টেক টকট্রেন্ডিং খবরপ্রযুক্তিহোমপেজ স্লাইড ছবি

টেক জাদুকর ইলন মাস্ক এখন মাইন্ড রিডিং করবেন?

আবদুল্লাহ আল মুনতাসির: ২৫ বছরের অধিক সময় ধরে তিনি বিভিন্ন কোম্পানি গঠন ও অত্যাধুনিক জিনিষ আবিষ্কারের সাথে জড়িত আছেন। অনলাইন ব্যাংক এক্স ডট কম তৈরি করা যা পরবর্তীতে পেপ্যাল এ রূপান্তরিত হয়, সোলার রুফ টাইলস এর বিশাল ব্যবসায় সৌরশক্তির ব্যবহার, টানেল বানানোর কোম্পানি, পুনরায় ব্যবহারযোগ্য রকেট তৈরি ছাড়াও তার সর্বাধিক পরিচিত কোম্পানির মধ্যে আছে ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি টেসলা। কি করেননি তিনি জীবনে? তবে মানুষের মন পড়া দায় বলে একটা কথা আছে। কিন্তু এই অসাধ্য কে সাধ্য করবেন বলে ঠিক করেছেন ইলন মাস্ক।

২০১৭ সাল থেকে “নিউরালিঙ্ক” নামের একটি কোম্পানি মানুষের মস্তিষ্ক ও ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রের মধ্যে তথ্য আদান প্রদানের জন্য মেহনত করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের নিজের ১০০ মিলিয়ন ডলার ছাড়াও বিভিন্ন বিনিয়োগকারী মিলিয়ে ১৫০ মিলিয়ন ডলারের এই ১০০ জন সম্বলিত স্টার্ট আপ কোম্পানি, বিগত বছরগুলোতে রোবটিক্সে বিশাল সাফল্য দেখেছে বলে দাবি করা হয়। তাদের মূল লক্ষ্য হলো পক্ষাঘাতগ্রস্থ বা প্যারালাইজড মানুষকে এমন ক্ষমতা দেওয়া যেন তারা তাদের ব্রেইন ব্যবহার করে কম্পিউটার পরিচালনা করতে পারে।

আপাতত শুধু ইদুরের ওপরই পরীক্ষা নিরীক্ষা চললেও ইলন মাস্ক সাংবাদিকদের এ বলে চমকিয়ে দেন যে, তাদের প্রযুক্তি প্রাইমেট অর্থাৎ বানর প্রজাতির প্রাণীদের মধ্যে সফল ভাবে পরীক্ষা করা হয়েছে। নিউরালিঙ্কের প্রেসিডেন্ট “ম্যাক্স হোডাক”, আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের কাছে আগামী বছরের মধ্যে মানুষের মধ্যেও পরীক্ষা নিরীক্ষা করার অনুমতি প্রার্থনা করবে বলে জানা যায়।

সাংবাদিকদের সামনে এক প্রদর্শনীতে কোম্পানিটি দেখায়, কিভাবে তারা একটি ইদুরের মস্তিষ্কের কার্যকলাপ রেকর্ড করতে সক্ষম হয়েছে। তাদের তৈরি রোবট দিয়ে তারা ইদুরের ব্রেইনে সার্জারির মাধ্যমে হাজার হাজার অতি ক্ষুদ্র ইলেক্ট্রোড স্থাপন করে। এই ইলেক্ট্রোড ইদুরের ব্রেইনের নিউরন ও সিনাপসিস এর সাথেই থাকবে ও ব্রেইনের বিভিন্ন সিগনাল রেকর্ড করবে। এই নতুন প্রযুক্তি ব্রেইনের জন্য আগের প্রযুক্তিগুলোর চেয়ে কম ক্ষতিকারক হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আগের প্রযুক্তিতে এ জাতীয় ইমপ্ল্যান্ট স্থাপন করতে টিস্যু ক্ষতিগ্রস্ত হতো যার ফলে কোষ এটিকে একটি ক্ষত হিসেবে চিহ্নিত করে এই ক্ষত প্রতিরোধ ও সারিয়ে তোলার চেষ্টা করতো। ফলে পরবর্তীতে সিগনাল ঠিকমত কাজ করতো না। নতুন প্রযুক্তিতে কোষের ক্ষত না করে কোষ সরিয়ে নিজের জায়গা করে নিবে এই ইলেক্ট্রোড।

গেলো মঙ্গলবার সানফ্রান্সিসকোতে ইলন মাস্ক জানান মানুষের চুলের ৪ ভাগের ১ ভাগ প্রস্থের একেকটি তারের সাহায্যে ইলেক্ট্রোডের জালের মতো তৈরি করা হবে এবং বসানো হবে ৮ মিলিমিটার প্রস্থের ছিদ্রের মধ্য দিয়ে। প্যারালাইজড রোগীর খুলি ছিদ্র করতে ব্যবহৃত হবে শক্তিশালী অপটিক ক্ষমতাশালী রোবট যা খুব সূক্ষ্মভাবে এই অপারেশনে কাজ করবে। যদি ইলন মাস্কের এই স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নেয় তবে প্যারালাইজড রোগীরা শুধুমাত্র তাদের মস্তিষ্কের ইশারায় কম্পিউটার বা স্মার্ট ফোন পরিচালনা করতে পারবে। অনেকে এসব অসম্ভব বললেও কোম্পানির প্রেসিডেন্ট হোডাক বলেন, আগামী দশক এ অনেক চমক অপেক্ষা করছে সবার জন্য।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker