মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮
Tue, 06 Mar, 2018 07:56:46 PM
জয়পুরহাট প্রতিনিধি
নতুন বার্তা ডটকম

জয়পুরহাট: জয়পুরহাটের আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে এক নারীর দায়ের করা ধর্ষণ চেষ্টা মামলার বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক বেগম মমতাজ পারভীন এ আদেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গতকাল সোমবার ৫ মার্চ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দাম্পত্য ও পারিবারিক বিরোধ নিস্পত্তির জন্য জেলার আক্কেলপুর পৌর শহরের কলেজ পাড়া এলাকার আতিকুর রহমান মিঠুর স্ত্রী শিউলী বেগম আক্কেলপুর থানায় আসেন। এ সময় ওই মামলায় সুবিধা দেওয়ার কথা বলে ওসি সিরাজুল ইসলাম তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে তার হাত ধরে টানাটানি করলে ওই অবস্থায় শিউলি থানা চত্বর ত্যাগ করে এবং ঘটনার একদিন পর মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে মামলা দায়ের করেন শিউলী।

জয়পুরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি অাইনজীবি (পিপি) এ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, অপরাধ যেই করুক তাকে শাস্তি পেতে হবে।

এ বিষয়ে ওসি সিরাজুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগকারী কিছুদিন আগে তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন এবং সেই মামলায় সে তার স্বামীর শাস্তি দাবি করেন। পরবর্তীতে মামলার চার্জশিট জমা দিলে তারা স্বামী-স্ত্রী আপোষ করে মামলার ফাইনাল নিস্পত্তির দাবি জানান কিন্তু সেটি করতে না পারায় তারা আমার বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ হন এবং দুদিন আগে অভিযোগকারী মহিলার বাবাকে একটি মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হিসাবে গ্রেফতার করায় ওই মহিলা থানায় এসে অনেকের সামনে হট্টগোল করেন তারই ধারাবাহিকতায় আমাকে ফাঁসানোর জন্য একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তিনি আরও বলেন, এই মামলায় তার কিছুই হবেনা, তদন্ত হলেই এটি মিথ্যা প্রমাণিত হবে।

এদিকে স্থানীয়  বীর মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামীলীগ নেতা সাদেক হোসেন অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান ওসি তাকেও বিনা কারণে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে অপমান করেছেন। তিনি বলেন, ওসি সিরাজুল ইসলাম বিনাকারণে মানুষের সাথে দুর্ব্যবহার করেন।

নতুন বার্তা/এমআর

 


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top