জাতীয়

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে ভয়ালমার্চের সংবাদ শিরোনাম

ঢাকা: বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বিদেশী গণমাধ্যমগুলো আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের বিভিন্ন সংবাদ প্রকাশ করে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের নিপীড়িত জনগণের পক্ষে বিভিন্নভাবে জনমত গড়ে তুলেছিল। কী ছিল সে সেসব সংবাদের শিরোনাম? নতুন বার্তা ডটকমের পক্ষ থেকে পাঠকদের জন্য সে সব শিরোনাম তুলে ধরা হলো:

পাকিস্তানের ভাঙন রোধে সেনাবাহিনী ব্যবহার করবে ইয়াহিয়া (দি অবজারভার, ৭ মার্চ, ১৯৭১), সমাপ্তির পথে পুরনো পাকিস্তান (দি টেলিগ্রাফ, ১০ মার্চ ১৯৭১), ইয়াহিয়াকে দেখে নেয়ার হুমকি দিলেন বাংলাদেশের নির্বাসিত নেতারা (দি টাইমস, ১২ মার্চ, ১৯৭১ ), পূর্ব পাকিস্তান ক্ষমতা দেখাচ্ছে (দি গার্ডিয়ান, ১২ মার্চ, ১৯৭১), মুজিব ইয়াহিয়ার সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি (দি গার্ডিয়ান, ১৩ মার্চ, ১৯৭১), প্রান্তসীমায় টলমল (দি ইকোনমিস্ট, ১৩ মার্চ, ১৯৭১), ইয়াহিয়া মেশিনগান প্রহরায় ঢাকায় উপস্থিত হয়েছেন (দি গার্ডিয়ান, ১৬ মার্চ, ১৯৭১), ইয়াহিয়ার সঙ্গে আলোচনায় সংকট উত্তরণের আভাস (দি টাইমস, ২০ মার্চ, ১৯৭১), সংকটকাল অতিক্রম করছে বাংলা (দি টাইমস, ২০ মার্চ, ১৯৭১), পাকিস্তান ভাঙনের মুখোমুখি (দি টাইমস, ২০ মার্চ, ১৯৭১), কী হচ্ছে পূর্ব পাকিস্তানে (বিবিসি, ২৪ মার্চ, ১৯৭১), বাংলায় সংকট ঘনীভূত (নিউ ইয়র্ক টাইমস, ২৪ মার্চ ১৯৭১), পাকিস্তানিদের মুখোমুখি বাঙালিরা (নিউ স্টেটসম্যান, ২৫ মার্চ, ১৯৭১), সীমা লঙ্ঘন করছে পশ্চিম পাকিস্তান (দি গার্ডিয়ান, ২৫ মার্চ, ১৯৭১), বাংলাদেশ আক্রমণের পরিকল্পনা করছে পাকিস্তান (দি ডেইলি টেলিগ্রাফ, ২৭ মার্চ, ১৯৭১), কীসের জন্য তারা (বাঙালিরা) পালিয়ে গেল? (দি ইকোনমিস্ট, ২৭ মার্চ, ১৯৭১), উত্তাপ থেকে বেরিয়ে আসা সত্যবক্তা মুজিব (দি টাইমস, ২৮ মার্চ, ১৯৭১), বাংলার মিলিয়ন মিলিয়ন উদ্বাস্তু কি থেকে পালাচ্ছে (দি সানডে টাইমস, ২৮ মার্চ, ১৯৭১)

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এসব শিরোনাম বিশ্বেও বিভিন্ন প্রান্তে বাংলার নির্যাতিত মানুষের পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে বড় ধরনের সহয়তা করেছিল।

নতুন বার্তা/কেকে

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker