনের আগমনবার্তা। স্বাগত ২০১৬। পুরোনো সব জ্বরা-জঞ্জাল দুরে ঠেলে নতুন বছর নিয়ে আসে নতুন প্রেরণা আর স্বপ্ন। তাই প্রাণের উচ্ছ্বাসে তাকে স্বাগত জানায় মানুষ। কিন্তু বাংলাদেশে বিদায় নেয়া বছরটি তার হতাশার দীর্ঘশ্বাস ঠেলে দিয়েছে
দু’তিনটি, এমনকি তারও বেশি অঞ্চলে জিতবে বলে আশা করলেও, আঞ্চলিক নির্বাচনের দ্বিতীয় রাউন্ডে একটি অঞ্চলেও জিততে ব্যর্থ হয়েছে ফ্রান্সের নব্য-ফ্যাসিবাদী দল ন্যাশনাল ফ্রন্ট (এফএন)। এক সপ্তাহ আগে প্রথম রাউন্ডের নির্বাচনে ১৩টি অঞ্চলের মধ্যে ৬টিতে এগিয়ে থাকলেও, এবারে একেবারে তিন-নম্বরে। চূড়ান্ত পর্বে আরেকটি নতুন পরাজয়ের মুখে রাষ্ট্রপতি ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদের শাসক দল
১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীকে পরাস্ত করে বিজয় অর্জন করে বাংলাদেশ। যেসব কীর্তিমান মানুষের আত্মত্যাগে এই বিজয় সম্ভব হয়েছিল, বিজয়ের দিনে তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করছি। যেসব বীর মুক্তিযোদ্ধা নয় মাসের রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে এ বিজয়কে অনিবার্য করে তুলেছিলেন, তাদের প্রতি সশ্রদ্ধ অভিবাদন। পৃথিবীর সব স্বাধীন দেশের
ভারত ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের আলোচনা হয়ে গেল। এই উপলক্ষে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ইসলামাবাদে গিয়েছিলেন। যদিও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ইসলামাবাদ যাওয়ার উপলক্ষ ছিল আফগান পরিস্থিতি নিয়ে সম্মেলন। কিন্তু ভারত-পাক বৈঠকের প্রাথমিক কথাবার্তা সম্মেলনের পর পৃথকভাবে অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে দু’দেশের নিরাপত্তা উপদেষ্টারা তৃতীয় একটি দেশে মিলিত হন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকের পটভূমি কিন্তু
সার্বিয়া, ক্রোয়েশিয়ার পর মন্টিনিগ্রো। রাশিয়ার উঠোনে পূর্ব ইউরোপের এই একরত্তি দেশটিকে এবারে সদস্যপদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ন্যাটো। ২০০৯ সালের পর এই প্রথম কোনো দেশকে সদস্যপদ দিচ্ছে ন্যাটো। বুধবার ব্রাসেলসে মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। ন্যাটোর মহাসচিব জ্যাঁ স্টলটেনবার্গ বলেন: ‘মন্টিনিগ্রোকে আমাদের অভিনন্দন! এক সুন্দর ঐক্যের যাত্রা শুরু।’ মুহূর্তে
১৩/১৫-র প্যারিস আক্রমণ। একই সময়, একযোগে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে সন্ত্রাসবাদীরা হামলা চালিয়েছে। গত শুক্রবার রাতে রক্তে ভিজেছে উচ্ছ্ল প্যারিস শহরের মাটি। কোন ঘৃণা থেকে এই নৃশংস আক্রমণ? তবে এই নিরপরাধ এবং নিরীহ মানুষগুলির মৃত্যু কোনো ঘৃণা বা প্রতিবাদের বৈধতা দিতে পারে না। সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইসিস জানিয়ে দিয়েছে প্যারিস আক্রমণ তারাই ঘটিয়েছে।
ভারতের বিহারে পরাজয় বিজেপি-র কতটা তাদের সর্বভারতীয় ভবিষ্যতের উপর প্রভাব ফেলবে- এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলে আর একটা পুরনো প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হবে৷ পুরনো প্রশ্নটা হলো যে, মানুষ লোকসভায় এবং বিধানসভায় আলাদা চিন্তা করে ভোট দেন কি না৷ অর্থাৎ ভারতীয় ক্ষেত্রে একজন সর্বভারতীয় নায়ক থাকতেই পারেন৷ কিন্তু তাকে স্থানীয় সমস্যার
নোবেল শান্তি পুরস্কার বস্তুটির কী এবং কেন-এই প্রশ্ন বহু পুরানো। কিন্তু সব প্রশ্ন ছাপিয়ে নোবেল শান্তি পুরস্কারকে যদি স্বীকার করতেই হয়, তবে মানতে হবে, এবারের প্রাপকের ব্যঞ্জনা অন্যান্য বারের অপেক্ষা আলাদা, অনেক বেশি অর্থময়, গুরুত্বপূর্ণ। তিউনিশিয়া এই মুহূর্তে পৃথিবীর একটি বিরল আশাময় স্থান, যে আশা থেকে শান্তি উৎসারিত হওয়ার সম্ভাবনা বিস্তর।
প্রকৃতি শূন্যস্থান পছন্দ করে না। কূটনীতিও। সিরিয়ায় ভ্লাদিমির পুতিন বোমারু বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে যে প্রবল অভিযান শুরু করেছেন, তাহকে বারাক ওবামা কৃত শূন্যস্থান পূরণের উদ্যোগ হিসেবে দেখবার যুক্তি আছে। সেই যুক্তি বলে, ইসলামিক স্টেট নামক দানবের মোকাবিলায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কর্তব্য ওবামা পালন করেননি, তিনি আইএস-এর বিরুদ্ধে অভিযানে অনেক দেরিতে
আরো খবর
      সর্বশেষ সংবাদ


      শিরোনাম
      Top