লাইফস্টাইল

কোন জুতা পরে কোথায় যাবেন, ভাগ্য বদলাবে তার সঙ্গেই

অনেক সময়ই জীবনে অনেক দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটে থাকে, অনেক ক্ষতি হয়। সবসময় হয়ত বোঝা যায় না তবে এর পিছনে একটা বড় কারণ হয়ে থাকে জুতো৷ বাস্তু শাস্ত্রে বলা হয়, যেহেতু মানুষ জুতো পরে রাস্তায় হাঁটে আর সেই রাস্তাই গন্তব্যে পৌঁছয় তাই আপনার জন্য কি অপেক্ষা করছে তা নির্ভর করে জুতোর উপর।

জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী মানুষের জীবনের সব বিষয়ের সঙ্গেই কোনও না কোনও গ্রহের সংযোগ রয়েছে। এমনকি জুতোর ওপরেও আপনার ভাগ্য নির্ভর করতে পারে৷ কারণ এর সঙ্গে থাকে শনির যোগ৷ তাই যারা শনির প্রভাবে ভুগছেন তাঁদের অতি অবশ্যই জুতো দান করুন।

জুতো ঠিক করে আপনার জন্য সৌভাগ্য অপেক্ষা করছে নাকি কোনও খারাপ কিছু। তাই কখন, কোথায়, কোন জুতো পরা উচিৎ তা শাস্ত্রে উল্লেখ করা আছে।

জেনে নিন সেইসব নিয়ম:
১. কখনই চুরি করা বা কারও উপহার দেওয়া জুতো পরা উচিৎ নয়। সেই জুতো কখনই আপনাকে এগিয়ে নিয়ে যাবে না। সবসময় পিছন দিকে টানবে। তাই নিজের জুতো নিজেই কেনা উচিৎ।

২. যদি ইন্টারভিউ দিতে যান, তাহলে কখনই ছেঁড়া জুতো পরা উচিৎ নয়। এতে দুর্ভাগ্য আসে। সৌভাগ্য পাল্টে যায় দুর্ভাগ্যে। যদি ভাল জুতো না থাকে তাহলে অন্য কারও জুতো ধার করে পরে যান।

৩. কর্মক্ষেত্রে কখনই ব্রাউন জুতো পরবেন না। এতে যদি কর্মক্ষেত্রে আপনার পরিস্থিতি ভাল না হয়, সেই পরিস্থিতি আরও বিগড়ে যেতে পারে। তাই ব্রাউন রঙের জুতো একেবারেই পরা উচিৎ নয়।

৪. কেউ যদি শিক্ষকতা করেন বা ব্যাংকে কাজ করেন, তাহলে কফি কালারের জুতো পরবেন না। এতে আপনার রোজগারের পথে বাধা আসতে পারে।

৫. যদি চিকিৎসক বা চিকিৎসা বিষয়ক কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকেন, তাহলে সাদা জুতো কখনই পরবেন না। এতে সম্পদে টান পড়তে পারে। আয়ুর্বেদের সঙ্গে যুক্ত থাকলে নীল জুতো পরা উচিৎ নয়।

৬. খাওয়ার সময় জুতো খুলে রাখা উচিৎ। কোথাও গেলেও তা পাশে খুলে রেখে খাওয়া উচিৎ, নাহলে নেগেটিভিটি আসতে পারে।

৭. জুতোর র্যা ক কখনও উত্তর-পূর্বে মুখ করে রাখবেন না। ঘরের কোথাও জুতোর ফিতে ঝুলিয়ে রাখবেন না৷ একটির ওপর আরেকটি জুতো কখনও রাখবেন না। এতে ঘরের অমঙ্গল হতে পারে।

নতুন বার্তা/কেকে

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker