শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
webmail
Tue, 12 Sep, 2017 05:25:14 PM
ফরিদপুর প্রতিনিধি
নতুন বার্তা ডটকম
ফরিদপুর: ফরিদপুরের অলফাডাঙ্গা উপজেলার উত্তর আড়পাড়া গ্রামের মৃত মোকলেস মোল্লার পুত্র মো. জান্নাত মোল্লা (৪০) কে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যার পর এবার মামলা তুলে নিতে হুমকী দিচ্ছে প্রভাবশালী মহল। মঙ্গলবার দুপুরে নিহতের জানাজা ও দাফনকালে এ অভিযোগ করেন নিহতের পরিবার।
 
নিহত জান্নাত ঢাকায় মুদি ব্যাবসা করতেন। তার ১১ বছরের এক পুত্র ও চার বছরের এক কন্যা রয়েছে।
 
নিহতের মা হিরণ বেগম জানান, বাড়ীর সীমানা ও জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল প্রতিবেশী প্রভাবশালী সেলিমুজ্জামান ও সাহাবুদ্দিন গংদের সাথে। দীর্ঘ দিন ধরে তারা নানাভাবে হুমকী প্রদান করে আসছিল।
 
নিহতের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম জানান, শনিবার অতর্কিতে সেলিমুজ্জামানের নেতুত্বে ২৫/৩০ জন মানুষ সংঘবদ্ধ হয়ে লাঠি-সোটা, রামদাসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে বাড়ীর উপর হামলা চালিয়ে উঠানের উপর স্বামী জান্নাত মোল্লাকে প্রকাশ্যে বেধড়ক পেটানো হয়।
 
জান্নাকে রক্ষা করতে এগিয়ে গেলে স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম, বোন আলেয়া বেগম ও মা মহিরণ বেগমসহ বাড়ীর অন্য সদস্যদেরও বেধড়ক পেটানো হয়।
 
মুমুর্ষ অবস্থায় জান্নাতকে উদ্ধার করে প্রথমে আলফাডাঙ্গায় ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেজিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সোমবার ঢামেকে চিকিৎসাধীণ অবস্থায় জান্নাতের মৃত্যু হয়।
 
জান্নাতের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম, বোন আলেয়া বেগম ও মা মহিরণ বেগমসহ অন্যান্যরা অভিযোগ করেন, হামলাকারী পক্ষ অত্যন্ত প্রভাবশালী, তাদের কয়েকজন পালিয়ে হেলেও তাদের পক্ষের লোকজন মামলা তুলে না নিলে ফের হামলার হুমকী দিচ্ছে।
 
এদিকে এ ঘটনায় গত রোববার অলফাডাঙ্গা থানায় নিহতের চাচাতো ভাই ইমদাদুল হক বাদী হয়ে ২০/২৫ জনের নামে অভিযোগ দিলে পুলিশ ২৬ধারায় মামলাটি গ্রহন করে। মামলার বাদীও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে অভিযোগ করেন।
 
অলফাডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাজমুল করিম জানান, এঘটনার পর থেকেই ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পুলিশ থাকবে। তিনি জানান, ঘটনার পর এজাহার নমীয় প্রধান আসামি মো. সেলিমুজ্জামান, ১০ নং আসামী ওবায়দুল মোল্লা, ১১ নং আসামী সাবু ও ১২ নং আসামী সাহাবুদ্দিনকে আটক করা হয়েছে। একই সাথে আহত ব্যাক্তির মৃত্যুর কারণে ৩০৬ ধারা সংযোজনের জন্যে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।
 
অপরদিকে আসামী পক্ষের প্রভাবশালী সহযোগীদের পক্ষ থেকে হুমকী প্রদানের বিষয়টি তাদের লিখিতভাবে জানানো হয়নি দাবি করে তিনি বলেন, এধরনের অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।
 
নতুন বার্তা/কেএফ

Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top