বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭
webmail
রোজ সকালে দাঁত মাজার জন্য টুথপেস্ট ব্যবহার করেন। কিন্তু জানেন কি এই রোজকার সামগ্রী আরও কত কাজে লাগতে পারে। জেনে নিন টুথপেস্টের মহিমা।   ১. কার্পেট বা পোশাকে চা বা কফির দাগ পড়ে গিয়েছে। সাবান বা ডিটারজেন্টেও কাজ হচ্ছে না। সেই দাগের উপরে টুথপেস্ট লাগিয়ে জলে ভেজানো স্পঞ্জ দিয়ে ঘষুন।   ২. চোট পেলে
যৌবন ধরে রাখতে আমরা সবাই চাই৷ কিন্তু বয়সের সঙ্গে সঙ্গে চেহারায় আসা পরিবর্তনগুলোকে আটকানো তো মুখের কথা নয়৷ তার জন্য প্রয়োজন নিয়ম মেনে কিছু রুটিন ফলো করা৷ তাহলে ৪০-এ আপনাকে হয়তো কুড়ির মতো লাগবে না, তবে অকালে বুড়িয়ে যাওয়াও আপনাকে গ্রাস করতে পারবে না৷   ১) যৌবন ধরে রাখার মূল মন্ত্রই হল
পুজো মানেই সকাল থেকে রাত প্যান্ডেল প্যান্ডেলে ঘোরা, তেল-মশলাযুক্ত খাবার খাওয়া। এমনকী ঘোরাঘুরির চোটে ঘুমও কম হয় পুজোর কয়েকদিন। পাশাপাশি রোদ-বৃষ্টি থেকে দূষণ সবই সহ্য করতে হচ্ছে আপনার ত্বককে।   এ অবস্থায় পুজোর পাঁচদিনে আপনার মুখে হঠাৎই একটা দুটো ব্রণ দেখা দিতেই পারে। আর ব্রণ মানেই তো সেটা থেকে মুখে হালকা একটা
লন্ডন: জিম জয়েন করতে হবে না। যারা সপ্তাহে ৫ দিন আধঘণ্টা করেও ব্যায়াম করেন, তাঁদের অকালমৃত্যুর আশঙ্কা অনেক কম, কম হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও। একটি নতুন গবেষণা এমনটাই জানাচ্ছে। ১৭টি দেশের ধনী দরিদ্র নির্বিশেষে ১৩০,০০০ জন নাগরিককে নিয়ে হয়েছে এই আন্তর্জাতিক গবেষণা। দেখা যাচ্ছে, জিমেই যান বা হাঁটতে বার হন, সংসারের
ঘুমিয়ে পড়লে সেই সময়টুকুতে আমাদের সঙ্গে কী ঘটে যায় তা বোঝার ক্ষমতা থাকে না কারও। কিন্তু ঘুমের মধ্যেও নাকি ঘটে নানান রহস্যজনক ঘটনা। দেখে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী।   *প্যারালাইজ: অনেক সময় ঘুমের মধ্যে প্যারালাইজড মনে হয় নিজেদের। এই অবস্থায় শরীর উঠে হাঁটা-চলা করতে যায়। কিন্তু পারে না। হ্যালুসিনেশন বা কোনও
লেবু শুধু আপনার স্বাস্থ্যই নয়, আপনার রান্নাঘরের স্বাস্থ্যও বজায় রাখে। জেনে নিন কীভাবে রান্নাঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে পাতিলেবু কাজে লাগাবে।   *মাইক্রোওয়েভ পরিষ্কার করতে লেবুর বিকল্প মেলা ভার। দেড় কাপ জলে তিন চা চামচ পাতিলেবুর রস মেশাতে হবে। ৫-১০ মিনিট তা মাইক্রোওয়েভ করুন। তারপর একটা পরিষ্কার কাপড় নিয়ে মাইক্রোওয়েভের ভিতরের দেওয়াল ভাল করে
সাজবদলে মেতেছে চারদিক। অলিগলি—রাজপথ থেকে দোকানপাট সমস্ত জায়গায় পুজোর রেশ জোরদার। ঢাকে কাঠি পড়তে আর ক’দিন বাকি থাকলেও শেষ মুহূর্তের সাজপোশাক মেকআপ একবারে রেডি। কোনদিন কোনটা, তার সঙ্গে কেমনই বা লুক স্পোর্ট করবেন, তাও ফিক্স। জানা রয়েছে কি এ বছর মেকআপ জগতে কোনটা হিট, কোনটা মিস? তারই ঝলক রইল এবার। চোখ-
সাজবদলে মেতেছে চারদিক। ঢাকে কাঠি পড়তে আর ক’দিন বাকি থাকলেও শেষ মুহূর্তের সাজপোশাক মেকআপ একবারে রেডি। কোনদিন কোনটা, তার সঙ্গে কেমনই বা লুক স্পোর্ট করবেন, তাও ফিক্স। জানা রয়েছে কি এ বছর মেকআপ জগতে কোনটা হিট, কোনটা মিস? তারই ঝলক রইল এবার।   চোখ- চোখের মেকআপে এবার লিকুইড ও জেল আইলাইনার দুইই
মুখে নিত্যনতুন হেয়ার কাট, হেয়ার কালার তো করবেনই। আপনার ফ্যাশন স্টেটমেন্টে আলাদা মাত্রা যোগ করে এই কালার। তাই না?  তবে চুল রং করার আগে, এর ক্ষতিকারক দিকগুলো একটু জেনে নিন। হেয়ার কালার কিন্তু ডেকে আনতে পারে ক্যানসার। ফ্যাশনের জন্যেই হোক বা সাদা চুল ঢাকতে‚ দেখা গেছে মহিলাদের ক্ষেত্রে ১৮ বছরের
নারী সৌন্দর্য্যের রহস্য লুকিয়ে থাকে তার চুলে, ত্বকে। মেক আপে নিজেকে আড়ালে লুকিয়ে রেখে সুন্দরী হওয়ার থেকে সবাই চায় ত্বকের ন্যাচারাল গ্লো। আর মসৃন ত্বকের থেকে নরম ঠোঁট কখনও বাদ যায় না। তাই সুন্দর ঠোঁটে মোহময়ী হয়ে উঠতে রাস্পবেরির যাদুর তুলনা নেই, প্রাকৃতিক উপায়ে নিজের ঠোঁটকে সুন্দর রাখার জন্য নারকেল তেলের
আপনি কি খুব অল্পেই ক্লান্ত বোধ করেন? অল্পেই আলস্য আসে কাজে? ঘন ঘন মেজাজ হারান? দুর্বল লাগে? এ রকম অনেক সমস্যাই কাটিয়ে উঠতে পারেন প্রতি দিন হাঁটার অভ্যাস করে।   *ফিটনেস এক্সপার্টরা জানাচ্ছেন রোজ মাত্র ১৫ মিনিট হাঁটালেই উপকার পাবেন।     *যদি আপনার বয়স তিরিশের আশপাশে হয় তা হলে মাথায় রাখবেন এই বয়স থেকেই
প্রবাদ আছে মুখ দেখে মানুষ দেনা যায়। কিন্তু এই প্রবাদের থেকে আরও একধাপ এগিয়ে বলা যায় শুধু চোখ ও ঠোট দেখেও মানুষ চেনাও যায়। চোখ যে মনেরও কথা বলে। আবার চোখকে ‘মনের জানালা’ বলা হয়। কারণ, চোখের রঙ মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য তুলে ধরে। জানেন কি শুধু চোখ নয় ঠোটও কথা
মেকআপ শুধু যে খুঁত ঢেকে দেয়, এমন কিন্তু নয়। অনেক ক্ষেত্রেই মেকআপের ব্যবহার বদলে দেয় আসল চেহারাটাই। তাই, যেকোনও বয়সের মহিলারাই কমবেশি মেকআপ করতে ভালবাসেন। কিন্তু, মেকআপেরও কিছু নিয়ম আছে। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে তার বদল ঘটে। কোন্ বয়সে কীভাবে নিজেকে সুন্দর করে সাজিয়ে তুলবেন, আজ থাকল তারই টিপস- ২০ বছরের উপরে খুব
চুমু খাওয়ার সময়ে আপনার মাথা কোন দিকে হেলে যায়? ভাবছেন, অ্যাঁ! এটা আবার কী ধরনের প্রশ্ন? গোটা বিষয়টাই তো আবেগের। চুমু খাওয়ার সময়ে কি আমাদের কারোরই মাথায় থাকে, আমাদের মাথা কোন দিকে হেলছে? কিন্তু ঠিক এই বিষয়টির উপরও গবেষণা করছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ব্রিটেনের বাথ অ্যান্ড স্পা-র নিউরোসায়েন্স অ্যান্ড কগনিটিভি
মানুষের জীবনে প্রেম আসার কোন বয়স বা সময় উপর নির্ভর করে না। রামধনু সাতরঙের মত হঠাৎ প্রেমের প্রবেশ ঘটে মনে। প্রেমের প্রথম লক্ষন, ভাল লাগার মানুষটাকে বেশি বেশি করে গুরুত্ব দেওয়ার পাশাপাশি চিন্তাভাবনার মধ্যে নানা পরিবর্তনও আসতে শুরু করে। অনেক সময় নিজের থেকে বেশি প্রেমিক বা প্রেমিকার পছন্দকে গুরুত্ব বা
ওজন বেড়ে যাওয়ার চিন্তুায় নিশ্চিন্তমনে খাওয়া দাওয়া করাটাই মুশকিল। কারণ ওজন বেড়ে গেলে নানা ঝামেলায় পড়তে হয়।   ওজন ঠিক রাখতে অনেকেই তাই খাবার গ্রহণে নানা নিয়ম মেনে চলেন। তবে কিছু খাবার আছে যা ওজন বাড়ায় না। ক্যালরি কম থাকায় এসব খাবার যত ইচ্ছে তত খাওয়া যায়।   *এসব খাবারের তালিকায় শুরুতেই আছে শসা।
ওষুধের বালাই নেই। ইনজেকশন, অপারেশন নেই। সাইড এফেক্টের ভয় নেই।  শুধু স্পর্শেই ভ্যানিশ দুরারোগ্য অসুখ। মাইগ্রেন বা আলসার। ব্লাড প্রেশার বা ডিপ্রেশন। রেইকিতে জব্দ সবই। স্পর্শে রোগ উধাও। সঙ্গীতের মৃদু মূর্ছনা। আঙুলের ছোঁয়ায় আরাম। নিরাময়ী আলো এসে ঘুচিয়ে দিক অন্ধকার, বেদনাপূর্ণ দেহের সেসব স্থান উজ্জ্বল হয়ে উঠুক। নুয়ে পড়া, কুঁজো এক
গল্পে বা আড্ডায় চা না হলে কি চলে?  বাঙালি আর তার চা,  এই দুইয়ের সম্মেলনে এক জমাটি রসায়ন। সেই রসায়নের ইতিহাস রীতিমতো রসালো। কেউ চা ছাড়া সকালটা ভাবতেই পারেন না।   কারোর আবার কাপের পর কাপ চা খেয়েও আশ মেটেনা। তবে সত্যিই কি চা খেলে আমাদের ক্ষতি হয়?   *ঘুমের ব্যাঘাত চা খেলে ঘুমের ব্যাঘাত
অনেকের শরীরেই কিন্তু এই জন্মদাগ দেখা যায়৷ অনেকেই চলতি কথায় একে জরুল বলে থাকেন৷ বংশ পরম্পরাতেও আবার এই দাগ দেখা যায়৷ কিন্তু কেন হয় এই ধরনের হালকা বাদামি বা কালো দাগ সেই বিষয়ে মানুষ বেশি মাথা না ঘামালেও, এই জন্মদাগের পিছনের রহস্য নিয়েই কিন্তু আগ্রহ সকলের৷ ১৯৬০ সালে চিকিৎসক ইয়ান
আপনার কি বাসন মেজে, কাপড় কেচে হাত রুক্ষ হয়ে গেছে? আর কি হাতের সেই জৌলুস নেই? হবে নাই বা কেন, যা দিনকাল পড়েছে, বাড়িতে কাজের মাসি রাখাও এখন বিরাট খরচের ব্যাপার। তাই বাঙালি মধ্যবিত্ত পরিবারের অধিকাংশ মহিলাকেই সব কাজ নিজে হাতে করতে হয়। সেই জুতো সেলাই থেকে চণ্ডীপাঠ! ফলত, নরম-কোমল-মখমলে
আরো খবর
সর্বশেষ সংবাদ


শিরোনাম
Top