বিনোদন

কুৎসিত’ রিমেক, আইনি পথে ‘তেজাব’

মুম্বাই: সদ্য মুক্তি পেয়েছে ‘বাঘি-২’-এর আইটেম সং ‘এক দো তিন’। যেখানে মোহিনী মাধুরী হওয়ার চেষ্টা করেছেন জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ। যে গানে নতুন মোহিনীকে দেখে রেগে লাল ‘তেজাব’ পরিচালক এন চন্দ্র। তাঁর মতে এত জঘন্য রিমেক আর হতে পারে না। আর তাই আইনি পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন তিনি।

বলিঅন্দরের খবর, গানটি প্রথমে দেখতে পান কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। সব দেখেশুনে একেবারে তাজ্জব হয়ে যান তিনি। মাধুরীর সেই আইকনিক নাচের যে এমন কুৎসিত রিমেক হতে পারে তা তাঁর কল্পনার বাইরে। অথচ এই নাচের জন্য সরোজ খানের কাছে প্রায় মাসখানেক পড়েছিলেন মাধুরী। এতটাই তাঁর ডেডিকেশন।

তাই দুঃখিত হয়ে তিনি পুরো বিষয়টি জানান এন চন্দ্রকে। তারপরই রেগে আগুন ‘তেজাব’ পরিচালক। সূত্রের খবর, আইনের সাহায্য নেবেন তিনি। এমনকি তিনি এতটাই হতাশ যে, এই গান দেখে তাঁর মন্তব্য, এ যেন সেন্ট্রাল পার্ককে বোটানিক্যাল গার্ডেন করে তোলা হয়েছে।

‘বাঘি-২’ ছবিতে নতুন করে তৈরি করা হয়েছে আইকনিক ‘এক দো তিন’ গানটিকে। যে গানে জ্যাকলিনের চেষ্টার কোনও ত্রুটি ছিল না। কিন্তু এ গানে যে লাবণ্য ও দক্ষতার মাত্রা মাধুরী রেখে গিয়েছেন, তা টপকে যাওয়া সম্ভব নয়। মাধুরীর মতো নাচে দক্ষ অভিনেত্রীর পারফরম্যান্সের সামনে জ্যাকলিনের কষ্টকর চেষ্টা হাস্যকর হয়ে উঠেছে।

সকলে একবাক্যে বলেছেন, চেষ্টা নয়, বরং একে অপচেষ্টা বলাই ভাল। কোথায় সেই মাধুরীর লাস্য, সৌন্দর্য! কোথায় সেই লাবণ্য! আর কোথায়ই বা নাচের সেই মিষ্টি ব্যাপার, যাতে মোহাবিষ্ট হয়েছিল তামাম দর্শক।

নতুন বার্তা/কেকে

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker