বিনোদনহোমপেজ স্লাইড ছবি

গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড বৃত্তান্ত

মঞ্জুর দেওয়ান: গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড। সংগীত জগতের এক মহামূল্যবান পুরস্কারের নাম। গ্রামোফোন অ্যাওয়ার্ড থেকে বদলে যাওয়া গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড পাওয়া মানে সংগীত জগতের শেষ্ঠত্বের মুকুট পাওয়া। শুধু কি পুরস্কার পাওয়া? এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পাওয়াকেও অনেকে সৌভাগ্যের মনে করেন। মনে করার পেছনেও যথেষ্ট কারণ রয়েছে। সংগীতের সাথে জড়িত বিশ্বের সব মহারথীদের আনাগোনায় মুখরিত হয় গ্র্যামির গালিচা। প্রিয় মানুষদের সাথে মিলিত হওয়া সৌভাগ্যের ব্যাপার বৈকি! এই যেমন এবারের গ্র্যামিতে বাংলাদেশ থেকে যোগ দিয়েছিলেন তাহসান ও হাবিব। এ আর রহমানের সাথে ছবি তুলে নিজেদের উচ্ছ্বাসের কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশের দুই সংগীত তারকা। পদচারণা দেখেছেন নিজেদের পছন্দের বিশ্ব নন্দিত সব তারকাদের।

সংগীত শিল্পে অসাধারণ কৃতিত্বের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের লস এ্যাঞ্জেলসে ন্যাশনাল আক্যাডেমি অফ রেকর্ডিং আর্টস এন্ড সাইন্সেস প্রতিবছর গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকে। যার শুরুটা হয়েছিল ১৯৫৮ সাল থেকে।
সংগীত জগতের সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কারের এবার বসেছিল ৬১ তম আসর। গ্র্যামির এবারের আয়োজন ছিলো বৈচিত্র্যময়। বৈচিত্রময় বলার পেছনে একটি কারণ আছে। ‘দ্য রেকর্ডিং একাডেমি’র আয়োজনে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের লস এ্যাঞ্জেলস শহরের স্টেপলস সেন্টারে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে ছিলো নারীদের একক আধিপত্য। অন্যদিকে গ্র্যামি এওয়ার্ডে ‘সেরা গান’ ও ‘সেরা মিউজিক ভিডিও’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়ে রেকর্ড গড়েছে বর্ণবাদ বিরোধী গান ‘দিস ইজ আমেরিকা’। বর্ণবাদ বিরোধী আয়োজনের জন্য আলাদা সুনাম কুড়িয়েছে এবারের গ্র্যামি।

অ্যালিসিয়া কেসের উপস্থাপনায় মঞ্চ মাতিয়েছেন লেডি গাগা, কার্ডি বি, জেনিফার লোপেজ, ডায়ানা রোজ, ডলি পার্টন,কেটি পেরির মতো তারকারা। সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা চমক দিয়েছিলেন বেশ। চমক জাগানিয়া উপস্থিতিতে নারী ক্ষমতায়নের বার্তা দেন।

‘দিস ইজ আমেরিকা’ ভিডিওতে পারফর্ম করে এ বছরের গ্র্যাামিতে ‘রেকর্ড অব দ্য ইয়ার’ এবং ‘সং অব দ্য ইয়ার’ খেতাব জেতেন অভিনেতা ডোনাল্ড গ্লোভার। চিল্ডিশ গ্যামবিনোর এই গানে যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদ, কুসংস্কার এবং বন্দুক সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানানো হয়। এছাড়াও গ্লোভার ‘সেরা মিউজিক ভিডিও’ এবং ‘সেরা র‌্যাপ পারফরমেন্স’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন।

গ্র্যামির ৬১ তম আসরের আলো কেড়ে নিয়েছেন তরুণরা। তারুণ্যের জয়গানে মুখরিত হয়েছে গ্র্যামির মঞ্চ। এই যেমন ব্রিটিশ পপ তারকা দুয়া লিপা জিতে নিয়েছেন ‘সেরা উদীয়মান তারকা’র পুরস্কার। জনপ্রিয় র‍্যাপার কার্ডি বি ‘ইনভেনন অব প্রাইভেসি’র প্রথম নারী এককে সেরা র‍্যাপ অ্যালবাম পুরস্কার জিতেছেন। ‘গড প্ল্যান’ এর জন্য ‘সেরা র‌্যাপ গান’ এওয়ার্ড জেতেন কানাডিয়ান র‌্যাপার দৃক। ‘গোল্ডেন আওয়ার’ এর জন্য ‘বছরের সেরা এওয়ার্ড’ ক্যাটাগরিতে গ্র্যামি জেতেন কেসি মুসগ্রেভ। ‘সুইটনার’ এর জন্য নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যামি জিতে নেন আরিয়ানা গ্রান্ডে।

তবে গ্র্যামির মঞ্চে অক্ষত হয়ে আছে স্যার জর্জ সল্টির নাম। ৩১ টি গ্র্যামি এওয়ার্ড নিয়ে সবচেয়ে বেশি পুরস্কৃত হয়েছেন এই হাঙ্গেরিয়ান। এলিসন ক্রস সবচেয়ে বেশি পুরস্কৃত নারী শিল্পী। যিনি ২৭ টা গ্র্যামি এওয়ার্ড পেয়েছেন। দলীয় হিসেবে রেকর্ড গড়া দলের নাম ইউ২। আইরিশ রক ব্যান্ডের ঝুলিতে গেছে ২২ টি গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড!

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker