বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮
Tue, 13 Feb, 2018 06:00:00 AM
কাজী মাহমুদ হুসাইন রুমন
নতুন বার্তা ডটকম
ঢাকা: “আজি দখিন-দুয়ার খোলা / এসো হে, এসো হে, এসো হে আমার বসন্ত এসো।/দিব হৃদয়দোলায় দোলা।” ফুল ফুটুক বা না ফুটুক আজ বসন্ত, পহেলা ফাল্গুন। ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিন। প্রকৃতির চিরাচরিত স্বভাব অনুযায়ী বন বনান্তে কাননে কাননে কিংশুকের রংয়ের কোলাহলে ভরে উঠেছে চারদিক। কচি পাতায় আলোর নাচনের মত বাঙালির মনেও লেগেছে রংয়ের দোলা। হৃদয় হয়েছে উনমন।
 
পাতার আড়ালে আড়ালে লুকিয়ে থাকা বসন্তের দূত কোকিলের মধুর কুহু কুহু ডাক, ব্যাকুল করে তুলবে অনেক বিরহীর অন্তর। তবে বসন্তের সমীরণ বলছে এ ঋতু সব সময়ই বাঙালির মিলনের বার্তা বহন করে। ৫২’র ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাঙালির স্বাধীনতার বীজ রোপিত হয়েছিল এ বসন্তেই। বসন্তেই বাঙালি মুক্তিযুদ্ধ শুরু করেছিল।
 
বসন্তেই বাঙালি গণ-অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে তাঁদের প্রাণের নেতা বঙ্গবন্ধুকে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে মুক্ত করেছিল। আবার এ বসন্তেই তরুণ প্রজন্মের আন্দোলনের মধ্য দিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির রায় ঘোষিত হয়। আর শহরের নাগরিক জীবনে বসন্তের আগমণবার্তা নিয়ে আসে 'আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি...' ও একুশের বইমেলা।
 
এদিনেই অসংখ্য রমনী বাসন্তী রংয়ে নিজেদের রাঙিয়ে রাজধানীসহ সার দেশের রাজপথ, পার্ক, বইমেলা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ চত্বরসহ পুরো নগরী সুশোভিত করে তোলে। বসন্তের পূর্ণতার এ দোলা ছড়িয়ে পড়ুক বাংলাদেশের সর্বত্র এবং সারা পৃথিবীর সকল বাঙালির ঘরে ঘরে। 
 
কোকিলের কুহুতান, দখিনা হাওয়া, ঝরা পাতার শুকনো নুপুরের নিক্কন, প্রকৃতির মিলন, সব এ বসন্তেই।
 
তাই বসন্ত মানে পূর্ণতা। বসন্ত মানে নতুন প্রাণের কলরব। বসন্ত মানে একে অপরের হাত ধরে হাঁটা। মিলনের ঋতু বসন্তই মনকে সাজায় বাসন্তী রংয়ে, মানুষকে করে আনমনা। বসন্তের এ সময়ে শীতের জীর্ণতা সরিয়ে ফুলে ফুলে সেজে ওঠে প্রকৃতি। গাছে গাছে নতুন পাতা, স্নিগ্ধ সবুজ কচি পাতার ধীরগতিতে বাতাসের সাথে বয়ে চলা জানান দেয় নতুন কিছুর।
 
শীতে খোলসে ঢুকে থাকা বন-বনানী অলৌকিক স্পর্শে জেগে উঠে। পলাশ, শিমুল গাছে লাগে আগুনে রংয়ের খেলা। প্রকৃতিতে চলে সাজ সাজ রব। বসন্ত তারুণ্যের ঋতু বলেই সবার মনে বেজে ওঠে, ওই বাণী “বসন্ত ছুঁয়েছে আমাকে। ঘুমন্ত মন তাই জেগেছে, পহেলা ফাল্গুন আনন্দের দিনে।”
 
 আজ থেকে ২৪ বছর আগে বঙ্গাব্দ ১৪০১ সনে ঢাকায় প্রথম ' ‘জাতীয় বসন্ত উৎসব' উদযাপন করার রীতি চালু হয়। সেই থেকে জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদ বসন্ত উৎসব আয়োজন করে আসছে। বসন্তের নাচ, গান ও কবিতার পাশাপাশি ফুলের প্রীতি বন্ধনী ও বসন্ত কথনের মাধ্যমে রাজধানীতে বসন্ত বরণের অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়।
 
সকালে চারুকলা অনুষদের বকুলতলায় শুরু হবে বসন্ত আবাহন, 
শোভাযাত্রাসহ নানা আয়োজন। এছাড়াও শহরের বিভিন্ন জায়গা এবং দেশের প্রায় সব জায়গায় নানাভাব পালিত হবে বসন্ত উৎসব।
 
নতুনবার্তা/কিউএমএইচ
 

Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top