জাতীয়

রোহিঙ্গাদের কাউকে জোর করে পাঠানো হবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা: মিয়ানমারের রাখাইনে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা না পর্যন্ত কোনো রোহিঙ্গাকেই জোর করে ফেরত পাঠানো হবে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

রোববার বিকেলে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন ‘পদ্মা’য় রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়ে বিভিন্ন দেশ ও সংস্থার কূটনীতিকদের ব্রিফিং করার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কাউকে জোর করে পাঠানো হবে না। রাখাইনে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পরই রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে।

২৩ জানুয়ারি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর প্রক্রিয়ার ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, ওই দিনই রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো শুরু হবে কি-না তা এখনই বলবো না। তবে সেদিন দুই দেশের সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডে অবস্থানরতদের ফেরত পাঠানো শুরু হবে।

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য আবাসন তৈরিতে ভারত, জাপান ও চীন কাজ করছে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার সীমান্তের পাঁচ দেশ ভারত, কম্বোডিয়া, লাওস, চীন ও বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ছাড়া ওই চার দেশের কূটনীতিকদের নিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি দেখানো হয়েছিল। তাদের আবার সেখানে পরিদর্শনে নেওয়া হলে রোহিঙ্গাদের মধ্যে আস্থা ফেরত আসবে। তারপরই এই প্রত্যাবাসন নির্বিঘ্ন হতে পারে।

এর আগে দুই পর্বে কূটনীতিকদের ব্রিফ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। প্রথম পর্বের ব্রিফিংয়ে ছিলেন ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মান, ইতালি, তুরস্ক, রাশিয়া,

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker