বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮
Sat, 05 May, 2018 08:12:06 AM
নিজস্ব প্রতিবেদক
নতুন বার্তা ডটকম

ঢাকা: ঢাকায় ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাউন্সিলের ৪৫তম অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ। দুই দিনের এই সম্মেলনে রোহিঙ্গা সংকটের ওপর বিশেষ নজর দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই অধিবেশন উদ্বোধন করবেন। ৫৬টি ওআইসি সদস্য দেশের মধ্যে ৫২টি দেশের ৬শ’ প্রতিনিধি এতে অংশ নেবেন। সম্মেলনে ৪০ জন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী অংশ নেবেন বলেও আশা করা হচ্ছে। এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘টেকসই শান্তি, সংহতি ও উন্নয়নে ইসলামিক মূল্যবোধ’।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী বৃহস্পতিবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, এবারের সম্মেলনে রোহিঙ্গা সংকটের ওপর বিশেষ নজর দেয়া হবে। এ নিয়ে একটি বিশেষ অধিবেশনও অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানে সরকার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে এক যোগে কাজ করতে চায়। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের সম্ভাব্য উপায় খুঁজে বের করতে আমরা আলোচনা করবো এবং এ সংকট মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও ওআইসি সদস্য দেশগুলোর প্রচেষ্টা জোরদারের আহ্বান জানাবো।

ঢাকা সিএফএম এ মূলত মুসলিম বিশ্বের সংঘাত ও চ্যালেঞ্জসমূহ, আন্তর্জাতিক ইস্যু, দেশে দেশে মুসলমানরা যে ধরনের মানবিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে কিভাবে সেগুলোর সমাধান, মুসলিম উম্মাহর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, ওআইসি দেশগুলোর মধ্যে অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং সাংস্কৃতিক বিষয়সহ বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতার ক্ষেত্র খুঁজে বের করা হবে।
 
সিএফএম-এ অংশগ্রহণকারী অর্ধশতাধিক মন্ত্রী, সহকারী মন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা  শুক্রবার কক্সবাজারের কুতুপালং এ রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। তারা মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিম জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলেন ও সরেজমিনে তাদের বাস্তব অবস্থা প্রত্যক্ষ করেন।
 
পাশাপাশি কক্সবাজারের জেলা প্রশাসন, আঞ্চলিক ত্রাণ কর্মকর্তা, জাতিসংঘের প্রতিনিধি ও সশস্র বাহিনীর কর্মকর্তাদের সাথে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন ও ব্যবস্থাপনার বিষয়ে আলোচনা করেন ও অবহিত হন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী ও প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বিদেশি অতিথিদের সঙ্গে শুক্রবার কক্সবাজার যান। এছাড়া বিশেষভাবে আমন্ত্রিত কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিস্টিনা ফ্রিল্যান্ডও সিএফএম সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন ও শুক্রবার কক্সবাজার সফর করেন।
 
শনিবার সকাল দশটায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেইম এ ওআইসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ৪৫তম সম্মেলন উদ্বোধন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন ও ভাষণ দেবেন। সিএফএম এর বিদায়ী সভাপতি আইভরিকোস্টের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মার্কেল এমন এতে সভাপতিত্ব করবেন। অনুষ্ঠানে সিএফএম এর সভাপতির দায়িত্ব বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হবে। ওআইসির মহাসচিব ড. ইউসুফ এ আল ওতাইমিন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী উদ্বোধনী পর্বে বক্তব্য রাখবেন। শনিবার দুপুর ও বিকেলে সিএফএম এর দুইটি কর্মঅধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। সন্ধ্যায় বিদেশি প্রতিনিধিরা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সাথে সাক্ষাৎ ও রাষ্ট্রপতির দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেবেন। রবিবার সকালে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে একটি বিশেষ কর্মঅধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। এদিন বিকেলে ঢাকা ঘোষণার মধ্য দিয়ে সম্মেলন শেষ হবে।
 
বাংলাদেশের প্রতিদ্বন্দ্বিতা
সৌদিআরবের জেদ্দায় ওআইসির সদর দফতরের সহকারী মহাসচিবের (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি) এশীয় গ্রুপের একটি পদের জন্য সিএফএম সম্মেলনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ এই পদে আগেই প্রার্থী হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সচিব (দ্বিপাক্ষিক ও কনস্যুলার) রাষ্ট্রদূত কামরুল আহসানকে মনোনয়ন দিয়েছে। পাশাপাশি ওআইসির সদস্যভুক্ত আরেকটি দেশ কাজখস্তান এ পদে মনোনয়ন দিয়েছে। এশিয়ার ১৮টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ জয়লাভে প্রয়োজনীয় ১০টি দেশের সমর্থন পাবে বলে আশাবাদী।
 
সিএফএম সম্মেলন উপলক্ষে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন করেছে সরকার। সম্মেলনস্থল বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। অতিথিদের আবাসস্থল নগরীর পাঁচতারকা হোটেলগুলোতে ও বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় শুক্রবার ইত্তেফাককে বলেন, এ সম্মেলনের জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
 
ইতোমধ্যে সকল ডেলিগেট ও মন্ত্রী পর্যায়ের প্রতিনিধিরা ঢাকায় এসে উপস্থিত হয়েছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী শুক্রবার স্থানীয় একটি হোটেলে তাদের সম্মানে নৈশ ভোজের আয়োজন করেন।

নতুন বার্তা/কেকে


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top