বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
webmail
Mon, 05 Feb, 2018 12:13:05 AM
নতুন বার্তা ডেস্ক

আচ্ছা ভালবেসেই তো বাড়িতে পোষ্য আনা হয়। সে কুকুর বিড়াল হোক বা পাখি। দিনের পর দিন একসঙ্গে থাকতে থাকতে পরিবারেরই একজন হয়ে ওঠে সেই পোষ্য। বুঝে নেয় কে তাকে কতটা ভালবাসে। ধরুন একদিন আপনার প্রিয় কুকুরছানা বাড়ির বাইরে গিয়ে আর ফিরে এল না। দুঃখে নিশ্চয়ই কাতর হয়ে পড়বেন। দিনরাত এক করে শুরু করবেন প্রিয় পোষ্যের খোঁজখবর। তারপরেও না পেলে একদিন ক্ষান্ত দেবেন। আত্মীয়ের বাড়িতে নতুন পোষ্য এলে প্রিয় টমির (কুকুর) কথা মনে পড়ে দুঃখ উথলে উঠবে। কিন্তু এরপরেও যদি একদিন দেখেন সেই প্রিয় টমি ফিরে এসেছে। তখন আনন্দে উদ্বেল হবেন তো? অতিরঞ্জিত মনে হলেও এমন ঘটনাই ঘটেছে পেনসিলভেনিয়ার সুইরভেল্ড পরিবারের সঙ্গে। ১০ বছর আগে সুইরভেল্ড পরিবার থেকে নিখোঁজ হয়ে যায় প্রিয় ল্যাব্রাডর। বেশ কিছুদিন খোঁজখবর করেও তার কোনও সন্ধান পাননি শ্রীমতি ডেবরা সুইরভেল্ড। এরমধ্যে ১০ বছর কেটে গিয়েছে। পুরনো বাড়ি, পুরনো পাড়া ছেড়ে অন্য জায়গায় শিফট করেছে গোটা পরিবার। তাও অনেকদিন হয়ে গেল। দিন কয়েকআগে আচমকাই অভাবনীয় ঘটনা ঘটেছে সুইরভেল্ড পরিবারে। ফিরে এসেছে তাদের প্রিয় অ্যাবি (পোষ্যের নাম)। এহেন আনন্দের খবরে উদযাপনে মেতেছে গোটা পরিবার।



অ্যাবি ফিরে আসার খবরে সবথেকে খুশি শ্রীমতি সুইরভেল্ড। নিজের মুখেই আনন্দ প্রকাশ করেছেন। প্রথমে যখন অ্যাবির খবর নিয়ে ফোন আসে, তখন আনন্দ ধরে রাখতে পারিনি। আমরা তো ভেবেছিলাম এতদিনে অ্যাবি বোধহয় মরেই গিয়েছে। সে ফিরে আসায় মনে হচ্ছে ছেলেমেয়েদের শৈশব আবার ফিরেছে। অ্যাবি আমাদের পরিবারের সদস্য। সে পুনরায় ফিরে আসায় আমরা আনন্দে ভাসছি।



জানা গিয়েছে, বাড়ির কাছেই সুইরভেল্ড পরিবারের শিশুদের সঙ্গে খেলা করছিল অ্যাবি। সেই অবস্থাতেই নিখোঁজ হয়ে যায় সে। ১০ বছর আগে যেখান তাকে শেষবারের মতো দেখা গিয়েছিল, তার থেকে ১০ মাইল দূরে ছিল অ্যাবি। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ ও পশু উদ্ধারকারী কর্মীরা। নিয়ে আসা হয় পশুপাখি সংরক্ষণালয়ে। সেখানেই ভালভাবে অনুসন্ধান চালানোর পর অ্যাবির শরীরে একটি মাইক্রো চিপ মেলে। সেই চিপই অ্যাবির পরিবারের হদিশ দেয়। চিপের সূত্র ধরেই খবর আসে সুইরভেল্ড পরিবারে। পুলিশের থেকে ফোন পেয়ে অবাক হয়েছিলেন শ্রীমতি সুইরভেল্ড। জানতে পারেন মাইক্রো চিপের সূত্রেই অ্যাবির সন্ধান মিলেছে। প্রিয় পোষ্য বাড়ি ফিরতেই উৎসবে মেতেছে গোটা পরিবার। ইতিমধ্যেই ফিরে আসা নিয়ে বিশেষ নৈশভোজের বন্দোবস্তও হয়েছে। আনন্দের খবর নেটিজেনদের না জানিয়ে শান্তি পাচ্ছিলেন না ডেবরা। তাই পোষ্যের ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন। শুভেচ্ছার কমেন্টে ভরেছে ইনস্টাগ্রাম পোস্ট। প্রায় সকলেরই দাবি কোনও ভাল পরিবারেই ১০টি বছর কাটিয়ে এসেছে। সেখানে যত্নের কোনও ত্রুটি হয়নি। তাই চেহারা ভাঙার চেয়ে বরং নাদুসনুদুসই হয়েছে সে। ভালবাসার বাঁধনে জড়িয়ে রাখলেও একটা সময় পর অ্যাবি নিজের বাড়ির কথা মনে করতে পেরেছে। তাই চেনা পথে ফিরেছে প্রিয়জনদের কাছে।

নতুন বার্তা/এমআর


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top
    close