ট্রেন্ডিং খবরপ্রযুক্তিহোমপেজ স্লাইড ছবি

মঙ্গল গ্রহে নিউক্লিয়ার নিক্ষেপ?

আবদুল্লাহ আল মুনতাসির: মঙ্গল গ্রহে নিউক্লিয়ার বোমা ফেলা হোক। ঠিক এমনটাই চান স্বপ্নদর্শী বিলিয়নেয়ার ইলন মাস্ক। গেলো বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এমনই একটি বিতর্কমূলক বক্তব্য দেন তিনি।

ইলন মাস্ক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে মানুষের সাথে মজা নেয়ার জন্য বিখ্যাত, একথা নতুন নয়। বিলিয়নেয়ার এবং টেক জিনিয়াস হওয়ার পাশাপাশি টুইটারে এমন মজার মজার টুইট করে প্রচুর ফলোয়ার যুগিয়েছেন ইলন। তবে তার “NUKE MARS” টুইটটি পুরোপুরি ভাবে মজা নেয়ার উদ্দেশ্যে দেওয়া, বলে উড়িয়ে দেয়া যায়না। ইলন এর আগেও ২০১৫ সালে একটি টক-শো তে মঙ্গল গ্রহে বোমা ফেলতে চান বলে জানান। তবে তার মঙ্গল গ্রহে বোমা ফেলার ব্যাপারটি মঙ্গল গ্রহের প্রতি কোন বিশেষ ঘৃণা থেকে আসেনি। বরং তিনি মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসবাসের ব্যবস্থা করতে উঠেপড়ে লাগা ব্যক্তিদের মধ্যে অন্যতম একজন। তিনি এবং তার স্পেস কোম্পানি “স্পেস এক্স” প্রতিনিয়তই এ নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তার মতে মনুষ্য জাতির টিকে থাকার শেষ ভরসা মঙ্গল গ্রহ, কারণ পৃথিবী ক্রমেই বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠছে।

তবে ইলন মাস্ক কেন মঙ্গল গ্রহে বোমা ফেলতে চান?

মঙ্গল গ্রহে বোমা ফেলার ব্যাপারটি ১০০ ভাগ অযৌক্তিক, কথাটি ঠিক নয়। ইলন মাস্ক যখন মঙ্গল গ্রহে বোমা ফেলার কথা প্রথমবারের মতো টক-শো তে বলেন তখন শো এর হোস্ট মজার ছলে তাকে কোন মুভির সুপার ভিলেনের সাথে তুলনা করেন। ইলন মাস্ক তা হেসে উড়িয়ে দেন। তবে পরবর্তীতে তিনি তার কথার ব্যাখ্যা দেন।

তার হিসেবে মঙ্গল গ্রহের বাতাবরণ আমাদের পৃথিবীর বাতাবরণের অনেক কাছাকাছি হলেও, মানুষের বসবাসের যোগ্য নয়। যা সত্য। মঙ্গল গ্রহে পানি পাওয়া গেছে তাও সত্য, কিন্তু আপাতত তা ব্যবহার যোগ্য নয়। এখন এই অযোগ্য কে যোগ্য করার উদ্দেশ্যে মঙ্গল গ্রহের তাপমাত্রা বৃদ্ধি করতে চান ইলন। তিনি চান মঙ্গল গ্রহের দুই মেরুতে নিউক্লিয়ার নিক্ষেপ করা হোক। তাহলে তা ছোট ছোট দুটি সূর্যের মতো কাজ করবে। যা বরফে আটকে থাকা পানিকে গলিয়ে বাষ্প করবে এবং আটকে থাকা কার্বন ডাই অক্সাইড বের করে এক রকম গ্রীনহাউস ইফেক্ট এর মতো কাজ করবে বলে মনে করেন। এর মাধ্যমে মঙ্গল গ্রহকে টেরাফর্ম বা পৃথিবীর মতো করে মানুষের বসবাস যোগ্য করে তুলতে চান ইলন। মনে রাখতে হবে, মঙ্গল গ্রহে যাওয়ার জন্য সবচেয়ে উচ্চাকাঙ্ক্ষী লোকের মধ্যে ইলন মাস্ক অন্যতম।

নিউক্লিয়ার ফেলা কতটুকু যৌক্তিক?

ইলন মাস্ক এর ধারনা যাই হোক না কেন আপাতত আমরা গবেষণার উপর নির্ভর করবো। ২০১৮ সালে ইউনিভার্সিটি অফ কলোরাডো এবং ইউনিভার্সিটি অফ নর্দার্ন অ্যারিজোনার দুজন গবেষক একটি গবেষণায় দেখেন যে মঙ্গল গ্রহকে টেরাফর্ম করতে যে পরিমাণ কার্বন ডাই অক্সাইড প্রয়োজনে তা নেই সেখানে। এবং আমাদের বর্তমান প্রযুক্তিতে এভাবে মঙ্গল গ্রহকে বসবাস যোগ্য করা সম্ভব নয়। আরেকটি সমস্যার কথাও তুলে ধরেন তারা। তাদের হিসেবে মঙ্গল গ্রহের বায়ুমণ্ডল থেকে প্রতিনিয়তই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা গভীর মহাকাশে হারিয়ে যাচ্ছে। নিউক্লিয়ারের ব্যবহার করে যদি কার্বন ডাই অক্সাইড বের করাও হয়, তা মঙ্গল গ্রহের বায়ুমণ্ডল থেকে গভীর মহাকাশে হারিয় যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক।

মঙ্গল গ্রহে নিউক্লিয়ার ফেলা হোক আর না হোক, “NUKE MARS” প্রিন্ট করা টি-শার্ট ঠিকই ইলন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্স এর ওয়েবসাইটে পাওয়া যাচ্ছে। এবং ইলন মাস্কের ভক্তরা তা লুফে নিচ্ছে।

Related Articles

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker