প্রযুক্তিহোমপেজ স্লাইড ছবি

গেম খেলার জন্য সেরা পাঁচটি স্মার্টফোন

এনামুল সাদিক: মোবাইল এখন শুধু কথা বলার জন্য ব্যবহার হয়না। অবসরের বিনোদন হিসাবে মোবাইল গেমসগুলোর দিন দিন কদর বেড়েই যাচ্ছে। এর জন্য প্রয়োজন ভাল মানের স্মার্টফোন। মোটামুটি সব ধরনের স্মার্টফোনে গেম খেলা যায় তবে এদের মধ্যে সেরা পাঁচটি স্মার্টফোনের কথা আপনাদের কাছে তুলে ধরা হলো।

আইফোন এক্সআর: গত সেপ্টেম্বরে একযোগে তিনটি আইফোন উন্মোচন করেছিল অ্যাপল। এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সাশ্রয়ী সংস্করণ আইফোন এক্সআর। আইওএস ১২ চালিত ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি ডিসপ্লের ডিভাইসটিতে গেমস খেলার অনবদ্য অভিজ্ঞতা মিলবে। অ্যাপল এ১২ বায়োনিক চিপ চালিত ৩ গিগাবাইট র‍্যামের ডিভাইসটির ৬৪, ১২৮ ও ২৫৬ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ সংস্করণ পাওয়া যাচ্ছে। এতে ১২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ও ৭ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা আছে। ২৯৪২ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি সংবলিত হ্যান্ডসেটটির ভিত্তিমূল্য ৭৪৯ ডলার থেকে শুরু।

রেজার ফোন: বিশ্বব্যাপী গেমিং ল্যাপটপ নির্মাতা হিসেবেই বেশি পরিচিত রেজার। গত বছরের শুরুর দিকে স্মার্টফোন নির্মাতা নেক্সবিটকে অধিগ্রহণের পর একাধিক গেমিং স্মার্টফোন উন্মোচন করে প্রতিষ্ঠানটি। এর রেজার ফোন ২ নামের অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও চালিত ডিভাইসটিতে ১৪৪০–২৫৬০ পিক্সেল রেজল্যুশনের ৫ দশমিক ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। ৮ গিগাবাইট র‍্যামের ডিভাইসটিতে ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের সুবিধা মিলবে। দীর্ঘ সময় পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ডিভাইসটিতে ৪০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি রয়েছে। এতে ১২ ও ১২ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল রিয়ার ও ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা আছে। ডিভাইসটির ভিত্তিমূল্য ৭৯৯ ডলার। গ্যালাক্সি নোট ৯ দক্ষিণ কোরিয়া টেক জায়ান্ট স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯ কে গেমিংয়ের জন্য এ বছরের অন্যতম উপযুক্ত ডিভাইস বলা হয়। গেম খেলার সুবিধার্থে অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও চালিত ডিভাইসটিতে রয়েছে ১৪৪০–২৯৬০ পিক্সেল রেজল্যুশনের ৬ দশমিক ৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে।

গ্যালাক্সি নোট ৯: এর কিছু সংস্করণে এক্সিনোস ৯৮১০ ও কিছু সংস্করণে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসর রয়েছে। এর ৬ গিগাবাইট র‍্যাম সংস্করণে ১২৮ গিগাবাইট ও ৮ গিগাবাইট র‍্যাম সংস্করণে ৫১২ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ সুবিধা রয়েছে। ৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি রয়েছে। গ্যালাক্সি নোট ৯ এ রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ও ১২ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো মিলিয়ে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সিস্টেম ও ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা। মূল্য ১ হাজার ডলার থেকে শুরু।

ওয়ানপ্লাস সিক্স: ওয়ানপ্লাসের সুপারফাস্ট ওয়ানপ্লাস সিক্স স্মার্টফোনকে গেমিংয়ের জন্য অন্যতম উপযুক্ত ডিভাইস বলা হয়। অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিওচালিত ডিভাইসটিতে ১০৮০–২২৮০ পিক্সেল রেজল্যুশনের ৬ দশমিক ২৮ ইঞ্চি ডিসপ্লে, স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসর সংবলিত ৬ গিগাবাইট র‍্যামের ৬৪ এবং ৮ গিগাবাইট র‍্যামের ১২৮ ও ২৫৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ সংস্করণ রয়েছে। ৩ হাজার ৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি, ১৬ ও ২০ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ও ১৬ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা রয়েছে। মূল্য ৫২৯ ডলার থেকে শুরু।

হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো: গত বছরে পুরো গেমিং দুনিয়াকে যে ফোনগুলো মাতিয়েছে, তার মধ্যে হুয়াওয়ে মেট ২০ প্রো অন্যতম। এতে গেমিংয়ের জন্য সব সুবিধাই রয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই সমৃদ্ধ ডিভাইসটিতে রয়েছে ১৪৪০–৩১২০ পিক্সেল রেজল্যুশনের ৬ দশমিক ৩৯ ইঞ্চির ডিসপ্লে। ৬ গিগাবাইট র‍্যামের সংস্করণে ১২৮ গিগাবাইট ও ৮ গিগাবাইট র‍্যামের সংস্করণে ২৫৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরির সুবিধা তো রয়েছেই। কিরিন ৯৮০ প্রসেসর চালিত ডিভাইসটিতে ৪২০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি সুবিধা থাকার কারণে খেলার জন্য বেশি ব্যাকআপ সময় পাওয়া যায়। দামও মোটামুটি বেশ চড়াই বলা যায়, ১০৪৯ ডলার থেকে শুরু।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker