মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০১৭
webmail
Fri, 19 May, 2017 09:49:37 AM
নতুন বার্তা ডেস্ক

নিউইয়ার্ক: যুক্তরাষ্ট্রে সফররত কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোসের সঙ্গে ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, তার নির্বাচনী প্রচারণার সঙ্গে রাশিয়া সম্পৃক্ত ছিল কিনা, এ বিতর্কে ব্যস্ত থাকার চেয়ে রাষ্ট্র পরিচালনার কাজে মন দিতে চান তিনি।
 
এ নিয়ে তদন্তে বিচার বিভাগের এফবিআই এর সাবেক পরিচালক রবার্ট মুলারকে নিয়োগ দেয়াকে তিনি সম্মান করেন। তবে এ বিষয়টি দেশকে দ্বিধাবিভক্ত করে দিয়েছে। সম্মেলনে তিনি আবারো রাশিয়ার সঙ্গে তার প্রশাসনের সম্পর্ক নিয়ে গুঞ্জন নাকচ করে দেন।

এ ছাড়া এ নিয়ে চলা তদন্তকে প্রভাবিত করার জন্য তিনি সংস্থাটির পরিচালক জেমস কোমিকে বরখাস্ত করেছেন বলে যে অভিযোগ, তাও খারিজ করে করে দেন ট্রাম্প। উল্টো কোমি খুবই অজনপ্রিয় ছিলেন বলে দাবী করেন প্রেসিডেন্ট।
 
এর আগে, গত সপ্তাহে হোয়াইট হাউসে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠকে কোনো গোপন নিরাপত্তা তথ্য ফাঁস হয়েছিল কী না, তার প্রমাণ দিতে সে কথোপকথনের লিখিত কপি মার্কিন কংগ্রেসের হাতে তুলে দেবার রুশ প্রস্তাবকে রাশিয়ার অনধিকার চর্চা বলে অভিহিত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের শীর্ষ ডেমোক্রেট ন্যান্সি পেলোসি।

তিনি বলেছেন, এখন ট্রাম্প এ নিয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হতে দিলে এ সংক্রান্ত সকল ধোঁয়াশা দূর হয়ে যাবে।
 
কিন্তু এক প্রতিবেদনে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, রাশিয়ার সঙ্গে অন্তত ১৮ দফা গোপন যোগাযোগ হয়েছিল ট্রাম্প শিবিরের। ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের ৫৮তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রাক্কালে এসব যোগাযোগ হয়েছিল। ফোনকল এবং ই-মেইল চালাচালির মাধ্যমে এ যোগাযোগ সম্পন্ন হয়।

নির্বাচনের শেষ সাত মাসে (এপ্রিল থেকে নভেম্বর) মাইকেল ফ্লিন এবং ট্রাম্পের প্রচারশিবিরের অন্য উপদেষ্টারা রুশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ যোগাযোগ রক্ষা করেন। রুশ-ট্রাম্প আঁতাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বর্তমান ও সাবেক মার্কিন কর্মকর্তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এক বিশেষ প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। -সংবাদমাধ্যম

নতুন বার্তা/এএইচ


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top