বিনোদনহোমপেজ স্লাইড ছবি

সিনেমা থেকে বাস্তবে

মাহমুদুর রহমান:  চিতোরের রানা রাওয়াল রতন সিং মৃত। যুদ্ধে পরাজিত রাজপুত। এ খবর জানামাত্র নিজেদের আগুনে পুড়িয়ে আত্মাহুতির ব্যবস্থা করে ফেলেছে অন্তঃপুরের নারীরা। আলাউদ্দিন খিলজি যখন দুর্গের দরোজায় পৌঁছলেন, তখনই বন্ধ হয়ে গেলো তা। পদ্মাবতীকে পাওয়া হলো না তাঁর।
এই ছিল সঞ্জয় লীলা বনসালির শেষ সিনেমা ‘পদ্মাবত’ এর শেষ দৃশ্য, যার নায়ক (কিংবা খলনায়ক) রণভীর সিং আর নায়িকা দীপিকা পাডুকোন।

বাজিরাও মাস্তানি সিনেমায়
রণভীর এবং দীপিকা

শুধু এই সিনেমাই নয়, বানসালির শেষ তিন সিনেমাতেই রণভীর -দীপিকা জুটিকে নিয়ে কাজ করেছেন তিনি। শেক্সপিয়ারের ‘রোমিও-জুলিয়েট’ থেকে তৈরি ‘গোলিও কি রাসলীলাঃ রামলীলা’ থেকে এ যাত্রা শুরু। তারপর ‘বাজিরাও-মাস্তানি’ এবং শেষমেশ ‘পদ্মাবত’। দারুন অভিনয় করেছেন দীপিকা এবংরণভীর , সেই সঙ্গে চুটিয়ে করেছেন প্রেম।
বলিউডে তারকা-দম্পতি কম নেই। কিন্তু সব দম্পতি নিয়ে আলোচনা হয় না। সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয়েছিলেন সম্ভবত অভিষেক-ঐশ্বরিয়া। তা অনেকদিন আগের কথা। কিছুদিন আগে সোনম কাপুরের বিয়ে নিয়ে ইন্সটাগ্রামে প্রচুর ছবি আপলোড হলেও আলোচনা তত ছিল না।

পদ্মাবত সিনেমায় দীপিকা এবং রণভীর

রণভীর  দীপিকা দম্পতি নিয়ে আলোচনা হওয়ার ও প্রয়োজন আছে। তা হলো তাদের দুজনের ক্যারিয়ারের গল্প।
বলিউডে দীপিকার তেমন কোন ব্যাকগ্রাউন্ড ছিল না। বাবা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় আর মেয়ে প্রথমে ক্যালেন্ডার গার্ল। তারপর একটা মিউজিক ভিডিও করলেন হিমেশের গানে। যে সময়ের কথা বলছি, তখন হিমেশ বেশ ফর্মে। যা করছেন, লোকে তাই দেখছে। এরপর দীপিকা হাজির হলেন ফারাহ খানের ‘ওম শান্তি ওম’ সিনেমায়। শাহরুখ খানের বিপরীতে দীপিকার শুরুটা খারাপ হলো, না ভালো? 
নবাগত আনুশকা নয়, কেননা তিনিও শাহরুখের সাথে সিনেমা করে ফেলেছেন। বরং নবাগত রণভীর । সিনেমা ‘ব্যান্ড বাজা বারাত’। খুব সরল সোজা একটা প্রেম কাহিনী, এবং রণভীরের চরিত্র যাকে বলে ছ্যাঁচড়া। পরের সিনেমায় প্লেবয়।
ফারাহ খান বলেছিলেন, দীপিকাকে দিয়ে সংলাপ বলানো কঠিন কাজ ছিল। অর্থাৎ অভিনয়ে দীপিকা সাবলীল ছিলেন না। দর্শক সমালোচকের মন পেতে অনেক সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে। অবশেষে ‘ককটেল’ করার পর দীপিকাকে পাতে তুললো সবাই।

রামলীলা সিনেমায় দীপিকা এবং রণভীর

আর রণভীর  ? শহীদ কাপুর, রণভীর  কাপুর সবাইকে পিছনে ফেলে এগোতে থাকলেন। রণভীরের সাফল্যের মূলে আছে তাঁর প্রচুর প্রাণশক্তি। সেই উচ্ছলতা দিয়ে মাতিয়েছেন সবাইকে। ওদিকে অভিনয়েও কম যান না। আস্তে আস্তে শিখে নিয়েছেন দারুণ। বাজিরাও চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় তাঁর সেই সামর্থ্যই প্রমাণ করে।
বানসালির পরপর তিন সিনেমায় অভিনয় করলেন দীপিকা-রণভীর । নিজেরা যেমন অভিনয়ে দৃঢ় হচ্ছিলেন, তেমনি তাদের প্রেমও গভীর হয়েছিল। অতঃপর, সেই প্রেম থেকে পরিণয়।
যতই মিডিয়াতে রণভীর  কাপুরের সাথে দীপিকার প্রেম টেনে আনা হোক, মনে রাখতে হবে, বর্তমান বলিউডে অভিনয়, গ্ল্যামার, স্টেজ পারফর্মেন্স সব জায়গাতেই যে দুটো নাম আগে আসে তা রণভীর আর দীপিকা।
খিলজির কাহিনী দিয়ে লেখা শুরু করেছিলাম। ‘রামলীলা’ সিনেমার শেষে মারা গিয়েছিলেন দু’জন। ‘বাজিরাও মাস্তানি’তে পেয়েও পুরো পাওয়া হলো না। ‘পদ্মাবত’ যদিও খিলজির পরাজয়ের গল্প, কিন্তু বাস্তব জীবনে রণভীরজি ঠিকই জয় করলেন দীপিকাবতীকে।
এই নবদম্পতির সংসার সুখের হোক।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker