বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
webmail
Sat, 10 Feb, 2018 08:44:14 AM
মোহাম্মদ সাকিবুর রহমান খান
 
ইউনিলিভার বাংলাদেশ বিভিন্ন সময়ে তাদের বিভন্ন ব্যাবসার কৌশল নিয়ে বাংলাদেশে নন্দিত এনং নিন্দত হয়েছে। তারা বাংলাদেশের মানুষের ‘সাদা গায়ের রং’ প্রীতির কারনে ‘ফেয়ার এন্ড লাভলী’ নামক একটি ক্রিম-কে রং ফর্সাকারী ক্রিম বলে চালিয়ে দিয়ে প্রতিদিন বাংলাদেশ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করে নিচ্ছে। ভালোবাসা দিবসের বাংলাদেশের বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে তাদের ‘কাছে আসার গল্প’ কোনো কোনো মহলে নন্দিত আবার কোনো কোনো মহলে নিন্দিত হয়েছে। 
 
ফেসবুক এ দেখলাম তারা এই বছর ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে বেছে নিয়েছে বাংলাদশের সবচেয়ে রোমান্টিক বিশ্ববিদ্যালয় ‘জাহাঙ্গীরনগর’ কে। ক্লোজআপ কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ৫০টি রিক্সা দিয়েছে, যেখানে ফ্রি সার্ভিসে কাপলরা এইসব রিক্সায় চড়ে ৯ থেকে ১৬ ফেব্রুয়ারি পাচ্ছেন ইচ্ছেমত ঘোরার সুযোগ। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত এই বিষয়ে অনুমতি প্রদান করেন নি। তাঁরা আগামী ১১ তারিখ এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবেন। 
 
অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রী এর বিরোধিতা করেছে।  কিছু জাহাঙ্গীরনগর  বিশ্ববিদ্যালয় এর বর্তমান ও সাবেক ছাত্র ছাত্রীর  সাম্প্রতিক ফেস বুক স্টেটাস এর সংকলিত অংশ দেয়া হলো-
 
ফারজানা লিজা:
দেশ আজ কোথায় গিয়ে পৌছেছে। মুসলিম দেশ হিসেবে সরাসরি এরকম ব্যবস্থা লজ্জাজনক। আমরা ইউরোপ, আমেরিকার মত ভাবতে পারিনা কারন বাংলাদেশ একটি মুসলিম কান্ট্রি। প্রশাসন এইটার অনুমতি দিলে বলার কিছুই নাই, সরাসরি বিয়ে বহির্ভূত প্রেমকে সমর্থন দেওয়া হচ্ছে যেটা মুসলিম দেশ হিসেবে লজ্জাজনক। আর এই যে ১৪ ফেব্রুয়ারি এইসব পশ্চিমা অপসংস্কৃতিকে আমরা পালন করে আসছি সেটা কতটা যুক্তিকর, ভালবাসা প্রকাশের জন্য একটা দিবস ও লাগে বাহ।
 
ফাহিম উদ্দিন: 
এইবার প্রথম তাই ফ্রি রিক্সা সামনের বছর ফ্রি বেড। হা হা হা। 
 
এম এস সনিফ সরকার: 
ক্লোজআপ বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এরকম সেবা প্রদানের মাধ্যমে মুলত অশ্লীলতাকেই ছড়িয়ে দিচ্ছে না ???
কারন অপ্রিয় হলেও সত্য, সিনিয়র- জুনিয়র সম্পর্কের জন্য আমাদের ক্যাম্পাসের যেমন দেশব্যাপী সুনাম রয়েছে, ঠিক সমানভাবে অশ্লীলতার জন্যও আমাদের ক্যাম্পাস কম সমালোচিত নয়।
*আমাদের জন্য এ মহৎ উদ্যোগ গ্রহণে তাদের ফায়দা কি??? নিজেদের প্রচার-প্রসার ঘটানোর জন্যই যদি এমন উদ্যোগ হয়ে থাকে, তাহলে তো সারাদেশে কত গরীব,অসহায়, ছিন্নমূল মানুষ আছে,তাদের চোখে পরে না??? 
*তারা কি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে যথাযথ অনুমতি নিয়েছে???
আমি নিজে তাদের উদ্যোগ কে কোনভাবেই মেনে নিতে পারছিনা, এ ব্যাপারে আপনাদের গুরুত্বপূর্ণ মতামত আশা করছি...
 
লিও তোফায়েল আহমেদ:
কথায় আছে না মাগনা মাগনা দই, খড় পেতে লই।
যারা ওড়াদুড়া প্রেম করেন তাদের জন্য বিশাল সুযোগ জনপ্রিয় হবার, কারণ সবাই জানবে তারাই কাপল।
 
সুমাইয়া সুমা: 
প্রেমের প্রতি উৎসাহ প্রদান করছে ক্লোজআপ। খোলামেলা বেয়াদবি। ফ্রি দিলে সবার জন্য দিক। শুধু কাপলদের জন্য কেন??
 
রিফাত আহমেদ বাঁধন: 
আজাইরা আইডিয়া..

Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top
    close