শুক্রবার, ২৩ জুন ২০১৭
webmail
Fri, 21 Apr, 2017 11:57:39 AM
দিনাজপুর প্রতিনিধি
নতুন বার্তা ডটকম

দিনাজপুর: দিনাজপুর সদর উপজেলায় যমুনা অটোরাইস মিলে বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে তিনজনের দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দিনাজপুর সদর উপজেলায় যমুনা অটোমেটিক রাইস মিলের বয়লার বিস্ফোরিত হয়। এতে ২৮ জন দগ্ধ হন। তাদের প্রথমে দিনাজপুরের এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অঞ্জলি রানী রায় (৪৫) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ২২ জনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাতেই মোকসেদ আলী (৪৮) মারা যান। পরদিন বৃহস্পতিবার আরিফুল ইসলামের (৪৫) মৃত্যু হয়। তাদের সবার বাড়ি দিনাজপুর সদর উপজেলার চাঁদগঞ্জ গ্রামে।

এদিকে এই ঘটনা তদন্তে দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে ৬ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। কমিটিকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- দিনাজপুর জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজেম উদ্দীন, ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক লিয়াকত আলী, শিল্প ও বণিক সমিতির সিনিয়র সহসভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, বয়লার পরিদর্শক হুমায়ুন কবীর।

তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় তারা কমিটির সদস্যদের নিয়ে একটি সভা করেছেন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মারুফুল ইসলাম জানান, বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় দিনাজপুর থেকে ২২ জনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে তিনজন মারা যান। বাকি ১৯ জনের শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

নতুন বার্তা/এএইচ


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top