জাতীয়ট্রেন্ডিং খবরস্বাস্থ্যহেলথ টিপসহোমপেজ স্লাইড ছবি

করোনা ভাইরাস এবং আমাদের করণীয়

রাফিউজ্জামান সিফাত: আজ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে (কভিক১৯) মৃতের সংখ্যা ২৭৭০, চীন ছাড়িয়ে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ৩৯ টিরও বেশী দেশে, প্রতিদিন নতুন নতুন শহর, দেশ, মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। সরকারী হিসেব মতেই মোট আক্রান্তের সংখ্যা আজ পর্যন্ত ৮১,১৯৪।

যদি পাপিয়ার ভিডিও দেখা শেষ হয় তবে নিচের ছবিটি একবার খেয়াল করুন। চীন ছাড়িয়ে করোনা ছড়িয়েছে পড়ছে পুরো বিশ্বে ( লাল স্পট)

চীন ব্যাতীত ইতিমধ্যে আক্রান্ত দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে, ইরান, ইতালি, সাউথ কোরিয়া, হংকং, লেবানন, ব্রাজিল, বাহারাইন, কুয়েত, জাপান, ক্রশিয়া, অষ্ট্রিয়া, আলজেরিয়া, সুইজারল্যান্ড, জার্মানি, আমেরিকা, থাইল্যান্ড, সিংগাপুর, কানাডা,ইসরাইল, অস্ট্রেলিয়া, মিশর, মালয়শিয়াসহ আরও অনেক দেশ। আক্রান্ত দেশগুলো দেখেই বুঝতে পারার কথা,মুসলিম অমুসলিম দেখে হয় নাই, করোনা ভাইরাস, ধনী গরীব রাষ্ট্র দেখেও হয়নাই।

বিশ্বের সবচাইতে বুদ্ধিমান ধনী প্রযুক্তিনির্ভর রাষ্ট্র করোনার সাথে মোকাবেলায় হেরে যাচ্ছে, জাপানে স্কুল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, আমেরিকায় করোনাকে বলা হচ্ছে, ‘পাবলিক হেলথ ইমারজেন্সি’ WHO বলছে গ্লোবাল পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি।

চায়নার সাথে কোন না কোন ভাবে যুক্ত প্রায় প্রতিটা দেশ আক্রান্ত হচ্ছে করোনায়, আর আমাদের শতকরা প্রায় আশিভাগ বাণিজ্যই চায়না নির্ভর। গত বছর ডেঙ্গুতে এতগুলো মানুষ মরে গেল অথচ এ বছর এখনও ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনায় কোন রকম কোন তোড়জোড় নেই, এ বছর আবারও মশার কামড়ে শ খানেক মানুষ মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা করছে সেখানে করোনার মতো মহামারী একবার এদেশে প্রবেশ করলে কি ভয়ংকর প্রলয়ংকারী পরিস্থিতির সূচনা হবে কেউ ভেবে দেখেছেন?

আলোর বেগে এই দেশে করোনা ছড়াবে, পথে ঘাটে করোনায় আক্রান্ত রোগী পড়ে থাকবে, হাসপাতালগুলোতে সিট মিলবে না, মিলবে না চিকিৎসা। এতো লক্ষ রোগী চিকিৎসা দেয়ার সামর্থ্যই তো বাংলাদেশের নেই, আপনি কোথায় পালাবেন? কোন দেশে যাবেন?

করোনা আসার আগেই দুই টাকার মাস্কের দাম যদি হয় সত্তর টাকা তবে একবার করোনা ছড়ালে কি অবস্থা হবে কেউ চিন্তা করতে পারছেন তো? জ্বর মাপার থার্মোমিটার কিনতে গেলেই জায়গা জমি বিক্রি করে দিতে হবে, খাবারের দাম বেড়ে ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে। করোনায় না মরলেও, না খেয়ে মরবেন এইটা সুনিশ্চিত। দায়িত্ব সরকারের। এক্ষুনি ব্যবস্থা গ্রহন করুন।

১- সীমান্ত সুরক্ষিত করুন। এয়ারপোর্ট, বন্দর, বর্ডারে রেড এলার্ট জারি করুন। প্রতিটি যাত্রীর করোনা ভাইরাস শনাক্তকরণ পদ্ধতি নিশ্চিত করুন। একটু খামখেয়ালী মানেই দেশজুড়ে মহামারী।

২- প্রতিটি বিভাগীয় শহরে কোয়ারেন্টাইন স্থাপন করুন।

৩- ভাইরাস ছড়ানো প্রতিরোধে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে তৈরি করুন বিশেষ স্টাফ ফোর্স।

৪- প্রত্যেক জেলা উপজেলা হাসপাতাল, স্বাস্থ্য ক্লিনিকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডাক্তার নার্সের সমন্বয়ে পুর্ব প্রস্তুতি গ্রহন করুন।

৫- বাজার নিয়ন্ত্রণ করুন, প্রয়োজনে ব্যবসায়ী ও হাসপাতাল ডায়গনস্টিকস সেন্টার মালিকদের নিয়ে দফায় দফায় আলোচনা করে একটি কমন গ্রাউন্ড নিশ্চিত করুন যেন জনগন জিম্মি না হয়।

৬- দেশজুড়ে গণসচেতনতা তৈরি করুন। মানুষ থকে মানুষে ভাইরাস ছড়ায়, তাই মানুষকে করোনা বিষয়ে শিক্ষিত ও সচেতন করতে অনতিবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহন করুন।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের আশায় বসে না থেকে অন্তত এইবার মহামারী ঠেকাতে নূন্যতম দায়িত্বটুকু পালন করুন।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker