বিনোদনহোমপেজ স্লাইড ছবি

ইংকটোবার : অন্যরকম এক শিল্প মুভমেন্ট

মাহমুদুর রহমান: বর্তমানে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন সামাজিক, ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক এমনকি ইন্টারনেট ভিত্তিক আন্দোলন হয়। তরুনদের এই দুনিয়ায় তারা নতুন অনেক কিছু নিয়ে আসে। তাদের এসব আন্দোলনের কিছু হয় মাসভিত্তিক। যেমন ‘নো শেভ নভেম্বর’। তেমনই নভেম্বর আসার আগে অক্টোবর। এই মাসে যে মুভমেন্ট হয়, তার নাম ইংকটোবার।

‘ইংকটোবার’ মূলত একটি অনলাইন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক অঙ্কনের চ্যালেঞ্জ। প্রতিযোগিতা বলা যায় না। ২০০৯ সালে ব্রিটিশ কমিক বুক আর্টিস্ট জেক পার্কারের হাত ধরে এর সূচনা। এরপর থেকে আঁকিয়েরা বছরের অক্টোবর মাসজুড়ে কালি, তুলির মাধ্যমে প্রতিদিন একটি করে সাদাকালো ছবি আঁকার চ্যালেঞ্জ শুরু করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর কারণে দ্রুত জনপ্রিয়তা পায় ইংকটোবার।

ইংকটোবারের কিছু নিয়ম নীতি আছে। প্রথমত এর মূল বিষয়টি হল তরুণ আঁকিয়েদের কাজে ব্যস্ত রাখা। অনেকেই আঁকি আঁকি করে আকে না। এঁদের জন্য প্রতিদিন একটা অন্তত ছবি আঁকা আসলেই একটা চ্যালেঞ্জ। এবং এই মুভমেন্টের প্রতিষ্ঠাতার ধারনা, এরকম চ্যালেঞ্জের মধ্যে থাকলে আঁকিয়েদের অঙ্কন এবং দ্রুততার সাথে উন্নতি হবে।

ইংকটোবারে যে ছবিগুলো আঁকা হবে তা কালি দিয়ে আকতে হবে, অর্থাৎ কলম কিংবা তুলি ব্যবহার করে। তবে আকিয়ে চাইলে পেন্সিল দিয়ে আউটলাইন তৈরি করতে পারে। ইংকটোবারে অংশ নেওয়ার জন্য অনলাইনে ছবি আপলোড করতে হবে যেখানে হ্যাশট্যাগে ইংকটোবার এবং বছর উল্লেখ করতে হবে। যেমন #inktober2019

ইংকটোবার কেন হয়?

মূলত ইংকটোবারের উদ্দেশ্য আঁকিয়েদের প্রতিভার বিকাশ। হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে একজন প্রতিযোগী খুঁজে পাবে অন্য সবার ছবি। এখান থেকে সে নতুন তথ্য, আঁকার নিয়ম, কৌশল জানতে পারবে। নিজেকে চ্যালেঞ্জের মধ্যে আবিষ্কার করে নিজেই নিজের স্কিল বাড়াতে কাজ করতে থাকবে।

পৃথিবী বদলে যাওয়ার সাথে সাথে পৃথিবীর নানা প্রান্তের ঘটনা বদলে যায়। ইংকটোবার যেহেতু তরুণদের চ্যালেঞ্জ, তাই ছবির মাধ্যমে এসব বদল সম্পর্কে তরুণদের দৃষ্টিভঙ্গি ফুটে ওঠে। এক দেশের তরুণ পরিচিত হয় অন্য দেশের তরুণের সঙ্গে, শিল্পের মাধ্যমে।

প্রযুক্তির কল্যাণে এখন সাড়া পৃথিবী সংযুক্ত। ইংকটোবারে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশি আঁকিয়েরাও। কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের পেশাদার, অপেশাদার শিল্পী এবং তরুণ ছাত্ররা ‘ইংকটোবার’ এ অংশ নিচ্ছেন। গত বছর ইংকটোবার নিয়ে বাংলাদেশে একটি প্রদর্শনী হয়েছিল ইএমকে সেন্টারে। প্রখ্যাত কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব এর উদ্বোধন করেন। ২ থেকে ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত প্রদর্শনীতে রয়েছে মোট ৭২ জন আঁকিয়ের ১৩৫টি ছবি স্থান পায়। এছাড়া আছে ২৫ জন আঁকিয়ের মাসজুড়ে আঁকা নিয়ে স্কেচবুকের প্রদর্শনী হয় এখানে।

প্রতি বছরের মতো এবারও হচ্ছে ইংকটোবার। তারুণ্য সাদাকালো দিয়েই প্রকাশ করছে কথা, গল্প আর প্রতিবাদ।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker