মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০১৭
webmail
Thu, 02 Mar, 2017 04:37:33 PM
নতুন বার্তা ডেস্ক

ঢাকা: রেলগাড়িতে চড়তে অনেকেই পছন্দ করেন৷ তবে বিশ্বে এমন কয়েকটি রেললাইন আছে যেখান দিয়ে ট্রেনে যেতে হয়ত আপনার একটু ভয় লাগবে৷

পাম্বান ব্রিজ, ভারত

রামেশ্বরম আর পাম্বান নামে দুটি দ্বীপের মধ্যে সংযোগ স্থাপনে ১৯১৪ সালে সেতুটি নির্মাণ করা হয়৷ সাগরের উপর নির্মিত এই ব্রিজটি ২ দশমিক ০৬ কিলোমিটার দীর্ঘ৷ রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয় বেশি হওয়ায় ব্রিজটি দিন দিন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে৷

সাল্তা-আন্টোফাগাস্তা রেলওয়ে

আর্জেন্টিনার সাল্তা ও চিলির আন্তুফাগাস্তা শহরের মধ্যে এই রেললাইনটি অবস্থিত৷ প্রায় ২৭ বছর ধরে কাজ করার পর ১৯৪৮ সালে এর নির্মাণকাজ শেষ হয়৷ এই লাইনের একটি অংশ ভূপৃষ্ঠ থেকে ৪,২২০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত৷ সে হিসেবে এটি বিশ্বের পঞ্চম সবচেয়ে উঁচুতে অবস্থিত লাইন৷ প্রায় সাড়ে নয়শ’ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রেললাইনে আছে ২৯টি ব্রিজ ও ২১টি টানেল৷

জর্জটাউন লুপ, যুক্তরাষ্ট্র

কলোরাডো রাজ্যের এই রেললাইন দিয়ে এখন পর্যটকদের নিয়ে ট্রেন চলাচল করে৷ ৭ দশমিক ২ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পথ পাড়ি দেয়ার সময় টুরিস্টরা আশেপাশের পাহাড়ের সৌন্দর্য দেখতে পারেন৷ এই পথের সবচেয়ে আকর্ষণীয় অংশ হচ্ছে ‘ডেভিলস গেট হাই ব্রিজ’৷ মাটি থেকে এর উচ্চতা ৩০ মিটার৷

কুব়্যান্ডা সিনিক রেলওয়ে, অস্ট্রেলিয়া

৩৪ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রেললাইন ঘন রেনফরেস্টের মধ্যে দিয়ে গেছে৷ পথে বেশ কয়েকটি ঝর্ণার দেখা পাওয়া যায়৷ তবে মাঝেমধ্যে খাড়া পাহাড়ি পথ এসে পড়ায় যাত্রীদের একটু ভয়ও লাগতে পারে৷

ডেভিলস নোজ, ইকুয়েডর

পাঁচশ’ মিটার উঁচু খাড়া পাহাড় থেকে হঠাৎ করে বেঁকে ঢাল বেয়ে ট্রেনে করে নীচে নামা নিশ্চয় কিছুটা বিপজ্জনক ও ভয়ের৷ ইকুয়েডরের এই রেললাইনটি ১২ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং ভূপৃষ্ঠ থেকে ২,৭০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত৷

লিন্টন অ্যান্ড লিনমাউথ ক্লিফ রেলওয়ে, ইংল্যান্ড

লিন্টন ও লিনমাউথ শহরের মাঝে প্রায় ২৬০ মিটার খাড়া একটি পাহাড় অবস্থিত৷ এই দুই শহরের বাসিন্দাদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করতে ১৮৯৮ সালে এই রেললাইনটি স্থাপন করা হয়৷ ভিডিও দেখতে উপরে (+) চিহ্নে ক্লিক করুন৷

কাম্বার্স অ্যান্ড টলটেক সিনিক রেলরোড, যুক্তরাষ্ট্র

নিউ মেক্সিকো রাজ্যের চামা ও কলোরাডোর অ্যান্টোনিটো শহরের মধ্যে প্রায় ১০৩ কিলোমিটার দীর্ঘ এই লাইনটি ১৮৮০ সালে নির্মিত হয়৷ এই লাইন দিয়ে এখনও কয়লাচালিত ট্রেন চলে৷ -ডিডব্লিউ

নতুন বার্তা/টিটি

 


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top