জাতীয়

শেষ হল অমর একুশে বইমেলা

ঢাকা: মাসব্যাপী অমর একুশের বইমেলা শেষ হলো। এবারের মেলায় রেকর্ড সংখ্যক নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে। এক মাসে সর্বমোট নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে ৪ হাজার ৫৯০টি। গত মেলায় নতুন বই প্রকাশ পেয়েছিল ৩ হাজার ৬৬৬টি।

বাংলা একাডেমির পরিচালক ও অমর একুশে গ্রন্থমেলা উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ বাসসকে আজ এই তথ্য জানান। তিনি বলেন, এবারের মেলায় গত মেলার চেয়ে মোট ৯৩৪টি বেশি বই প্রকাশ পেয়েছে। এই সংখ্যা আরও বেশি হবে। কারণ, অনেক প্রকাশনা সংস্থা তাদের নতুন বইয়ের তালিকা বার বার তাগিদ দেয়ার পরও একাডেমির তথ্য কেন্দ্রে জমা দেন না। ফলে একাডেমির তথ্যকেন্দ্রে যে সব বইয়ের তালিকা জমা পড়েছে সেই তথ্যই আমরা মিডিয়াকে জানিয়ে দিচ্ছি।

বই বিক্রির বিষয়ে ড. জালাল জানান, এ ছাড়াও গতবারের চেয়ে এবার বই বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। স্টলের সংখ্যাও এবার বেশি ছিল। এবার স্টল রয়েছে ৭১৯টি। এ ছাড়া প্যাভিলিয়ন রয়েছে ২৪টি। গত বছর স্টল ছিল ৬৭৭টি। গত বছরের চেয়ে এবার মেলার পরিসরও বেশি।

বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ্র থেকে বাসসকে জানানো হয়, এবারের মেলায় এক মাসে প্রকাশিত নতুন বইয়ের শীর্ষে রয়েছে কবিতা ১ হাজার ৪০৬টি। এর পরেই রয়েয়ে ছোট গল্পের বই ৬৬৩টি। তৃতীয় অবস্থান হচ্ছে উপন্যাস ৬২১টি। এ ছাড়া প্রবন্ধের বই ২৬৭টি, শিশুতোষ ১৬৭, মুক্তিযুদ্ধ ১০৮, রচনাবলী ৩২, সায়েন্স ফিকশন ৬৭, নাটক ৩১, বিজ্ঞান ৭৮, ইতিহাস ১১২, চিকিৎসা ৩২, অনুবাদ ৬৫, অভিধান ৭, রম্য-ধাঁধা ২০, ধর্মীয় বিষয়ে ২৫ এবং অন্যান্য বিষয়ে ৩৯১টি নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে।

মেলার শেষ দিনে বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশের আদিবাসী ’ শীর্ষক সেমিনার । এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রাহমান নাসির উদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন রাশিদ আসকারী। আলোচনায় অংশ নেন ফয়জুল লতিফ চৌধুরী ও রণজিত সিংহ।

পরে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। স্বাগত ভাষণ দেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ড. শামসুজ্জামান খান। বক্তব্য রাখেন মেলা কমিটির সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ। সন্ধ্যায় ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

নতুন বার্তা/এমআর

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker