খেলাহোমপেজ স্লাইড ছবি

বার্সেলোনা ফুটবল ক্লাবের ইতিহাস

এস.কে.শাওন: ফুটবল জনপ্রিয় একটি খেলা। ক্রীড়াপ্রেমী দর্শকদের ফুটবল বিশ্বকাপ দেখার সুযোগ মিলে চার বছর অন্তর অন্তর। বাকি সময়গুলোতে ফুটবলপ্রেমীরা মেতে থাকেন ক্লাব ফুটবল দলের খেলা নিয়ে। কারণ ক্লাব ফুটবল দলের ম্যাচগুলো ফুটবলপ্রেমী দর্শকদের মনের সমুদ্রে আনন্দের ঢেউ তোলে! বিশ্বের বিখ্যাত ক্লাব ফুটবল দলগুলোর মধ্যে অন্যতম স্পেনের ক্লাব বার্সেলোনা। আজকের প্রতিবেদনে আপনাদেরকে জানাবো ক্লাবটির প্রতিষ্ঠার গল্প।

বার্সেলোনা ক্লাবটি প্রতিষ্ঠার সঙ্গে জোয়ান গ্যাম্পার নামটি জড়িত। সুইডিশ নাগরিক গ্যাম্পার ১৮৯৮ সালে কাতালুনিয়ার বার্সেলোনা শহর ভ্রমণে এসেছিলেন। শহরটির সৌন্দর্য তাঁর মনে ধরায় তিনি থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।সেখানে সম্পাদকের চাকরি পান তখনকার স্পোর্টসভিত্তিক ম্যাগাজিন লস ডিপোর্টেজে। এই ম্যাগাজিনটিতে ১৮৯৯ সালের ২২ অক্টোবর বার্সেলোনা শহরে একটি ফুটবল ক্লাব গঠনের বিজ্ঞাপন দেন গ্যাম্পার। বিজ্ঞাপনে ব্যাপক সাড়া পেয়ে একই সালের ২৯ নভেম্বর সুইজারল্যান্ড,ইংল্যান্ড ও স্পেনের কয়েকজন আগ্রহী ব্যক্তি একত্রিত হয়ে প্রতিষ্ঠা করেন বার্সেলোনা ফুটবল ক্লাব। যা অনেকের কাছে বার্সা নামেও পরিচিতি লাভ করেছে।

জোয়ান গ্যাম্পার

বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার মধ্যে এগিয়ে যেতে থাকা ক্লাবটি ১৯৪০সালের পর থেকে নিয়মিত সফলতা পেতে থাকে। ১৯৪৯ সালে বার্সার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে তাঁদের ট্রফি কেইসে দেখা মিলে ৪টি লা-লিগা শিরোপা এবং ৯টি কাতালুনিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি। ১৯৫১-৫২ মৌসুমে বার্সার ঝুলিতে জমা হয় পাঁচটি শিরোপা। তারপর ক্লাবটিকে আর পিছে ফিরে তাকাতে হয়নি। অর্জন করে গেছে একের পর এক সফলতা। ক্লাবের এই ধারাবাহিক সাফল্যের উপর ভিত্তি করে তখন ক্লাবটির সদস্য সংখ্যা পৌছায় ৩০ হাজারের কোটায়। ক্লাবের সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় ১৯৫৭ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ৯৬ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হয়। যেটি ন্যূ ক্যাম্প নামে পরিচিত। পরবর্তীতে ২০০৩ সালে স্টেডিয়ামটিতে আরও ৩০ হাজার আসন যোগ করা হয়।

ন্যূ ক্যাম্প

পর্তুগীজ ফুটবলার কুবালা কিংবা ইয়োহান ক্রুইফরা বার্সাকে সফলতার রাস্তা দেখিয়ে গেছেন। সেই রাস্তায় পথিকের ভূমিকায় ছিলেন ফুটবল ঈশ্বর খ্যাত ম্যারাডোনা, ব্রাজিলের বিস্ময় রোনালদো কিংবা রোনালদিনহো। বার্সেলোনা দ্বারা প্রতিষ্ঠিত বিশ্ব বিখ্যাত একাডেমী লা মাসিয়া থেকে উঠে এসেছেন লিওনেল মেসি, জাভি হার্নান্দেজ, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, কার্লোস পুয়েল, জেরার্ড পিকের মতো জনপ্রিয় মুখ। তারা বার্সাকে নিয়ে গেছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। এছাড়াও বর্তমানে বার্সেলোনা ফুটবল দলের প্রতিটি খেলোয়াড়কে এক একটি ব্র্যান্ড বললে ভুল হবে না বৈকি!

ক্লাবটির অর্জনের পাল্লাও বেশ ভারী। এখন পর্যন্ত বার্সা কোপা ডেল রে ট্রফি জিতেছে ৩০ টি এবং লা-লিগা টাইটেল জিতেছে ২৬টি। তাছাড়াও ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ শিরোপা ৫টি এবং ফিফা ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ টুর্নামেন্টে ৩টি শিরোপা রয়েছে কাতালানদের ঝুলিতে।উল্লেখযোগ্য এই অর্জনগুলোই বলে দেয়, বার্সেলোনা ক্লাব বিশ্বে কতটা জনপ্রিয়!

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker