বিদেশ

রোহিঙ্গারা কেন নিজ দেশে ফিরতে আগ্রহী নন?

মিয়ানমারে ইরানের অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত মোহসেন মোহাম্মাদি বলেছেন, অনেক রোহিঙ্গা মুসলমানই প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় রাখাইনে ফিরতে আগ্রহী নন। কারণ মিয়ানমারে ফেরার পর তারা আরও বিপদে পড়ার আশঙ্কা করছেন। তারা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত।

বার্তাসংস্থা ইরনাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেছেন। মোহসেন মোহাম্মাদি আরও বলেছেন, মিয়ানমারে ফিরে গেলে উগ্র বৌদ্ধরা আবারও নির্যাতন করতে পারে বলে তারা ভয় পাচ্ছেন। এছাড়া তাদের ভিটেমাটি আগেই উগ্র বৌদ্ধরা দখল করে নিয়েছে। সেখানে যাওয়ার পর ভিটেমাটি ফিরে পাওয়ারও কোনো নিশ্চয়তা তারা পাচ্ছেন না।

ইরানের রাষ্ট্রদূত আরও বলেছেন, বাস্তবতা হচ্ছে রোহিঙ্গা মুসলমানরা কঠিন সমস্যার মধ্যে রয়েছেন। একদিকে তারা বাংলাদেশে শরণার্থী শিবিরগুলোতে কঠিন ক্ষুধা ও দারিদ্রের মধ্যে রয়েছেন। আর অন্যদিকে নিরাপত্তা, নাগরিকত্ব ও ভিটেমাটি ফিরে পাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত না হয়ে মিয়ানমারে ফিরে গেলে ভবিষ্যত আরও ঝুকিপূর্ণ হতে পারে।

তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত মিয়ানমারে রোহিঙ্গা ইস্যুর সমাধান না হবে এবং রোহিঙ্গারা নাগরিকত্বসহ স্বাধীনভাবে চলাচলের অধিকার না পাবেন ততদিন পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনকে স্থায়ী ও নিরাপদ সমাধান হিসেবে মনে করা ঠিক হবে না।

মিয়ানমারের রাখাইনে গত আগস্ট থেকে শুরু হওয়া হত্যা-নির্যাতনে ছয় হাজারের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান নিহত ও আরও হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছে। এছাড়া লাখ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

নতুন বার্তা/এমআর

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker