চলতি হাওয়াজাতীয়তরুণ ভাবনাসাক্ষাৎকার

‘বাংলা ভাষার বিকৃতি রোধ করার দায়িত্ব সবার’

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচন্ড আলোচনা সমালোচনার জন্ম দিয়েছে একটি বই। বইয়ের নাম ‘বান্ধobi’ লেখিকার নাম রাবা খান! তিনি একজন ইউটিউবারও। Booktionary.com.bd নামে একটি অনলাইন বুকশপ বইটিকে তাদের ফেসবুক পেইজে আর্বজনা বলে উল্লেখ করে। সেই ফেসবুক পোষ্ট ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। আমরা মুখোমুখি হয়েছিলাম Booktionary.com.bd এর মালিক মেহেদী হাসান নয়নের। এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চেয়েছিলাম তার কাছে।

নতুন বার্তা: রাবা খানের বই বান্ধobi কে আবজর্না বলার কারণ কি?

মেহেদী হাসান নয়ন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ, দেখুন ছোটবেলা, কৈশোর, ছাত্র জীবন কেটেছে আমার বই পড়ে। হুমায়ূন আহমেদ স্যার, জাফর ইকবাল স্যার, সমরেশ মজুমদার উনাদের মত গুণী ব্যক্তিদের গল্প উপন্যাস পড়ে বড় হয়েছি। এখনকার যুগের যারা লেখালেখিতে অনেক জনপ্রিয় আরিফ আজাদ, জাহিদ হাসান তাদের লেখাও পড়া হয় সবসময়। কিন্তু কিন্তু এই বইটি হাতে নিয়ে একটু পড়ার পর আমার কাছে মনে হল এটা সম্পূর্ণ একটা আবর্জনা। আমার বোধগম্য হয় না যে, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মরণে উদযাপিত একুশে বই মেলায় এরকম একটি বাংলিশ বই কিভাবে প্রকাশ পায়।

নতুন বার্তা: বান্ধobi বইয়ের ভেতরের লেখার মান খারাপ নাকি বাংলিশ লেখার কারণে আবর্জনা বলছেন?

মেহেদী হাসান নয়ন: দেখুন বই এর কন্টেন্ট নিয়ে আমার কোন কথা নেই এটা লেখকের ব্যাপার। কিন্তু তিনি বুঝে হোক না বুঝে হোক বয়স কমের কারণেই হোক বাংলা ভাষাকে বিকৃত করেছেন যেটার অধিকার তার নেই। আঙুল তুলে কেউ যদি এই ভুল না ধরিয়ে দেয় তাহলে দেখবেন অদূর ভবিষ্যতের বইমেলায় এর চেয়ে হাস্যকর বই বের হচ্ছে এবং আমরা শুধু চেয়ে চেয়ে দেখছি, কেউ প্রতিবাদও করছি না। এই দিন দেখার জন্য ১৯৫২ সালে শুধুমাত্র ভাষার জন্য সালাম, রফিক, জব্বার উনারা শহীদ হন নি।

নতু্ন বার্তা: বই প্রকাশের একটা মাধ্যম মাত্র। বইয়ে ভালো লেখাও থাকতে পারে! আবার খারাপ লেখাও থাকতে পারে! আপনি বইয়ের ব্যবসা করেন। আপনার প্রতিষ্ঠান বইয়ের মানদন্ড বিচার করার কেউ না। এই ব্যাপারে আপনার ব্যাখ্যা কি?

মেহেদী হাসান নয়ন: আমি আগেও বলেছি কন্টেন্ট নিয়ে বলার আমি কেউ না কিন্তু ভাষা বিকৃত করা আমি সচেতন নাগরিক হিসাবে সহ্য করতে পারি নি আর ব্যবসার ক্ষেত্রে আমারা একটা আদর্শ নিয়ে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করি, বইটি কেনার আগ পর্যন্ত কোন গ্রাহকই জানছে না। তারা তাদের কষ্টের টাকা দিয়ে কি কিনছে, একজন আদর্শ ব্যাবসায়ী হিসাবে আমি এটা জানানো আমার কর্তব্য মনে করি। Booktionary.com.bd ভবিষ্যতেও এই ধরণের কোন বই শুধুমাত্র টাকার জন্য বিক্রি করবে না। এটা মনে করতে পারেন আমার নিজের জায়গা থেকে একটি প্রতিবাদ! কারণ আমি না করলে হাজার ব্যবসায়ী করবে। আদর্শের সাথে ব্যবসা পরিচালনা করতে চাই সারাজীবন।

নতুন বার্তা: অনেক বইয়ে বাংলা লেখায় ইংরেজি কিছু লাইন দেখা যায়! সেক্ষেত্রে আপনার মন্তব্য কি?

মেহেদী হাসান নয়ন: সবকিছুর একটা নিয়ম আছে, আমি আপনি যা দেখি না কেন বই লেখা থেকে শুরু করে প্রকাশ এবং পাঠকের কাছে পৌঁছানো পর্যন্ত বেশকিছু ধাপের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। আমার জানামতে এমন কোন বই। আপনি পাবেন না যেখানে বাংলা ভাষাকে ইংরেজিতে এভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে, লেখকের না হয় বয়স কম না বুঝতে পারে নি কিন্তু প্রকাশক কিভাবে এই কাজ করে। আমরা আগে দেখতাম মানুষ লেখালেখি করে জনপ্রিয় হন এখন উল্টো চোখে পড়ে, যেটা খুব দুঃখ জনক।

নতুন বার্তা:লেখিকার ভাষ্যমতে, তিনি নাকি তরুণ প্রজন্মের ভাষায় তার বই লিখেছেন! এই ব্যাপারে আপনার বক্তব্য কি?

মেহেদী হাসান নয়ন: আমি আগেই বলেছি লেখকের বয়স কম অনেক কিছুই একটু কম বুঝে বলে আমার মনে হয়। আমার জানামতে টিনেজাররা এরকম ভাবে কথা বলে না। খুব বেশি হলে আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে থাকি,স্ট্যাটাস লেখা আর বই লেখা কি একই? প্রশ্ন রইল। যাই হোক লেখিকার সাথে আমার কোন শত্রুতা নেই উনি যদি ভবিষ্যতেও ভাল কোন বই লিখে সেটা যদি বেস্টসেলারও হয় আমার ওয়েবসাইটে বিক্রির জন্য উঠার আগে আমাদের
নিজেদের যারা প্রুফ রিডার আছে তাদের মতামত নিয়ে তারপর আমি নিজে পড়ে ভালো মনে হলে তুলবো। শুধুমাত্র ব্যবসা আমাদের উদ্দেশ্য না।

 

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker