রোববার, ২২ এপ্রিল ২০১৮
Sun, 08 Apr, 2018 03:17:56 PM
ফরিদপুর প্রতিনিধি
নতুন বার্তা ডটকম
ফরিদপুর: একটি সুখি, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি ও ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আরিফুর রহমান দোলন।
 
আলফাডাঙ্গা উপজেলার শিয়ালদীতে পাকুরিয়া দারুল উলুম মাদ্রাসায় এক পথ সভায় এসব কথা বলেন দোলন। তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকুক। সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে গেলে তাকে প্রয়োজন। কিন্তু তার হাতকে শক্তিশালী করতে হলে ভালো নেতৃত্ব প্রয়োজন।
 
‘শেখ হাসিনার কাছে আপনাদের আমাদের আওয়াজ তুলতে হবে। আপনারা আওয়াজ তুলবেন, জাতীয় সংসদে যেন এ অঞ্চল থেকে একজন ভালো লোক দেয়া হয়, সেই আওয়াজ তুলবেন। আপনাদের কাছে সেই দাবি রেখে গেলাম।’ কৃষক লীগ নেতা বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য হতে চাই না। এ অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য আমি আপনাদের সেবক হতে চাই, আপনাদের চাকর হতে চাই। সেই সুযোগ আপনারা করে দেবেন। এ জন্যই বলা হয়, জনগণ সকল ক্ষমতার উৎস। জাতীয় সংসদে এ অঞ্চল থেকে ভালো নেতৃত্ব আমরা চাই। সেই লক্ষ্যে আপনারা আওয়াজ তুলবেন।’
সরকার সারা দেশে যে মডেল মসজিদ করার উদ্যোগ নিয়েছে তাকে একটি চমৎকার উদ্যোগ বলে মনে করেন দোলন। বলেন, ‘কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রী এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন। শেখ হাসিনা যদি আবারও ক্ষমতায় আসেন, আর ফরিদপুর- ১ আসনে যদি ভালো নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়, তাহলে এ অঞ্চলের আরও উন্নয়ন হবে।’ পরকালের বিচারের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে জীবনে কাজ চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শও দেন দোলন। বলেন, ‘মৃত্যুর পর আমাদের আরেকটি জীবন আছে। আমরা যদি ভালো কাজ করি তাহলে ভালো ফল পাবো। যদি মন্দ কাজ করি তাহলে তারও শাস্তি হবে।’ ঢাকাটাইমস ও এই সময় সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলনের মঙ্গল কামনা করে দোয়া দিচ্ছেন এলাকাবাসী ‘আমাদের প্রত্যেকের সাথে দুইজন করে হিসাব রক্ষক ফেরেশতা সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছেন। আমরা যে যাই কর্ম করি না কেন, তারা তা লেখছেন। কবরে যদি আমরা ভালো কাজ নিয়ে যেতে পারি, তাহলে ভালো ফল পাব।’
 
পাকুরিয়া দারুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসার প্রশংসা করে দোলন বলেন. ‘আমাদের বৈষয়িক শিক্ষার প্রয়োজন আছে। কিন্তু যদি ইসলামিক শিক্ষা গ্রহণ করা না হয়, তাহলে সমূহ বিপদ।’ আয়ের টাকা ভালো কাজে ব্যয় করতে করার তাগাদা দেন দোলন। বলেন, ‘সদকা করতে হবে। দান সদকার পুণ্য কেয়ামত পর্যন্ত ব্যক্তি পেতে থাকবেন।’ এর আগে বানা ইউনিয়নের টাবনী বাজারে পথ সভা করেন দোলন। সেখানে তিনি জনপ্রতিনিধিদেরকে জনগণের সেবক হওয়ার আহ্বান জানান। বলেন, জনপ্রতিনিধিদেরকে ভৃত্যের মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। ‘জনপ্রতিনিধি কখনও মনিব হতে পারে না, তারা জনগণের সেবক। তাদেরকে ভৃত্যের মানসিকতা নিয়ে জনগণের সেবা করতে হবে।’ জনগণ তাকে সাংসদ নির্বাচিত করলেও সেভাবেই জনসেবা করার অঙ্গীকার করেন তিনি। তরুণ এ নেতা বলেন, ‘যিনি আগামীতে জনপ্রতিনিধি হবেন, যিনি এমপি হবে, উপজেলা চেয়ারম্যান হবেন, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হবেন, মেম্বার হবেন, তাকে অবশ্যই এই শপথ করতে হবে যে তিনি জনগণের সেবা করবেন।’ জনগণের সেবক হিসেবে নির্বাচিত হতে পারলে সরকার থেকে পাওয়া অর্থ ও সুবিধাদি জনগণের কল্যাণে ব্যয় করবেন বলে জানান দোলন।
 
‘এসব অর্থ আলফাডাঙ্গা, মধুখালী ও বোয়ালমারীর সাধারণ জনগণের কাজে ব্যবহার হবে। এ অঞ্চলের বঞ্চিত নিপীড়িত মানুষের উন্নয়নে ব্যবহার হবে। সরকার থেকে যে বরাদ্দ আসবে, সেসবেরও সুষম বণ্টন হবে।’
 
‘আমরা তো অনেক ভালো আছি, ব্যবসা বাণিজ্য করে সমৃদ্ধ হয়েছি। তাহলে সংসদ সদস্য হলে বেতন ভাতাদি কেন নিজের পকেটে ঢোকাতে হবে?’। এসব পথ সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষক লীগের সদস্য সচিব ও জেলা পরিষদ সদস্য শেখ শহীদুল ইসলাম শহীদ, বুড়াইছ ইউপি সদস্য তরিকুল ইসলাম, মিটু মোল্যা, বানা ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম, মো. হাসান, মুক্তিযোদ্ধা গোলাম নবী ও খোকন মোল্যা, আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান খান প্রমুখ।
 
নতুন বার্তা/এফকে

 


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top