জাতীয়

দেশের মানুষের প্রতি আমার আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা যুবশক্তিকে দেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ হিসেবে বর্ণনা করে এই শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার দৃঢ় সংকল্প ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, ‘দেশবাসীর ওপর আমার আস্থা আছে, বিশ্বাস আছে। আমাদের তরুণ সমাজ অনেক উদ্যোগী সেটাই আমাদের সব থেকে বড় সম্পদ।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ রাতে জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় এ কথা বলেন।

তিনি দেশবাসীর ওপর আস্থা রেখে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলতে পারবেন বলে পুনরায় দৃঢ় আস্থা ব্যক্ত করেছেন।

তাঁর সরকার দেশে যে একশ’ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে তাতে বাংলাদেশে বিনিয়োগে মানুষের আকাংখা বেড়েছে বলেও প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এ সময় স্পিকারের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে তাঁর সরকারের বিগত ৯ বছর এবং পূববর্তী ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত মেয়াদে সরকারে থাকার সময়কার দেশের উন্নয়নের বিস্তারিত পরিসংখ্যান তুলে ধরেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে আপনাদের জীবনমান সহজ করা এবং উন্নত করার উদ্যোগ নিয়েছি। আপনারা আজ সেসব সেবা পাচ্ছেন।

তিনি বলেন, দেশে ১৩ কোটি মোবাইল সিম ব্যবহৃত হচ্ছে। ইন্টারনেট সার্ভিস প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। ৮ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। সেখান থেকে জনগণ ২০০ ধরনের সেবা পাচ্ছেন।

৯ বছর একটানা জনসেবার সুযোগ পেয়েছি বলেই বাংলাদেশ উন্নত হচ্ছে। বিশ্বব্যাপী মন্দা থাকা সত্ত্বেও আমাদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অব্যাহত রাখতে সক্ষম হয়েছি। জনগণ এর সুফল ভোগ করছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে নি

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker