বিনোদন

Lust Stories ও অমনিবাস সিনেমার সাতকাহন

মাসুম শাহরিয়ার: ভারতীয় সিনেমার একশো বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ২০১৩ সালে মুক্তি পায় “Bombay Talkies”। ভারতীয় সিনেমা কিভাবে মানুষের জীবন দর্শনকে প্রভাবিত করেছে- করন জোহর, আনুরাগ ক্যাশ্যাপ, জয়া আখতার ও দিবাকার ব্যানার্জী চারটি ভিন্ন ভিন্ন গল্পে তাই ফুটিয়ে তুলেছেন। এই চারটি গল্প একসাথে “Bombay Talkies” নামে মুক্তি পায়। এই ধরনের সিনেমাকে অমনিবাস সিনেমা বলা হয়। অমনিবাস সিনেমার গল্পগুলো একটা নির্দিষ্ট বিষয়বস্তু দিয়ে আটকে থাকে। আর এই বিষয়বস্তুকে কেন্দ্র করেই বিভিন্ন পরিচালক তাদের নিজ নিজ গল্প নির্মাণ করেন এবং সবগুলো গল্প একটা সম্মিলিত নামে একক সিনেমা রূপে মুক্তি দেন।
“7 Days in Havana” কিংবা “New York, I Love You”- তে Havana বা New York; মূলত স্থান বিষয়বস্তু হিসেবে কাজ করে। আবার, Night on Earth-এ যেমন রাত বা সময় ছিল প্রধান বিষয়বস্তু, তেমনি “Four Rooms”-এ একজন ব্যক্তি ছিল সবগুলো গল্পের প্রধান বিবেচ্য বিষয়। ব্যক্তি, স্থান, কাল ছাড়াও রাজনৈতিক ইস্যু, দার্শনিক তত্ত্ব বা মতবাদও অমনিবাস সিমেনার বিষয়বস্তু হতে পারে। যেমন “Visions Of Europe”- এ ইউরোপের বিভিন্ন পরিচালকগণ তাদের নিজ নিজ গল্পের মাধ্যমে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিভিন্ন সমস্যাকে সমালোচনা করছেন।

“Bombay Talkies”-এর পরিচালকবৃন্দ দ্বারা নির্মিত নতুন অমনিবাস সিনেমা “Lust Stories”, যার প্রধান বিষয়বস্তু হলো কামবাসনা। এই চারজন পরিচালক তাদের নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে চারটি ভিন্ন ভিন্ন গল্পের মাধ্যমে হাল আমলের সম্পর্কগুলোর মাঝে কামবাসনা কিভাবে কাজ করে, তা ব্যাখ্যা করছেন।আনুরাগ ক্যাশ্যাপ পরিচালিত প্রথম গল্পে কালিন্দিনী (রাধিকা আপ্তে) নামক এক বিবাহিত ইউনিভার্সিটির শিক্ষিকা তার ছাত্রের সাথে এক জটিল সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। লিবেরাল স্বামীর জীবন দর্শনকে আদর্শ মেনে কালিন্দিনী নিজের জীবনকে করে তুলে আরও বেশি নিরীক্ষামূলক।জয়া আখতার পরিচালিত দ্বিতীয় গল্পটি বিবাহযোগ্য এক গৃহকর্মীর (ভূমি পেদনেকার) সাথে মালিকের ছেলের অবৈধ দেহ সম্পর্ক দিয়ে শুরু হয়। পরবর্তীতে ছেলের অন্যত্র বিয়ের সম্পর্কের বার্তার ফরমায়েশ দিয়ে তা ভণ্ডুল হয়ে যায়। এই যে শুধু শ্রম আর শোষনের সম্পর্ক ক্ষণিকের জন্য তা ভুলে যায় গৃহকর্মী। তার আশার বেলুন ফুঁটো করে দেয় অর্থনৈতিক বিভেদ। বাস্তবতা সামনে এসে দাঁড়ালে ঘোর ভাঙ্ঘে তার।
তৃতীয় গল্পটি পরিচালনা করেছেন দিবাকার ব্যানার্জী। সালমানের (সঞ্জয় কাপুর) বউ রীনার (মনীষা কৈরালা) সাথে দৈহিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে ছোটবেলার বন্ধু সুধীর (জয়দীপ আহলাত)। তিন বছর ধরে চলা এই সম্পর্কের কথা জেনেও ব্যবসায়ি স্বার্থের কথা চিন্তা করে চুপ করে থাকে সালমান। সুধীর-সালমানের এই নকল বন্ধুত্ব কিংবা স্রেফ ব্যবসায়িক স্বার্থপরতার মাঝে বলি হতে থাকা রীনা ঠিকই বুঝে নেয় নিজের জীবনরস; তথা লালসা।
নব দম্পতির দৈহিক মিলনের অসন্তুষ্টিকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে করণ জোহার পরিচালিত “Lust Stories”- এর শেষ গল্প। স্কুল শিক্ষিকা(কিয়ারা আদভানি) স্ত্রীর সন্তুষ্টির প্রতি বেখেয়ালি কর্পোরেট স্বার্থপর স্বামী(ভিকি কৌশাল)। হন্য হয়ে যাওয়া স্ত্রী খুঁজতে থাকে সন্তুষ্টির নতুন উপায়। শেষ পর্যন্ত সহকর্মী শিক্ষিকার(নেহা ধুপিয়া) কাছ থেকে পাওয়া পাথেয় দিয়ে ভিন্ন উপায়ে পূর্ণ করে তার চাহিদা।
যেহেতু প্রতিটা গল্পের প্রধান চরিত্র নারী, তাই নারীও এই গল্পের প্রধান বিষয়বস্তু হিসেবে গণ্য হতে পারে। তাছাড়া, গল্পের শুরুতে যে চরিত্রটিকে পরিস্থিতির চরম শিকার বলে মনে হয়; শেষে সেই চরিত্রটিই গল্পের সকল মজা একা লুটে নেয়। গল্প বলার ভঙ্গির দরুন প্রতিটি গল্পের এই ভাবগত মিলও অমনিবাস সিনেমার বৈশিষ্ট্য হিসেবে বিবেচ্য হতে পারে।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker