বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭
webmail
Wed, 06 Dec, 2017 08:08:49 AM
নিজস্ব প্রতিবেদক
নতুন বার্তা ডটকম

ঢাকা: স্বৈরাচার পতন দিবস; জাতীয় সংকটেও গড়ে উঠছে না ঐকমত্য।
 
গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় স্বৈরাচার এরশাদ পতনের আন্দোলনে যে দলগুলো যুগপৎ আন্দোলন করেছিল, তাদের মধ্যেই এখন শতধা বিভক্তি। জাতীয় সংকটকালীন সময়েও কমেনা সে বিভক্তির মাত্রা। প্রধান রাজনৈতিক দল দুটি একদিকে যেমন নিজেদেরকে গণতন্ত্রের প্রহরী দাবি করে, তেমনি পরস্পরকে দোষারোপ করে গণতন্ত্র হত্যাকারী দল হিসেবে। এমন প্রেক্ষাপটেই আজ পালিত হচ্ছে স্বৈরাচার পতন দিবস।

নব্বইয়ে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে তিন জোটে ভাগ হয়ে যুগপৎ আন্দোলনে নামে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ ২৭টি রাজনৈতিক দল। স্বৈরাচার ও তার সহযোগীদের কোনো দলে স্থান না দেয়ার একক অঙ্গীকার করে তিন জোটই।
টানা আন্দোলনের মুখে ৬ই ডিসেম্বর ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন এরশাদ।
 
গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফিরে এলেও অঙ্গীকার রাখেনি আওয়ামী লীগ, বিএনপি কেউই। এই সুযোগে ধীরে ধীরে ভোটের রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে পতিত স্বৈরাচার।

কখনো কখনো ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হয়ে ওঠে জাতীয় পার্টি। আর এখন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূতের দায়িত্বে এরশাদ।

জাতীয় সংকটেও রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ঐকমত্য গড়ে উঠছে না।

দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়ে রাজনীতি পরিচালিত হোক-জনতার এই প্রত্যাশা কি পূরণ হবে?

নতুন বার্তা/এমআর

 


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top
    close