শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
webmail
Sun, 16 Jul, 2017 05:12:21 PM
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি
নতুন বার্তা ডটকম
চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার রায়পুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাহাজ্জত হোসেনের বিরুদ্ধে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ ও অনাস্থা জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
রবিবার বেলা ২টায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান রায়পুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেযারম্যান আব্দুল মালেক।
 
লিখিত বক্তব্য বলা হয়, ২০১৩ সালের ২৭ এপ্রিল নির্বাচনের পর ৪ জুন শপথ ও ৮ জুন দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে তাহাজ্জত হোসেন একক কর্তৃত্ব বিরাজ করে ব্যাপক স্বেচ্ছাচারিতা শুরু করে। বিভিন্ন ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে তিনি গোপনে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেন।
 
তাছাড়া এডিপির অর্থায়নে নির্মিত রাস্তা দেখিয়ে এলজিএসপির টাকা আত্মসাৎসহ কর্মসৃজনের শ্রমিকদের দিয়ে খাল খনন করে সেই টাকা আত্মসাৎ করেছেন। পরিষদের সদস্যদের দুই বছর পরিষদ থেকে কোন সম্মানী দেওয়া হয়নি।
 
এছাড়া বিগত ৪ বছরে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের বাদে যত নিরিক্ষা হয়েছে তা তিনি গোপনে সচিব ও নিরিক্ষকদের দিয়ে অডিট করিয়েছেন। সদস্যরা অডিটের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কখনও জানাননি।
 
 
তিনি আরো জানান, চেয়ারম্যান তাহাজ্জত হোসেনের বিরুদ্ধে অনাস্থা জানানো সদস্য ও সদস্যারা হলেন, ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মিলনুর রহমান, ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জেহের আলী, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল লতিফ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আসাদুল হক, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল মালেক, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ফয়জুন নেছা, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুস শুকুর, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য তরিকুল ইসলাম, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নজরুল ইসলাম, সংরক্ষিত ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য কুলছুম বেগম, সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য কহিনুর বেগম ও সংরক্ষিত ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নুরুন নাহার।
 
নতুনবার্তা/কেএফডি

Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top
    close