রোববার, ২২ অক্টোবর ২০১৭
webmail
Thu, 12 Oct, 2017 12:31:05 AM
নতুন বার্তা ডেস্ক

নয়াদিল্লি: সিকিম-ভুটান-তিব্বতের ট্রাই জাংশনে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের সফর ভারতের রণনীতির ক্ষেত্রে এই মুহূর্তে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ তা বলাই যায়৷ ডোকালামকে নিয়ে ভারত-চীন এই দুই দেশের মধ্যে বিবাদ সমাধানের মুখ দেখলেও, একাংশের মতে এখনও সেখানে রয়েছে ধোঁয়াশা৷ সূত্র অনুযায়ী, ডোকালাম নিয়ে চিনের মনোভাব আঁচ করে তার সালামি স্লাইসিং রণনীতিকে ব্যর্থ করতে প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছে ভারত৷

প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন, সিকিমে গিয়ে জানিয়েছিলেন, সেনাদের প্রয়োজনীয়তার দিকে নজর রয়েছে সরকারের৷ পাশাপাশি তিনি এও স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, সীমান্ত এলাকার উন্নয়নের দিকেই জোর দিচ্ছে ভারত৷ এই সব এলাকায় উন্নয়নে না হওয়ার কারণেই চিন সুযোগ পেয়ে যাচ্ছে৷ আর এখানেই উঠে আসছে চিনের সালামি স্লাইসিং নীতির প্রসঙ্গ৷

কিন্তু কি এই সালামি স্লাইসিং নীতি?
এর অর্থ, প্রতিবেশী দেশের বিরুদ্ধে গোপনে ছোট ছোট সেনা অভিযান করে ধীরে ধীরে ভূভাগকে করায়ত্ত করা৷ এইসব অভিযান এতোটাই ছোট স্তরে হয় যে তা যুদ্ধতে পরিণত হবে এমন সম্ভাবনাও থাকে না৷ কিন্তু এই অভিযানগুলির মোকাবিলা কিভাবে করবে তা বোঝা মুশকিল হয়ে যায় প্রতিবেশী দেশের পক্ষে৷ এভাবেই নাকি চিন বহু স্থানেই করায়ত্ত করেছে৷

সীমান্ত এলাকাগুলিতে উন্নতি না হওয়ার জন্যই সেই সুযোগ যে চিন নেওয়ার চেষ্টা করবে এমনটাই আশঙ্কা রয়েছে৷ অন্যদিকে চিন নিজের সেনাদের জন্য রেলে নেটওয়ার্ক, রাস্তা, এয়ারবেস, ব়্যাডার এবং নানা বিষয়ে উন্নয়নের দিকে ক্রমশই জোর দিচ্ছে৷ অন্যদিকে ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকাগুলি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত, আর সেসব জায়গাগুলির উন্নয়নের দিকেই সরকার সচেষ্ট৷

সাম্প্রতিককালে সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত চিনের এই ভয়ঙ্কর রণনীতি ‘সালামি স্লাইসিং’-এর বিষয়ে সতর্ক করেন৷ চিন যে তার শক্তি প্রদর্শন করতে শুরু করে দিয়েছে সেই বিষয়েও জানান তিন৷ তার পাশাপাশি একথাও স্পষ্ট করে দেন, ভবিষ্যতের কথা ভেবে ভারতকে এইসব রণনীতির মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে৷

নতুন বার্তা/কেকেআর



 


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top