টেক টকপ্রযুক্তিহোমপেজ স্লাইড ছবি

নিজের প্রাইভেসি নিজে রক্ষা করুন

আবদুল্লাহ আল মুনতাসির: প্রায়ই এমন হয় যে আমরা কিছু একটা ইন্টারনেটে সার্চ করি, তা পরবর্তীতে  বিজ্ঞাপন হিসেবে দেখতে পাই অন্যান্য বিভিন্ন ওয়েবসাইটে। তখন কেমন যেন চমকে যান না? ধরুন, একটি বিশেষ কোন পারফিউম দেখছেন আপনি কেনার জন্য বা কোন কম্পিউটার পার্টস দেখছেন গুগল সার্চ করে। যাচাই করছেন কোথায় পাওয়া যায়, অন্য কি কি ব্র্যান্ড আছে, ভাল কি মন্দ ইত্যাদি। সার্চ শেষে আপনি আবার আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে সময় কাঁটাতে ফেরত গেলেন বা ইউটিউবে কোন ভিডিও দেখতে গেলেন। হঠাৎ লক্ষ্য করলেন যে একই জাতীয় পণ্যের বিজ্ঞাপন আপনাকে ফেইসবুকে বা ইউটিউবে দেখানো হচ্ছে। অথচ কিছুক্ষণ আগে এমন পণ্য গুলো আপনাকে দেখানো হচ্ছিলো না। ব্যাপারটি অবাক করার মতো হলেও এমন প্রচুর তথ্য আপনার থেকে প্রতিনিয়ত নেওয়া হচ্ছে এবং আপনাকে অনেক ক্ষেত্রেই জানানো ও হচ্ছেনা এগুলো সম্পর্কে।

উইন্ডোজ ১০ যখন প্রথম আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে তখন অনেকেই অভিযোগ করে যে অপারেটিং সিস্টেমটি প্রচুর তথ্য সংগ্রহ করে রাখে। শুরুর দিকে তা রোধ করার কোন উপায় না থাকলেও সময়ের সাথে সাথে অনেক আপডেট এসেছে এবং তথ্য সংগ্রহ বন্ধের অনেক উপায়ও যোগ হয়েছে। চাইলেই প্রয়োজন অনুযায়ী এগুলোর সেটিংস ঠিক করে নিতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে স্টার্ট বাটন ক্লিক করে সেটিংস এ চলে যেতে হবে। এখান থেকে প্রাইভেসি অপশন ক্লিক করে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী অপশন চালু বা বন্ধ করে নিতে হবে। উল্লেখযোগ্য কিছু অপশন হলো-

 অ্যাডভারটাইজিং: প্রাইভেসি অপশনের জেনারেল ট্যাব এর অধীনে থাকা অ্যাডভারটাইজিং আইডি বন্ধ করে দিতে পারেন। এটিই দায়ী আপনাকে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন এর প্রলোভন দেখানোর পেছনে। আপনার সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে, আপনার পছন্দ অনুযায়ী বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে এই অপশন।

 ডায়াগনোসিস: এর অধীনে সেটিংসটি “সিম্পল” করে দিন। এটি আপনার ব্যবহার করার ধরন, আপনার আচরণ ইত্যাদি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। সিম্পল করে দিলে তা আপনার সম্পর্কে কম তথ্য সংগ্রহ করবে।

ক্যামেরা: আপনার প্রাইভেসি রক্ষায় এটি একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ অপশন। এখান থেকে আপনি আপনার ক্যামেরা কোন কোন অ্যাপ্লিকেশান ব্যবহার করতে পারবে তা নির্ধারণ করে দিতে পারবেন। কোন অনাকাঙ্ক্ষিত অ্যাপ্লিকেশান যেন আপনার ক্যামেরা ব্যবহার না করতে পারে তা নিশ্চিত করবে এটি।

 মাইক্রোফোন: এটিও আপনার ক্যামেরার মতই গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ এবং একই কারনে এর নিরাপত্তা বিধান জরুরী। আপনার অজান্তে যেন কোন তৃতীয় পক্ষ আপনার কথোপকথন শুনতে না পারে তাই কোন কোন প্রোগ্রাম আপনার মাইক্রোফোন চালু বা বন্ধ করতে পারবে তা নির্ধারণ করে দিবেন।

 ব্যাকগ্রাউন্ড: ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ অপশন থেকে আপনি কোন কোন প্রোগ্রাম আপনার সামনে না থেকেও তথ্য সংগ্রহ করবে তা বাছাই করে দিতে পারেন।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker