বিনোদনহোমপেজ স্লাইড ছবি

যে পাঁচটি সিনেমা আপনি চেরনোবিল দেখার পর দেখতে চাইবেন

সাকিব রহমান সিদ্দিকী শুভ: এইচবিওর ঐতিহাসিক মিনি সিরিজ চেরনোবিল যেমন দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে তেমনি মন জয় করে নিয়েছে সমালোচক দের। পাঁচ পর্বের এই ধারাবাহিক নাটক তৈরি হয়েছে সোভিয়েত ইউক্রেনে ঘটে যাওয়া মর্মান্তিক নিউক্লিয়ার ডিজেস্টার নিয়ে। এই সিরিজটি দেখার পর যদি কারো বাস্তব দূর্ঘটনা নিয়ে বানানো সিনেমা দেখার আগ্রহ জন্মায়, তবে নিচের সিনেমাগুলো আপনার জন্য। এই প্রজেক্টগুলো প্রায় একই ধরনের বাস্তব দূর্ঘটনা নিয়ে তৈরি।

১। দ্য ৩৩ – THE 33

২০১০ সালে চিলির খনিতে আটকে পড়া ৩৩ জন খনি শ্রমিকের দুই মাসের বেশী সময় ধরে আটকে থাকার কাহিনী অবলম্বনে তৈরি হয় এই সিনেমাটি। এটির বাস্তবের সাথে মিল রেখে তৈরি করা কাহিনী বেশ প্রশংসিত।
সিনেমাটির ট্রেলারঃ https://www.youtube.com/watch?v=hOoIBOYqHyw

২। ডিপওয়াটার হরাইজন – DEEPWATER HORIZON

২০১৬ সালে নির্মিত এই সিনেমাটি যুক্তরাষ্ট্রে ঘটে যাওয়া সবচেয়ে ভয়াবহ তেল দুর্ঘটনা নিয়ে তৈরি। ২০১০ সালে লুইজিয়ানা উপদ্বীপের কাছে, মেক্সিকান উপসাগরে ঘটে যাওয়া বিষ্ফোরন, ১১ জন শ্রমিকের মৃত্যু এবং ভয়াবহ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ঘটনাগুলো ফুটে উঠেছে পিটার বার্গ পরিচালিত এই সিনেমাটি। ভিজুয়াল ইফেক্ট এবং সাউন্ড ইডিটিং এ একজোড়া একাডেমি এওয়ার্ডের নমিনেশন প্রাপ্ত এই সিনেমা তে অভিনয় করেছেন, মার্ক ওহলবার্গ, কার্ট রাসেল, জন মালকোভিচ সহ অনেকে। জিনা রদ্রিগেজের অনবদ্য অভিনয় আপনার দৃষ্টি কেড়ে নিবে।
সিনেমাটির ট্রেলারঃ https://www.youtube.com/watch?v=8yASbM8M2vg

৩। এরিন ব্রকোভিচ – ERIN BROCKOVICH

এই সিনেমাতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করে জুলিয়া রবার্ট তার ক্যারিয়ারের প্রথম একাডেমি এওয়ার্ড জিতে নেন। এ সিনেমাটি একজন লিগাল ক্লার্কের জীবন নিয়ে তৈরি, যিনি ১৯৩৩ সালে একটি বিশাল তেল কোম্পানীর বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেন এই অভিযোগে যে, কোম্পানীটি একটি ছোট্ট শহরের পানিকে দুষিত করে ফেলেছে। বাস্তবে এই এরিন ব্রকোভিচ একজন সিংগেল মাদার, যার আইন নিয়ে কোনো জ্ঞানই ছিল না। পরবর্তিতে মামলার ফলসরূপ ১৯৯৬ সালে কোম্পানীটিকে ইউএসের সর্বাধিক ক্ষতিপুরন দিতে হয়। সিনেমাটি দর্শক সমালোচক নন্দিত এবং বক্স অফিস হিট। পরিচালক স্টিভেন সোদারবার্গ এই সিনেমার জন্য একাডেমি এওয়ার্ড জিতেন শ্রেষ্ঠ পরিচালক ক্যটাগরিতে, সিনেমাটি শ্রেষ্ঠ চলচিত্র ক্যাটাগরীতেও মনোনয়ন পায়।
সিনেমাটির ট্রেলারঃ https://www.youtube.com/watch?v=jjqUUxIy_yk

৪। দ্য ইম্পসিবল – THE IMPOSIBLE

২০০৪ সালের প্রলয়ংকারী সুনামিতে আটকে পড়া একটি পরিবারের বেঁচে ফেরার কাহিনী অবলম্বনে এই সিনেমাটি নির্মাণ করেন জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডমের পরিচালক জে এ বায়োনা। থাইল্যান্ডে তিন পুত্র এবং স্বামী নিয়ে ছুটি কাটাতে আসা এক মায়ের চরিত্রে অনবদ্য অভিনয়, নাওমী ওয়াটস কে একাডেমী এওয়ার্ড এনে দেয়। প্রলয়ংকারী সুনামী, যাতে ভারত মহাসাগরের আশেপাশের ১৪টি দেশের প্রায় ২২৭০০০ জন মানুষ মারা গিয়েছিল, সেই দূর্যোগ থেকে একটি পরিবারের বেঁচে ফেরার প্রচেষ্টাকে ফুটিয়ে তুলতে নাওমী ওয়াটসের সাথে অভিনয় করেছেন অধুনা স্পাইডারম্যান টম হল্যান্ড এবং স্বামীর চরিত্রে ইভান ম্যাগ্রেগর।
সিনেমাটির ট্রেলারঃ https://www.youtube.com/watch?v=Bgw394ZKsis

৫। সিল্কউড

নিউক্লিয়ার হুইসেলব্লোয়ার কারেন সিল্কউড এবং তার প্রেমিকের ওকলাহোমা প্লুটোনিয়াম প্ল্যান্টে করা বিপজ্জনক কাজগুলো নিয়ে নির্মিত এই সিনেমাটি, ফ্যাকচুয়াল এক্যুরেসীর জন্য বেশ প্রশংসিত। কারেনের গল্প, তার আশেপাশের মানুষজন এবং বিশেষ করে ১৯৭৪ সালে তার মৃত্যু এই সিনেমাটিতে নিখুঁত ভাবে ফুটে উঠেছে। মেরিল স্ট্রিপ কারেনের চরিত্রে অভিনয় করে জিতে নেন একাডেমী এওয়ার্ড। তার প্রেমিকের চরিত্রে অভিনয় করেন কার্ট রাসেল। এছাড়াও অভিনয় করেন ক্রেইগ টি নেলসন, ডেভিড স্ট্র্যাটাইরন এবং ফ্রেড ওয়ার্ড। স্ট্রিপ ছাড়াও সাপোর্টিং রোলে অভিনয় করে চের এবং ডিরেক্টর মাইক নিকোলস একাডেমি এওয়ার্ড জিতে নেন।
সিনেমাটির ট্রেলারঃ https://www.youtube.com/watch?v=iNyrSR5JGh8

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker