খেলামতামতহোমপেজ স্লাইড ছবি

যে কারণে আমাদের সাকিবের পাশে থাকা দরকার

মাহবুব ময়ূখ রিশাদ: গতকাল সন্ধ্যায় প্রথম জানতে পারি সাকিব নিষিদ্ধ হতে পারে। কারণটা শুনিনি, আন্দাজও করতে পারিনি। রাতে ১২ টা কি সোয়া ১২টা নাগাদ নিষিদ্ধের খবরটা কনফার্ম হলেও কোনো অথেনটিক সোর্স না থাকায় নিশ্চিত হতে পারছিলাম না। এরপর সমকালের নিউজ ভাইরাল হতে শুরু করল। আমি খুব আশংকা নিয়ে হোমপেইজে ঘুরে বেড়াতে থাকলাম। যে ভেবেছিলাম তাই। মানুষ নিউজ না পড়েই, কোনো অফিসিয়াল মন্তব্য না জেনেই সাকিবকে রীতিমতো আশরাফুল লেভেলের ম্যাচ ফিক্সার বানিয়ে ফেলেছে।

একটু কি মাথা খাটানো যায় না? একটু কি অপেক্ষা করা যায় না? একটু কি কষ্ট করে পুরো নিউজটা পড়া যায় না? সাকিবের ওপরে আপনাদের এত রাগ কেন? ও বাংলাদেশের তুলনায় সাংঘাতিক সফল একজন খেলোয়াড় বলে? আমি বিষয়গুলো বুঝতে পারি না। তবে থেকে থেকে কিছু কথায় মানুষের ঘৃণা টের পাই। এরাই আবার তাকে মাথায় তুলে নাচে, আবার ফেলেও দেয়। সমকালের সূত্র অনুযায়ী সাকিব ম্যাচ ফিক্সিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছে। ক্রিকইনফোর পেইজে সার্চ দিলে পাবেন, ২০০৮ সালেও সাকিব এমন প্রস্তাব পেয়েছিল। তখনও ফিরিয়ে দিয়েছিল। আইসিসি সাকিবের সততার প্রশংসা করেছে। তাহলে ভুলটা হলো কোথায়? ভুলটা হলো সাকিব আইসিসি কিংবা আকসুকে জানায়নি।

ধারণা করতে পারি, সাকিব যেহেতু প্রস্তাবটিকে পাত্তা দেয়নি সেজন্য আইসিসিকে ইনফর্ম করেনি। বোর্ডকে করেছিল কী? আমি এরকম নিশ্চিত কিছু কোথাও লেখা দেখি নাই। যদি করে না থাকে তবে সেটা তার খামখেয়ালিপনা হতে পারে, দোষ নয়। ১৮ মাস নিষিদ্ধ হবার মতো দোষ তো অবশ্য নয়। তবে এখনও আমরা জানি না আইসিসি ঠিক কী করতে যাচ্ছে। না জেনে সমকালের নিউজের সূত্র ধরেই কথা বলছি। সমকাল বড় পত্রিকা। তারা ক্রসচেক না করে এরকম ব্রেকিং নিউজ করবে না বলেই বিশ্বাস রাখতে চাই। ওদিকে ওরা এটাও বলেছে বিসিবি পক্ষে থাকবে।

আপনাদের হয়ত জানা আছে কিংবা জানা নেই ক্রিকেট কোচ নাজমুল আবেদিন ফাহিম অভিমান করে কয়েকদিন আগেই বোর্ডের চাকরি ছেড়ে দিয়েছিলেন। আপনাদের হয়ত জানা আছে, বোর্ডের খালেদ মাহমুদ ওরফে সুজন প্রকাশ্যে সাকিবকে দোষারোপ করেছে এই কদিন আগেই। আপনাদের হয়ত জানা আছে গত কয়েক বছরে বোর্ড সভাপতি সুযোগ পেলেই সাকিবকে নিয়ে প্রকাশ্যে বিষেদগার করেছে। আপনাদের হয়ত জানা আছে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর ছেড়ে রংপুর রাইডার্সের সাথে চুক্তি করায় পাপন রাতারাতি বিপিএলের সিস্টেমটাই চেইঞ্জ করা ফেলেছে। আপনাদের হয়ত জানা আছে, বিশ্বের চতুর্থ কি পঞ্চম ধনী ক্রিকেট বোর্ড যারা অচিরেই অর্থনৈতিকভাবে ভারতের পর চলে যেতে পারে সেই ক্রিকেট বোর্ডের কোনো জবাবদিহিতা নেই।

আপনাদের হয়ত জানা আছে, সাকিব নিজের জন্য নয়, পুরো ক্রিকেট কাঠামোর জন্য বোর্ডের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিল। সেই বোর্ড সাকিবের পক্ষে কথা বলবে? আমি বিশ্বাস করি না। যারা সুযোগ পেলেই সাকিবের বউ কেন পর্দা করে না বলে সাকিবের পেইজে গিয়ে মাতম তোলে তারা সাকিবের পক্ষে কথা বলবে? আমি বিশ্বাস করি না। আমি বিশ্বাস করি, দেশে নিশ্চয় সেন্সিবল ক্রিকেট দর্শক আছে, তারা অবশ্যই সাকিবের পক্ষে থাকবে।

আমাদের মন খারাপ, মানসিক চাপ, নানাকিছুতে সাকিব আল হাসান দীর্ঘদিন সাপোর্ট দিয়েছে। দেশের ক্রিকেটের এই দুরবস্থায়, সাকিবের এই খারাপ সময়ে, আমাদের সাপোর্ট জরুরি নয় কেবল আবশ্যক। আমি তাই সাকিব আল হাসানের পক্ষে আছি।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker