মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮
Sun, 11 Mar, 2018 05:24:13 AM
নতুন বার্তা ডেস্ক

বডি বিল্ডারদের সাধারণত যেভাবে দেখতে অভ্যস্ত। তার থেকে অনেকটাই আলাদা তিনি। মঞ্চের একপাশে হিজাব আর কালো পোশাকে নিজেকে আগাগোড়া ঢেকে দাঁড়িয়েছিলেন। পাশে ছিলেন আরও প্রতিযোগী। বিচারকের মুখ থেকে নিজের নামটা শুনে আনন্দে চোখ চিকচিক করে উঠল। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি কোচির দুর্বার মলে অনুষ্ঠিত মিস্টার কেরল বডি বিল্ডিং প্রতিযোগিতায় মহিলা পাওয়ার লিফ্টিং বিভাগে জয়ী হয়েছেন মাজিজিয়া বানু। কেরল পাওয়ার লিফ্টিং অ্যাসেসিয়েশন তাঁকে ‘স্ট্রং ওম্যান অফ কেরল’ এর খেতাব দিয়েছে।

২৩ বছরের মাজিজিয়া বানু কোঝিকোড়ের একটি গ্রামে থাকেন। দাঁতের ডাক্তার হওয়ার জন্য পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন। পাশাপাশি রয়েছে বডি বিল্ডিংয়ের নেশা। পাওয়ার লিফ্টিংয়ে বেশ কয়েকটি খেতাব আগে পেয়েছেন। তবে বড় খেতাব এই প্রথম। তাই আবেগ চেপে রাখতে পারেননি বানু। বলছিলেন, ‘বডি বিল্ডিং চ্যাম্পিয়নশিপ জেতার পর সত্যিই অবাক হয়ে গিয়েছিলাম।’ এরপরই তাঁর সংযোজন, ‘আচমকাই বডি বিল্ডিংয়ে চলে আসি। আসলে প্রেমিকই আমাকে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছিল। প্রথমে খুব অস্বস্তি হত। কিন্তু প্রেমিক আমাকে মুসলিম মহিলা বডি বিল্ডারদের ছবি দেখিয়েছিল। যারা হিজাব পরেই অংশ নেয় টুর্নামেন্টে। আমিও সেটাই করার চেষ্টা করেছি।’

২০১৬ সালে পাওয়ার লিফ্টিংয়ে আসেন মাজিজিয়া। তাঁর প্রশিক্ষক বলছিলেন, ‘ছেলেদের মতো অনুশীলন করে ও। অনেক ক্ষেত্রে তো মনে হয় ছেলেরাও হয়ত এত কঠিন পরিশ্রম করতে পারবে না। হিজাব পরেই অনুশীলনও করে।’  

নতুন বার্তা/এমআর


Print
আরো খবর
    সর্বশেষ সংবাদ


    শিরোনাম
    Top