খেলা

সাকিবের ইনজুরি এবং দেশপ্রেমের প্রশ্ন!

ঢাকা: “হাতের ব্যাথায় যখন দল ছেড়ে দেশে ফিরছি তখনও বুঝতে পারিনি এত খারাপ পরিস্থিতির সম্মুখিন হতে হবে।
দেশে আসার পর প্রচন্ড ব্যাথা অনুভব ও হাত অস্বাভাবিক রকম ফুলে যাওয়ায় দ্রুত হসপিটালে এডমিট হয়ে একটি সার্জারী করাতে হয়েছে। আঙ্গুলের ভেতর ইনজেকশনের ফলে ৬০-৭০ সে: মি: পুঁজ বের করতে হয়েছে। আপনাদের দোয়াই খুব অল্পের জন্য বড় ধরণের বিপদ থেকে এই যাত্রায় রক্ষা পেয়েছি তবে দ্রতই আরও একটি সার্জারী করাতে হবে। আপনারা সকলের দোয়া প্রার্থনা করছি। আপনারদোর দোয়া ও ভালবাসায় দ্রুত সুস্থ হয়ে বাংলাদেশ দলের প্রতিনিধিত্ব করতে পারি। ধন্যবাদ!”
কিছুক্ষন আগে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমন খবর জানালেন সাকিব আল হাসান।
সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচিত ও সমালোচিত নাম। তবে আলোচনার থেকে সমালোচনাই বেশি শুনতে হয় এই অলরাউন্ডারকে। শুনতে হয়, তাঁর নাকি দেশপ্রেম বলে কিছু নেই। কিন্তু এই সাকিবই এখন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন।
যখন আমরা ফাইনাল নিয়ে কথা বলছি, তখন রাজধানীর হাসপাতালে ব্যথায় কাতরাতে কাতরাতে গিয়ে পৌঁছেছিলেন সাকিব আল হাসান। সিঙ্গাপুর বা থাইল্যান্ডের ভিসা না থাকায় তাৎক্ষনিক ভর্তি হন সেখানে। এদিকে আঙুলের ব্যথা বেড়েই চলেছে। চিকিৎসক দেখেই বিস্মিত। এই অবস্থায় কিভাবে খেলা সম্ভব? যেখানে কোন কাজই করা যায় না! কিভাবে এতোদিন বল-ব্যাট হাতে দেশের জন্য লড়লেন সাকিব?
আরও অবাক করা বিষয়, কয়েক ঘন্টা দেরী হলেই পুরো হাতই আর কখনো কাজ করতো না। যে হাত বাংলাদেশকে অনেক কিছু দিয়েছে, সেই হাত দিয়ে সাকিব আর খেলতে পারবে না। এটা ভাবতেই কেমন যেন গা শিউরে ওঠে।
হাসপাতালে এখন অ্যান্টি বায়েটিকের ওপর থাকছেন সাকিব।
অথচ আমরা এই সাকিবকে নিয়েই কত আজে-বাজে মন্তব্য করি। আর সাকিবকে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় দেশপ্রেম নিয়ে। সেই দেশপ্রেমেরই এক অনন্য উদাহরণ দিলেন সাকিব। ঝুকি নিয়ে খেলেছেন, পারফর্মও করেছেন। এবার কি ঘুচবে সাকিবের সাকিবের ‘দেশপ্রেম নেই অপবাদ’?

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker