জাতীয়ট্রেন্ডিং খবরহোমপেজ স্লাইড ছবি

ফোর্বসের তালিকায় বাংলাদেশি দুই তরুণ

ফোর্বস যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত একটি ম্যাগাজিন প্রকাশনা সংস্থা। এটি সবচেয়ে বেশি পরিচিত বিখ্যাত ফোর্বস নামক ম্যাগাজিনের প্রকাশক হিসেবে। এটি ব্যবসাভিত্তিক একটি ম্যাগাজিন এবং ব্যবসাভিত্তিক ম্যাগাজিনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে প্রভাবশালী ম্যাগাজিন। বিভিন্ন রকম তালিকা প্রকাশের জন্য ফোর্বস বিখ্যাত। যেমন: সবচেয়ে ধনী আমেরিকানের তালিকা, বিলওনিয়ারের তালিকা ইত্যাদি। ফোর্বস ম্যাগাজিনের মূলনীতি হচ্ছে দ্য ক্যাপিটালিস্ট টুল (The Capitalist Tool)। এই প্রভাবশালী মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস ১৯১৭ সালে প্রথম তাদের সংখ্যা প্রকাশ করে।

তরুণদের যেসব উদ্যোগ তাদের দেশকে বদলে দিচ্ছে এবং মানুষের জীবনযাত্রার ইতিবাচক পরিবর্তন করতে সাহায্য করছে। তাদের সেসব উদ্যোগের সুফলগুলো যাতে দীর্ঘমেয়াদী হয় তার জন্য কাজ করে প্রভাবশালী মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস। তাই প্রতিবছর ফোর্বস ও প্রশান্তমহাসাগরীয় অঞ্চলের বিভিন্ন খাতের শীর্ষ ৩০ তরুণ উদ্যোক্তা যাদের বয়স ৩০ বছরের নিচে তাদের একটি তালিকা প্রকাশ করে।

প্রতিবারের মত এবারও মোট দশটি ক্যাটাগরিতে সেরাদের নিয়ে তিনশ জনের এই তালিকা তৈরি করেছে ফোর্বস। নতুন উদ্যোগ, নেতৃত্ব দেওয়ার সক্ষমতা, উদ্ভাবনী চিন্তা ও সাফল্যের বিবেচনায় তিন হাজার নাম থেকে বাছাই করা এই ৩০০ জন মোট ২৩টি দেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন। এবারের থার্টি আন্ডার থার্টি লিস্টে এসেছেন বাংলাদেশের রয়েছে দুইজন তরুণ।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ফোর্বস ম্যাগাজিনের ২০১৯ সালের ‘থার্টি আন্ডার থার্টি এশিয়া লিস্ট’ বলছে, বাংলাদেশে রাইড শেয়ারিং সেবা পাঠাওয়ের প্রধান নির্বাহী হুসাইন এম ইলিয়াস কনজুমার টেকনোলজি খাতে এশিয়া ও প্রশান্তমহাসাগরীয় অঞ্চলের শীর্ষ ৩০ তরুণ উদ্যোক্তার একজন।

আর কার্টুনিস্ট আবদুল্লাহ আল মোরশেদের নাম এসেছে ‘মিডিয়া, মার্কেটিং অ্যান্ড অ্যাডভার্টাজিং’ ক্যাটাগরির সেরা ৩০ তরুণের তালিকায়, যিনি ‘দি গ্লোবাল হ্যাপিনেস চ্যালেঞ্জ’ শিরোনামে ধারাবাহিক কার্টুন এঁকে দেশ-বিদেশে সুনাম কুড়িয়েছেন।

পাঁচটি মোটরবাইক আর ৩০ জন কর্মী নিয়ে যাত্রা শুরু করা পাঠাও এখন এই খাতে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি। বাইক ও গাড়িতে যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি জিনিসপত্র পৌঁছে দেওয়া এবং বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়ার সেবা দিচ্ছেন পাঠাওয়ের রাইডাররা।

যানজটের রাজধানী ঢাকায় জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর পাঠাওয়ের সেবা এখন বিস্তৃত হয়েছে দেশের আরও চারটি বড় শহরে এবং নেপালের কাঠমান্ডুতে। আর এই সেবার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন ৫০ লাখ রাইডার, যাদের ‘ফ্রিল্যান্স’ কাজের সুযোগ তৈরি হয়েছে পাঠাওয়ের কল্যাণেই।

ফোর্বস বলছে, পাঠাওয়ের অ্যাপটিকে দেশের সেরা অ্যাপ হিসেবে পরিচিত করার স্বপ্ন দেখেছিলেন ইলিয়াস। সেই পাঠাওয়ের বাজার মূল্য এখন ছাড়িয়েছে ১০ কোটি ডলার।

স্যাটায়ার ম্যাগাজিন উন্মাদের সহকারী সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মোরশেদ নতুন এক যুদ্ধ শুরু করেন ২০১৮ সালের গোড়ার দিকে। শুরু হয় যুদ্ধ আর ধ্বংসের বিরুদ্ধে তার কলম-তুলির লড়াই। সংবাদ মাধ্যম আর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া নির্মমতা আর বেদনার ছবিগুলোকে তিনি পাল্টে দিতে শুরু করেন আশা আর আনন্দের বার্তায়। এর ধারাবাহিকতায় শুরু হয় কার্টুনিস্ট মোরশেদ মিশুর ‘গ্লোবাল হ্যাপিনেস চ্যালেঞ্জ’ সিরিজ।

ফোর্বস বলছে, যুদ্ধ আর সহিংসতা না থাকলে এই পৃথিবী কতটা সুন্দর হতে পারত, সেটাই কার্টুনের মধ্য দিয়ে দেখিয়েছেন মোরশেদ মিশু।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker